গুগল চ্যাটের ওয়েব ভার্সন ও ডেস্কটপ অ্যাপে ডার্ক  মোড যুক্ত করার পাশাপাশি ক্যালেন্ডারে কাজের অবস্থান যুক্ত করার সুবিধা দিতে যাচ্ছে সার্চ ইঞ্জিন জায়ান্ট গুগল।

এক ব্লগ পোস্টের মাধ্যমে গুগল চ্যাটের ওয়েব ভার্সন, ডেস্কটপ ভার্সন ও প্রগ্রেসিভ ওয়েব অ্যাপে ডার্ক মোড চালুর বিষয়ে জানিয়েছে এ প্রযুক্তি জায়ান্ট। কিন্তু ফিচারটি অ্যাডমিন হিসেবে নিয়ন্ত্রণ করা যাবে না। এটি ব্যবহারের সেটিংসে প্রবেশ করতে হবে। সেখানে থিম সেটিংসে প্রবেশ করে ডার্ক মোড সিলেক্ট করে চালু করতে হবে। গুগল চ্যাটের প্রগ্রেসিভ ওয়েব অ্যাপ ও ওয়েব ভার্সন অ্যাপ্লিকেশনে একই পদ্ধতিতে ডার্ক মোড ব্যবহার করা যাবে। খবর গ্যাজেটস থ্রিসিক্সটি।

গুগল চ্যাটের প্রগ্রেসিভ ওয়েব অ্যাপেও (পিডব্লিউএ) ডার্ক মোড চালু করবে এ প্রযুক্তি জায়ান্ট। প্রায় এক বছর আগে অ্যান্ড্রয়েড ও আইওএস প্লাটফর্মে এ ফিচার চালু করেছে প্রতিষ্ঠানটি।

অন্যদিকে গুগল ক্যালেন্ডারে ব্যবহারকারীরা তাদের একটি সাপ্তাহিক কাজের অবস্থান রুটিন যোগ করতে পারবেন। সেই সঙ্গে এ রুটিনে পরিবর্তন হলে তা আপডেট করতে পারবেন। এ সময় অফিস, হোম, আনস্পেসিফায়েড অথবা সামহোয়ার এলস অপশন ব্যবহার করা যাবে।

নতুন ফিচারটি ধীরে ধীরে গ্রাহকদের ব্যবহারের জন্য উন্মুক্ত করা হচ্ছে। সামগ্রিকভাবে এটি চালু হতে ১৫ দিন সময় লাগতে পারে। তাই ব্যবহারকারীরা তাত্ক্ষণিকভাবে এ ফিচার ব্যবহার করতে পারবেন না। গুগল ওয়ার্কস্পেস, জি স্যুট ব্যাসিক ও বিজনেস গ্রেডের গ্রাহকরা এটি ব্যবহার করতে পারবেন বলে প্রতিষ্ঠান সূত্রে জানা গেছে।

অন্যদিকে ৩০ আগস্ট গুগল ক্যালেন্ডারে লোকেশন যুক্ত করার সুবিধা চালু করা হবে। তবে অ্যাডমিনরা তাদের প্রতিষ্ঠানে এরই মধ্যে এ ফিচার ব্যবহার করতে পারছেন। গুগল জানায়, বাই ডিফল্ট এ ফিচার চালু হয়ে যাবে। শুধু ডোমেইন বা ওইউ পর্যায়ে এটি বন্ধ করা যাবে। যদি অ্যাডমিন এ ফিচার বন্ধ করতে চান তাহলে ৩০ আগস্টের আগে অ্যাডমিন কনসোল থেকে এটি বন্ধ করে দিতে হবে।

এ ফিচার চালু হলে ব্যবহারকারীরা সপ্তাহের কোন দিন অফিসে যেতে হবে, কোন দিন বাসায় থেকে অথবা অন্য কোন জায়গা থেকে কাজ করতে হবে সেটি সহজেই দেখে নিতে ও নির্ধারণ করতে পারবেন।