ইউরোপের দেশ পর্তুগালের মিউনিসিপালিটি নির্বাচনে প্রথমবারের মতো কোনো বাংলাদেশি বিজয়ী হয়েছেন।

বাংলাদেশি শাহ আলম কাজল মিউনিসিপালিটি নির্বাচনে পর্তুগালের বন্দরনগরী পোর্তো শহরের ফ্রেগজিয়া বনফিমের অ্যাসেম্বলি প্যানেলে কাউন্সিলর পদে বিজয়ী হয়েছেন। তিনি ক্ষমতাসীন সোশ্যালিস্ট পার্টির পক্ষে নির্বাচনে অংশ নেন।

কাজল দীর্ঘদিন ধরে পর্তুগালে স্থায়ীভাবে বসবাস করছেন। শাহ আলম কাজলের বাড়ি বাংলাদেশের নোয়াখালী জেলার সোনাইমুড়ী  উপজেলার পালপাড়া গ্রামে।  তার বাবার নাম মোহাম্মদ আলী এবং মায়ের নাম হালিমা বেগম। বর্তমানে দুই মেয়ে এবং এক ছেলে সন্তানকে নিয়ে পর্তুগালের বন্দর নগরী পর্তুতে বসবাস করছেন তিনি।

সমকালের সঙ্গে আলাপকালে শাহ আলম কাজল জানান, তিনি ১৯৯২ সালে পর্তুগালে যান এবং ২০০৪ সালে তিনি পর্তুগিজ নাগরিকত্ব লাভ করেন। ২০১১ সালে ক্ষমতাসীন সোশ্যালিস্ট পার্টিতে যোগ দেন। তারপর থেকে ধীরে ধীরে পর্তুগালের মূলধারার রাজনীতিতে যুক্ত হন।

নির্বাচনে জয়ের ব্যাপারে শাহ আলম কাজল জানান, নির্বাচনে জয় বা পরাজয় বড় কথা নয়, তবে তিনি নির্বাচনে জয়ী হওয়ায় সোশ্যালিস্ট পার্টিসহ পর্তুগালে বসবাসরত প্রবাসী বাংলাদেশি এবং সব ভোটারদের কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। 

তিনি মনে করেন, তার এ বিজয় নতুন প্রজন্মের কাছে একটি দৃষ্টান্ত।

পর্তুগালে আগত নতুন প্রজন্ম যাতে মূলধারার রাজনীতিতে অনুসরণ করে বিশ্ব দরবারে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করতে পারে এমনই আশা ব্যক্ত করেন তিনি ।