আরও একটি বছর চলে গেল। নতুন একটি বছর শুরু হচ্ছে। যে বছরটি চলে গেল, সেটি বিশ্বরাজনীতিতে কেমন ছিল? জানুয়ারিতে যুক্তরাষ্ট্রের কংগ্রেস ভবনে হামলা দিয়ে বছর শুরু হয়েছিল; শেষ হচ্ছে আবার ক্ষমতার কোনো সংঘাত নিয়ে। মাঝে আরও নানা অঘটন ঘটে গেছে। সেই সব ঘটনা প্রবাহের চুম্বকাংশ তুলে ধরা হয়েছে প্রতিবেদনটিতে।


মার্কিন কংগ্রেস ভবনে হামলা

নির্বাচনে হেরে যাওয়া মেনে নিতে পারেননি যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। জো বাইডেনের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ আনতে থাকেন। সমর্থকদের উসকানি দিচ্ছিলেন। এ থেকেই ঘটে যায় যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে এক ন্যাক্কারজনক ঘটনা। গত ৬ জানুয়ারি দেশটির কংগ্রেস ভবন ক্যাপিটল হিলে হামলা চালান ট্রাম্পের উগ্র সমর্থকরা। রক্তাক্ত এ হামলায় অন্তত পাঁচজন নিহত হন। আহত হন শতাধিক। এ ঘটনাকে 'মার্কিন গণতন্ত্রের ওপর নগ্ন হামলা' হিসেবে মন্তব্য করেন রাজনীতিকরা।


প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের শপথ

গত ২০ জানুয়ারি বিশ্বের অন্যতম পরাশক্তি যুক্তরাষ্ট্রের ৪৬তম প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নেন জো বাইডেন। কিন্তু অন্যসব প্রেসিডেন্টের শপথ অনুষ্ঠানের মতো হয়নি তার; ছিল অনেক ভিন্নতা। ক্যাপিটল হিলে হামলার রেশ থেকে অনুষ্ঠানে ছিল নিশ্চিদ্র নিরাপত্তা। করোনাভাইরাসের কারণে ছিল কঠোর স্বাস্থ্যবিধিও। এই শপথ অনুষ্ঠানে যোগ দেননি বিদায়ী প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। ১৮৬৯ সালে অ্যান্ড্রু জনসনের পর এই প্রথম কোনো মার্কিন প্রেসিডেন্ট তার উত্তরসূরির অভিষেক অনুষ্ঠানে অংশ নেননি। সবমিলে যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে কোনো মার্কিন প্রেসিডেন্ট পূর্বসূরির কাছ থেকে এমন দেশ পাননি, যেমনটি ট্রাম্পের কাছ থেকে পান বাইডেন।


মিয়ানমারে সেনা অভ্যুত্থান

গত ১ ফেব্রুয়ারি মিয়ানমারের শাসন ক্ষমতা দখল করে নেয় দেশটির সেনাবাহিনী। ভোট জালিয়াতির অভিযোগ এনে দেশটির নেত্রী অং সান সু চি, প্রেসিডেন্ট উইন মিন্ট এবং ক্ষমতাসীন ন্যাশনাল লিগ ফর ডেমোক্রেসির (এনএলডি) শীর্ষ নেতাদের আটক করা হয়। জারি করা হয় জরুরি অবস্থা। এর প্রতিবাদে রাজপথে নামেন হাজার হাজার মানুষ। সেই বিক্ষোভ প্রতিহত করতে সহিংসতা বেছে নেয় দেশটির নিরাপত্তা বাহিনী। এতে এ পর্যন্ত এক হাজার ৩০০ জনের বেশি নিহত হয়েছেন বলে অভিযোগ আছে। গ্রেপ্তার আছেন হাজারও মানুষ। বাস্তুচ্যুত মানুষের সংখ্যাও ব্যাপক। সবমিলে নির্যাতনের শিকার দেশটির লাখ লাখ মানুষের নীরব কান্না ছিল সারাবছর।


পশ্চিমবঙ্গে বিধানসভা নির্বাচন; মমতার জয়-পরাজয়

পশ্চিমবঙ্গে আট পর্বের ভোটগ্রহণ শেষে বিধানসভা নির্বাচনের ফল ঘোষণা হয় গত ২ মে। গত ১০ বছর ধরে রাজ্যে ক্ষমতাসীন তৃণমূল কংগ্রেস আবারও পশ্চিমবঙ্গের দখল নেয়। কিন্তু নিজের আসনে হেরে যান দলপ্রধান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। হেরে গেলেও সংবিধান মেনে দল তাকে মুখ্যমন্ত্রী করে। জয়ের শর্ত কাঁধে নিয়ে ৫ মে টানা তৃতীয়বারের মতো মুখ্যমন্ত্রিত্ব নেন মমতা। বিষয়টি এমন ছিল, মুখ্যমন্ত্রী পদে থাকতে হলে তাকে ছয় মাসের মধ্যে ওই আসনে জিততেই হবে। শেষপর্যন্ত গত ৩০ সেপ্টেম্বর উপ-নির্বাচন হয়। ফল ঘোষণা হয় ৩ অক্টোবর; বড় ব্যবধানে জয়ী হন মমতা। মুখ্যমন্ত্রী পদে থাকতে আইনগত শর্তপূরণ হয় তার।


তালেবানের কাবুল দখল

গত অগস্টে তালেবানের নিয়ন্ত্রণে চলে যায় আফগানিস্তান। দীর্ঘ যুদ্ধ শেষে মার্কিন সেনারা যখন দেশে ফিরবেন, ঠিক সেই সময়ে শুরু হয় রাজধানী কাবুল দখলের দামামা। একের পর এক প্রদেশ দখল করে কাবুল বেড় দিচ্ছিলেন তালেবান যোদ্ধারা। আতঙ্কিত জনপদে পরিণত হয় পুরো নগরী।  ঠিক এই সময়ে দেশ ছেড়ে পালিয়ে যান তখনকার প্রেসিডেন্ট আশরাফ গনি। এ সুযোগে নতুন ইতিহাস রচনা করে তালেবান। কাবুলের পর সর্বশেষ পাঞ্জশির নিয়ন্ত্রণ নিয়ে সরকার গঠন করে গোষ্ঠীটি।

তালেবানের এই ক্ষমতার পালাবদলে অসংখ্য মানুষের প্রাণ গেছে। দেশটিতে প্রায় প্রতিদিনই হামলা, গুলি, বোমা বিস্ফোরণ লেগে ছিল। বহু মানুষ আহত হন। বাস্তুচ্যুত হাজার হাজার মানুষ। যারা রয়েছেন, তাদের অনেকে আবার অনাহারে ভুগছেন। যুক্তরাষ্ট্রের সাহায্য-সহযোগিতা বন্ধ হয়ে যাওয়ায় চরম অর্থনৈতিক সংকটে দেশটি। এরমধ্যে আবার তালেবানের নতুন নতুন নিয়ম।


করোনাভাইরাস, টিকাদান ও বিক্ষোভ

করোনাভাইরাস মহামারির শুরু আগের বছরে হলেও এবারও কোনো অংশে কম ছিল না। ভাইরাসটির নতুন নতুন ধরন নাস্তানাবুদ করে দিয়ে গেছে কোনো কোনো দেশকে। ডেল্টা ধরনের বিস্তারে মৃত্যুপুরী ছিল ভারত। আবার মহামারি মোকাবিলায় কর্তৃপক্ষের ব্যর্থতা, লকডাউন ও অর্থনৈতিক সংকটের জেরে বিভিন্ন দেশে বিক্ষোভ হয়েছে। এছাড়া ইউরোপসহ বিভিন্ন দেশে করোনার বিধিনিষেধের বিরুদ্ধেও বিক্ষোভ হয়। তবে এত প্রতিকূলতার মধ্যেও আশার কথা হচ্ছে, এ বছরই ভাইরাসটির টিকা ব্যাপক হারে দেওয়া শুরু হয়। অনেক দেশ ইতোমধ্যে বুস্টার ডোজও দিচ্ছে।


ইসরায়েল-ফিলিস্তিন সংঘাত

ইসরায়েল ও ফিলিস্তিনের মধ্যে সংঘাত বহুদিনের। মাঝে কয়েক বছর বড় ধরনের কিছু হয়নি। কিন্তু এ বছরের মে মাসে হয়ে গেছে রক্তক্ষয়ী এক সংঘাত। ১১ দিনের এ যুদ্ধে গাজায় ইসরায়েলি হামলায় ২৫০ জনের বেশি ফিলিস্তিনি নিহত হন। ইসরায়েলে নিহত হন ১২ জন।

এছাড়া ভারতে বিতর্কিত আইনের বিরুদ্ধে বছরজুড়ে কৃষক আন্দোলন, জুলাইয়ে দক্ষিণ আফ্রিকায় সাবেক প্রেসিডেন্ট জ্যাকব জুমাকে গ্রেপ্তারের প্রতিবাদে বিক্ষোভ ও দাঙ্গা, অক্টোবরে সুদানে আবারও সেনা অভ্যুত্থান, জুলাইয়ে তিউনিসিয়ায় কভিড মোকাবিলায় ব্যর্থতার জেরে বিক্ষোভের মুখে দেশটির প্রধানমন্ত্রী হিচাম মেচিচিকে বরখাস্ত, জুলাইয়ে হাইতির প্রেসিডেন্টকে গুলি করে হত্যা, নভেম্বরে সুইডেনের ইতিহাসের প্রথমবারের মতো নারী প্রধানমন্ত্রী হওয়ার কিছুক্ষণের মধ্যেই পদত্যাগ, সেপ্টেম্বরে কানাডায় মধ্যবর্তী ফেডারেল নির্বাচন, ডিসেম্বরে হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত হয়ে ভারতের প্রতিরক্ষা বাহিনীর প্রধান জেনারেল বিপিন রাওয়াতের মৃত্যু, চীন-তাইওয়ান সংকট, হংকংয়ে বিক্ষোভ ; এমন আরও অনেক ঘটনায় সারাবছর উত্তাল ছিল বিশ্বরাজনীতি।