বাংলাদেশ থেকে নির্বাসিত লেখক তসলিমা নাসরিন ফেসবুকের কাছে তার অ্যাকাউন্ট ফেরত দিতে অনুরোধ করেছেন। মঙ্গলবার বিকেলে টুইটারে এ দাবি করেন তিনি। এ নিয়ে একাধিক টুইটে তীব্র ক্ষোভও প্রকাশ করেন তিনি।

ফেসবুক অ্যাকাউন্টের ছবি দিয়ে তিনি টুইট করেন, 'আমি পুরোপুরি জীবিত। কিন্তু আপনারা আমার ফেসবুক অ্যাকাউন্ট ‌'রিমেম্বারিং' করে দিয়েছেন। এটা খুবই দুঃখের খবর! আপনারা এটা কীভাবে করতে পারলেন? দয়া করে আমার অ্যাকাউন্ট ফিরিয়ে দেন।

অন্য এক টুইটে ক্ষোভ প্রকাশ করে তিনি বলেন, 'ফেসবুক আমাকে মেরে ফেলেছে। অথচ আমি জীবিত। আমি অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হইনি বা বিছানাগতও হইনি। তবুও ফেসবুক আমার অ্যাকাউন্ট রিমেম্বারিং করে দিয়েছে। 

এর আগে মঙ্গলবার বিকেলে তার ভেরিফায়েড ফেসবুক অ্যাকাউন্টে প্রবেশ করে দেখা যায়, তার অ্যাকাউন্টটি ‘রিমেম্বারিং’ করে দিয়েছে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ।

সাধারণত কেউ মারা গেলে অ্যাকাউন্টটি রিমেম্বারিং করে দেয় ফেসবুক।

ফেসবুক কর্তৃপক্ষ তসলিমা নাসরিনের প্রোফাইলে লিখেছে, ‘আমরা আশা করি যারা তসলিমা নাসরিনকে ভালোবাসেন, তারা তাকে স্মরণ ও সম্মানিত করার জন্য তার প্রোফাইল পরিদর্শন করে সান্ত্বনা খুঁজে পাবেন।’

কেউ মারা গেলে তার ফেসবুক অ্যাকাউন্ট রিমেম্বারিং করতে হলে একটি ফরম পূরণ করে ফেসবুকের কাছে আবেদন করতে হয়। ওই আবেদন যাচাই করে পদক্ষেপ নেওয়া হয়। তবে তসলিমা নাসরিনের ক্ষেত্রে কী ঘটেছে তা এখনও স্পষ্ট নয়।