শুক্র ও মঙ্গল গ্রহ নিয়ে মানুষের কৌতূহলের শেষ নেই। এ গ্রহ দুটি নানা তথ্য অনুসন্ধানে বিজ্ঞানীরা একের পর এক অভিযান চালাচ্ছেন। তাদের এ ঘাম ঝরানো প্রচেষ্টা দেখে অনেকেই মনে করতে পারেন, গ্রহ দুটি মহামূল্যবান নিশ্চয়ই। কিন্তু অ্যাস্ট্রোফিজিস্ট গ্রেগ লাঘলিং যে তথ্য দিয়েছেন তাতে দেখা যাচ্ছে, এ দুটো গ্রহের আসলে তেমন কোনো দাম নেই। এর মধ্যে শুক্র কার্যত মূল্যহীন।

গ্রেগ লাঘলিং বিভিন্ন গ্রহের বয়স, অবস্থা এবং খনিজ ইত্যাদির ভিত্তিতে দাম নির্ধারণ করেছেন। তার মতে, মঙ্গলের দাম ১৩ লাখ ৮৮ হাজার টাকা। শুক্রের দাম মাত্র ৮০ পয়সা। শুক্র হলো সূর্য থেকে দূরত্বের দিক দিয়ে সৌরজগতের দ্বিতীয় গ্রহ। এ গ্রহটিকে অনেক সময় পৃথিবীর 'বোন গ্রহ' বলে আখ্যায়িত করা হয়। কারণ পৃথিবী এবং শুক্রের মধ্যে গাঠনিক উপাদান এবং আচার-আচরণে বড় রকমের মিল রয়েছে। শুক্র গ্রহে বিশাল পাহাড়, সমতল ভূমি ও অনেক আগ্নেয়গিরি রয়েছে বলে বিজ্ঞানীরা জানতে পেরেছেন।

আচ্ছা, পৃথিবীর দাম কত হতে পারে? এ নিয়ে সুনির্দিষ্ট কোনো তথ্য দেননি গ্রেগ লাঘলিং। তবে ট্রিহাগার ডটকম নামে একটি ওয়েবসাইট অনুযায়ী, গোটা পৃথিবীর দাম চার লাখ ৩১ হাজার ৩১২ ট্রিলিয়ন ডলার। কী, কিনবেন নাকি স্বপ্নের পৃথিবীটাকে? সূত্র :ডেইলি মেইল।