করোনার প্রাদুর্ভাবে চিপ সংকটে বিশ্বজুড়ে ল্যাপটপ উৎপাদন হ্রাস পেয়েছে। পাশাপাশি আগের তুলনায় ল্যাপটপের দামও খানিকটা বেশি। এই সময়ের শীর্ষ ব্র্যান্ডের সাশ্রয়ী ল্যাপটপ নিয়ে লিখেছেন আসাদুজ্জামান

বহনযোগ্য ও আকারে ছোট হওয়ায় কাজ ও বিনোদনের অন্যতম অনুষঙ্গ ল্যাপটপ। আকাশছোঁয়া দামের পাশাপাশি সাধারণ কাজের জন্য সাশ্রয়ী মূল্যেও পাওয়া যায় জরুরি এ ডিভাইসটি। সাধারণের ক্রয়ক্ষমতার কথা মাথায় রেখে নির্মাতা প্রতিষ্ঠানগুলো বাজারে আনে প্রয়োজনীয় সব কনফিগারেশনের সাশ্রয়ী এমন ল্যাপটপ। অনলাইন ক্লাস ও মাধ্যমিক পর্যায় থেকে আইসিটিবিষয়ক শিক্ষা বাধ্যতামূলক হওয়ায় শিক্ষার্থীদের জন্যও ল্যাপটপ এখন অত্যাবশ্যক। ইন্টারনেটে তথ্য অনুসন্ধান, ই-মেইল বিনিময়, ছবি কিংবা ভিডিও দেখা, শিক্ষামূলক কনটেন্ট ডাউনলোড অথবা কোনো প্রজেক্ট রেডি করা ও অফিস প্রোগ্রামের জন্য প্রয়োজন নেই চড়া দামের হাই কনফিগারেশন সমৃদ্ধ ল্যাপটপ। চাইলে আপনি বেছে নিতে পারেন সাশ্রয়ী দামের একটি ল্যাপটপ। করোনার প্রভাবে বিশ্ববাজার চড়া হলেও ৪০ হাজার টাকার মধ্যে যেসব ল্যাপটপ বাজারে পাওয়া যাবে এ সম্পর্কে বিস্তারিত তুলে ধরা হলো।

ওয়ালটন:

দেশীয় ব্র্যান্ড ওয়ালটনের বাজারে রয়েছে সাশ্রয়ী মূল্যের কয়েকটি ল্যাপটপ। ২৮ হাজার টাকায় পাওয়া যাবে ওয়ালটন প্রিলুড এন৪১ মডেল। এতে থাকছে ৪ জিবি র‌্যাম, ২৫৬ জিবি রম, ১৩.৩ ইঞ্চি ডিসপ্লে। টামারিন্ড জেডএক্স৭০০ মডেলে রয়েছে কোরআই৩ প্রসেসর, ৪ জিবি র‌্যাম, ১ টেরাবাইট রম এবং ১৪ ইঞ্চি ডিসপ্লে। প্যাশন বিএক্স৩৭০০এ মডেলটি কোর আই৩ ৭ম প্রজন্মের ডিভাইস। ১৪ ইঞ্চি ডিসপ্লে ও কোর আই৩ প্রসেসর ছাড়াও এতে আছে ৪ জিবি র‌্যাম, ৫১২ জিবি রম। উভয় মডেলই কিনতে গুনতে হবে ৩৮ হাজার ৫০০ টাকা। এ ছাড়া শিক্ষার্থীদের জন্য থাকছে কিস্তি ও ছাড়ে কেনার সুবিধা।

আভিটা:

সাশ্রয়ী মূলে ল্যাপটপের সংগ্রহ রয়েছে আভিটার। ব্র্যান্ডটির এন৩৩৫০ মডেলটিতে রয়েছে ইনটেল সেলেরন প্রসেসর, ইনটেল এইচডি গ্রাফিক্স, ১২ জিবি র‌্যাম, ৬৪ জিবি ইএমএমসি রম, ১২.২ টিএফটি টাচ ডিসপ্লে। ধূসর, নীল, বেগুনি ও গোলাপি- এ চারটি রঙে ২৩ হাজার ৫০০ টাকায় পাওয়া যাবে এই মডেলটি। আভিটা অ্যাসেনশিয়াল ১৪ সেলেরন এন৪০০০ মডেলটি ২৪ হাজার ৮০০ টাকায় এবং এন৪০২০ মডেলটি ২৫ হাজার ৪৫০ টাকায় ধূসর ও কালো রঙে ১৪ ইঞ্চি ডিসপ্লের ল্যাপটপটি পাওয়া যাবে।

আসুস:

ভিভোবুক এক্স৪১৫এমএ আসুসের একটি সাশ্রয়ী মডেল। ১৪ ইঞ্চি এলইডি ব্যাকলাইট এইচডি ডিসপ্লের ল্যাপটপটিতে রয়েছে ইন্টেল সেলেরন এন৪০২০ প্রসেসর। ৪ গিগাবাইট র‌্যাম, ১ টেরাবাইট রম, ইন্টেল ইউএইচডি গ্রাফিক্স। দাম ৩৭ হাজার টাকা। প্রায় একই কনফিগারেশনের ই৪১০এমএ মডেলটিও একই দামে পাওয়া যাবে। ১৪ ইঞ্চি এলইডি ব্যাকলাইট এইচডি ডিসপ্লের ল্যাপটপটিতে রয়েছে ইন্টেল সেলেরন এন৪০২০ প্রসেসর। ৪ গিগা র‌্যাম, ৫১২ টেরাবাইট রম, ইন্টেল ইউএইচডি গ্রাফিক্স। ভিভোবুক গো ১৪ মডেলটির দাম ৩৯ হাজার ৫০০ টাকা। ইন্টেল ইউএইচডি গ্রাফিক্সের ৪ গিগাবাইট র‌্যাম, ১১.৬ ইঞ্চি টাচ ডিসপ্লের এক্সপার্টবুক বিআর১১০০এফকে মডেলের ভাঁজযোগ্য ল্যাপটপটির দাম ৪০ হাজার টাকা।

এইচপি:

একাধিক কনফিগারেশন পাওয়া যাবে এইচপি ১৫এস-ডিইউ মডেলে। ইনটেল সেলেরন প্রসেসর, ৪ জিবি ডিডিআর৪ র‌্যাম, ১ টেরাবাইট রম, ১৫.৬ ইঞ্চি ডিসপ্লের কয়েকটি মডেলের ল্যাপটপ কেনা যাবে ৩৩ হাজার থেকে ৩৭ হাজারের মধ্যে। এ ছাড়া কমদামে মিলবে এইচপির আরও কয়েকটি ল্যাপটপ।
এসার: এসারের অ্যাস্পার ৩ এ৩১৫-২৩ মডেলের ১৫.৬ এলইডি ডিসপ্লের ল্যাপটপটিতে রয়েছে ৪ গিগা র‌্যাম, ১ টেরাবাইট রম, এএমডি অ্যাথলন সিলভার ৩০৫০ইউ প্রসেসর, রেডিওন গ্রাফিক্স, দুই বছরের ওয়ারেন্টির ল্যাপটপটির দাম ৩৫ হাজার ৩০০ টাকা। প্রায় একই কনফিগারেশন ও দামে এক্সটেনসা ১৫ এক্স২১৫-২২-এ৭৮৯ মডেলের ল্যাপটপটি কেনা যাবে। এ ছাড়া অ্যাস্পার ৩ এ৩১৫-২৩ মডেলের ডিভাইসটি পাওয়া যাবে ৩৯ হাজার ৮০০ টাকায়। এএমডি রাইজন ৩ ৩২৫০ইউ প্রসেসর, ১৫.৬ ডিসপ্লে, রেডিওন গ্রাফিক্স, ৪ গিগা র‌্যাম, ১ টেরাবাইট রম। ১.৯ কেজি ওজনের ল্যাপটপটির রয়েছে দুই বছরের ওয়ারেন্টি।

ডেল:

ইন্সপায়রন ১৫-৩৫০৫ মডেলটির দাম ৪০ হাজার টাকা। ইন্টেল সেলেরন ৪২০৫ইউ প্রসেসর, ৪ গিগা র‌্যাম, ১ টেরা রম, ইন্টেল এইচডি গ্রাফিক্স ৬১০, ১৫.৬ ইঞ্চি এফএইচডি-এইচডি ডিসপ্লে। ল্যাপটপটি চারটি রঙে পাওয়া যাচ্ছে। বাজেট আরেকটু কম থাকলে ইন্সপায়রন ১৪-৩৫৭৩, ইন্সপায়রন এন৩৫৫২ সেলেরন ও ইন্সপায়রন এন৩৫৫২ পেন্টিয়াম মডেলসহ আরও কয়েকটি মডেল থেকে বেছে নিতে পারেন পছন্দের ল্যাপটপটি।

লেনোভো:

ইন্টেল সেলেরন এন ৪০২০ প্রসেসর, ৪ জিবি র‌্যাম এবং ১ টিবি হার্ডড্রাইভ, ১৫.৬ ইঞ্চি স্ট্ক্রিনের আইডিয়াপ্যাড স্লিম ৩আই মডেলটির দাম ৩৩ হাজার ৮০০ টাকা। আইডিয়াপ্যাড স্লিম ৩ আই মডেলের আরেকটি ল্যাপটপ যাতে ১৫.৬ এইচডি ডিসপ্লে, ৪ জিবি র‌্যাম এবং ১ টিবি হার্ডড্রাইভ, দাম ৩৩ হাজার টাকা। এ ছাড়া আইডিয়াপ্যাড ৩৩০ সেলেরন ডুয়াল কোর, পেন্টিয়াম কোয়াড কোর, আইপি ৩৩০ এএমডি, আইপি ৩২০ সহ কয়েকটি মডেল পাওয়া যাবে সাশ্রয়ী দামে।