বিস্ময়কর এক বিমানের নাম সোলার ইমপালস-২। এটি পুরো পৃথিবী প্রদক্ষিণ করবে জ্বালানি তেল ছাড়াই। শূন্যে স্থির হয়ে ভেসে থাকতে পারে টানা এক বছর। কর্মক্ষমতা ছাড়াও চমক আছে এর অদ্ভুত আকৃতিতে। বোয়িং-৭৪৭ উড়োজাহাজের মতো বিস্তৃত ডানা নিয়ে এটি হয়ে উঠতে পারে ভবিষ্যৎ প্রজন্মের স্বপ্নের আকাশযান। এটি কার্বন ফাইবারের তৈরি হওয়ায় ওজন অত্যন্ত কম। এই বিমানের আছে ৭২ মিটার লম্বা ডানা। এর ওপর বসানো ১৭ হাজার ২৪৮টি সোলার প্যানেল। এর সর্বোচ্চ গতি ভূপৃষ্ঠ থেকে ২৮ হাজার ফুট ওপরে ঘণ্টায় ১৪০ কিলোমিটার।

এমন কারিশমা দেখার পর ২০১৯ সালে এই সৌরবিমানের স্বত্ব কিনে নেয় যুক্তরাষ্ট্র-স্পেনের সংস্থা 'স্কাইডোয়েলার অ্যারো'। তারা এর ভেসে থাকার গুণ কাজে লাগিয়ে ভবিষ্যতে উপগ্রহ হিসেবে ব্যবহার করে নজরদারির কাজে লাগাতে চায়। ২০০৩ সালে জীবাশ্ম জ্বালানির ওপর নির্ভরতা কাটিয়ে পরিবেশবান্ধব বিমান তৈরির প্রচেষ্টা শুরু করেন সুইস প্রকৌশলী বার্ট্রান্ড পিকার্ড ও বার্ট্রান্ড বরশবার্গ। প্রায় ৯ কোটি ইউরোর বাজেটে ২০০৯ সালে প্রথম আকাশে ওড়ে সোলার ইমপালস-২। ২০১৫ সালে তারা এই উড়োজাহাজ নিয়ে বেরিয়েছিলেন বিশ্ব পরিক্রমায়। সূত্র :সিএনএন।