বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, আগামী সংসদ নির্বাচনে জনগণ নিজের ভোট নিজ হাতে দেবে, মেশিনে (ইভিএম) নয়। তিনি বলেন, তাঁদের সামনে একটি চ্যালেঞ্জ-গায়ের জোরে ক্ষমতায় থাকা আওয়ামী লীগ সরকারকে বিদায় করতে হবে। নির্বাচনকালীন নিরপেক্ষ সরকার প্রতিষ্ঠা করতে হবে। এই দায়িত্ব বিএনপিকে নিতে হবে।

শুক্রবার নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের নিচে দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া, দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ অন্য অসুস্থ নেতাদের রোগমুক্তি কামনায় আয়োজিত এক দোয়া মাহফিলে এসব কথা বলেন তিনি।
মহানগর দক্ষিণের আহ্বায়ক আবদুস সালামের সভাপতিত্বে ও সদস্য রফিকুল আলম মজনুর সঞ্চালনায় এতে বক্তব্য দেন বিএনপির আবদুস সালাম আজাদ, মীর সরফত আলী সপু, মীর নেওয়াজ আলী ও সাইফুল আলম নিরব।
খন্দকার মোশাররফ বলেন, খালেদা জিয়া এতটাই অসুস্থ যে, তাঁর চিকিৎসকরা বারবার বিদেশে চিকিৎসার জন্য নিতে বলছেন। বাংলাদেশে তাঁর চিকিৎসা নেই, তাঁকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশে পাঠানো প্রয়োজন। কিন্তু সরকার তাতে কর্ণপাত করেনি। সরকারের কাছে একটাই অস্ত্র, খালেদা জিয়াকে, ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে এবং বিএনপি পরিবারকে দাবিয়ে রেখে তারা ক্ষমতায় থাকতে চায়।
তিনি বলেন, কয়েক মাস আগে চীনে করোনা সংক্রমণ বাড়লেও সরকার গুরুত্ব দেয়নি। এখন আবার করোনা বাড়ছে। এতে আমাদের নেতারাও আক্রান্ত।
সিলেট বিভাগে আবার পানি বাড়ছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, এই পানি ওপারের দেশ (ভারত) থেকে আসছে। বর্ষাকালে ফারাক্কায় ৫৪টি বাঁধ একসঙ্গে খুলে দেয়। আর পানি বাংলাদেশে চলে আসে। অন্যদিকে বাংলাদেশে শুস্ক মৌসুমে পানি কম থাকার কারণে নদী ভরাট হয়ে যাচ্ছে।