বাংলাদেশ টেলিকমিউনিকেশন কোম্পানি লিমিটেডের (বিটিসিএল) এমডি ড. মো. রফিকুল মতিনকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। 

সোমবার দুদক উপ-পরিচালক নারগিস সুলতানা রাজধানীর সেগুনবাগিচায় কমিশনের প্রধান কার্যালয়ে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করেন।

জানা যায়, ডিজিটাল কানেক্টিভিটি শক্তিশালীকরণের লক্ষ্যে গৃহীত সুইচিং ও ট্রান্সমিশন নেটওয়ার্ক উন্নয়ন প্রকল্পে (এসটিএনপি) অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ রয়েছে তাঁর বিরুদ্ধে। জিজ্ঞাসাবাদকালে এই প্রকল্প বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে টেন্ডার প্রক্রিয়া, কেনাকাটাসহ বিভিন্ন বিষয়ে তাঁর বক্তব্য জানতে চাওয়া হয়।

বিটিসিএলের এমডি ছাড়াও উচ্চপদস্থ আরও কর্মকর্তার বিরুদ্ধে এই অভিযোগ আছে। পর্যায়ক্রমে তাদেরকেও জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডাকা হতে পারে বলে জানা গেছে।

দুদকে পেশ করা অভিযোগে বলা হয়, ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগ, টেলিযোগাযোগ অধিদপ্তর ও বিটিসিএলের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা ক্ষমতার অপব্যবহার করে এসটিএনপি প্রকল্পে অনিয়ম, দুর্নীতির মাধ্যমে কোটি কোটি টাকা আত্মসাৎ করেছেন। তাদের বিরুদ্ধে বিপুল অংকের জ্ঞাত আয় বহির্ভুত সম্পদ অর্জন ও মানিলন্ডারিংয়ের অভিযোগ রয়েছে।

এর আগে অভিযোগ সংক্রান্ত তথ্য চেয়ে অনুসন্ধান কর্মকর্তা নারগিস সুলতানা স্বাক্ষরিত চিঠি বিটিসিএল কর্তৃপক্ষকে দেওয়া হয়। ওই চিঠির পরিপ্রেক্ষিতে কোম্পানি থেকে কিছু নথিপত্র দুদককে দেওয়া হয়েছে।

গত ২০১৯ সালের ১০ ফেব্রুয়ারি একনেকে অনুমোদন দেওয়া হয় ডিজিটাল কানেক্টিভিটি শক্তিশালীকরণ সুইচিং ও ট্রান্সমিশন নেটওয়ার্ক উন্নয়ন (এসটিএন) প্রকল্প।