বৈশ্বিক অর্থনৈতিক পরিস্থিতি বিবেচনায় ২০২২-২৩ অর্থবছরে সরকারের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ কর্তৃক আয়োজিত ১৭টি অনুষ্ঠান ও ক্যাম্পেইন বাতিল করা হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার এক ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে এ ঘোষণা দেন আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। অনুষ্ঠানগুলো হলো ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড ২০২২, ডিজিটাল ডিভাইস অ্যান্ড ইনোভেশন এক্সপো, বিপিও সামিট, ব্লকচেইন অলিম্পিয়াড বাংলাদেশ, ন্যাশনাল হাই স্কুল প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতা, ১৬তম ইন্টারন্যাশনল চিলড্রেনস ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল, ওয়ার্ল্ড কংগ্রেস অন আইটি (ডব্লিউসিআইটি), বাংলাদেশ-ইন্ডিয়া স্টার্টআপ এক্সচেঞ্জ, জাপান আইটি উইক, চ্যানেল আই ডিজিটাল বাংলাদেশ মিডিয়া অ্যাওয়ার্ড, রোডশো দুবাই/লন্ডন ব্র্যান্ডিং, ইন্টারন্যাশনাল এক্সপো (জাপান, ইন্ডিয়া, ইউকে, আমেরিকা, ইউরোপ অন আইসিটি), কনফারেন্স অন ইন্টারেকশন অ্যান্ড কনফিডেন্স বিল্ডিং মেজারস ইন এশিয়া (সিআইসিএ) অন বাংলাদেশ, টেক কার্নিভাল, বিজয় দিবসের যান্ত্রিক বহরে ব্র্যান্ডিং, বুয়েট সিএসই ফেস্ট এবং আইসিটি জাম্বুরি (বাংলাদেশ স্কাউট)।

অনুষ্ঠানে পলক বলেন, ইতোমধ্যে কয়েকটি ইভেন্টের জন্য টেন্ডারিং প্রক্রিয়া শুরু করা হয়েছিল। তবে বৈশ্বিক অর্থনৈতিক পরিস্থিতির প্রেক্ষাপটে ইভেন্টসমূহ এ বছর বাতিল করা হয়েছে। তবে জাতীয় দিবস বিবেচনায় 'ডিজিটাল বাংলাদেশ দিবস' সীমিত পরিসরে আয়োজন করার পরিকল্পনা করা হয়েছে। এ সময় প্রতিমন্ত্রী বলেন, এ অনুষ্ঠানগুলো আয়োজনে মোট বাজেট ছিল ৭৫ কোটি টাকা। ১৭টি অনুষ্ঠান বাতিল করায় এর মধ্য থেকে প্রায় ৪০ কোটি টাকা ফেরত দেওয়ার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। অনুষ্ঠানে এ সময় আইসিটি বিভাগের সিনিয়র সচিব এন এম জিয়াউল আলম যুক্ত ছিলেন।