শর্ত সাপেক্ষে ৭৮ হাজার সিম বিক্রির অনুমতি পেয়েছে গ্রামীণফোন। সশস্ত্র বাহিনী, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী এবং কর্পোরেট প্রতিষ্ঠানের চাহিদার প্রেক্ষিতে এই অনুমোদন দিয়েছে টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি)। মানসম্মত সেবা দিতে পারছে না এমন অভিযোগে প্রায় ৫ মাস ধরে গ্রামীণের সিম বিক্রিতে নিষেধাজ্ঞা দিয়ে রেখেছে বিটিআরসি।

রোববার বিটিআরসির ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড অপারেশন বিভাগের এক চিঠিতে বলা হয়, সশস্ত্র বাহিনীর জন্য ৬ হাজার ৫১৯টি, অন্যান্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর জন্য ২১ হাজার ৪৮১টি, বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের (করপোরেট ব্যবহারকারী) জন্য ৩৫ হাজার, যানবাহন ট্র্যাক (ভিটিএস) করার জন্য ১০ হাজার এবং এমএনপির সেবার জন্য ৫ হাজারসহ মোট ৭৮ হাজার সিম বিক্রি করতে পারবে গ্রামীণফোন।

প্রসঙ্গত, গ্রাহকদের মানসম্মত সেবা না দেওয়ার অভিযোগে গত ২৯ জুন গ্রামীণফোনের সিম বিক্রির ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়। পরে ১৩ লাখ পুরনো সিম (রিসাইকেল সিম) বিক্রির অনুমতি পায় দেশের সবচেয়ে বড় প্রতিষ্ঠানটি। যা পরে প্রত্যাহার করে নেয় বিটিআরসি। তারপর থেকে গ্রামীণফোনের সব ধরনের সিম বিক্রি বন্ধ রয়েছে।

গ্রামীণফোনের করপোরেট অ্যাফেয়ার্স বিভাগের সিনিয়র পরিচালক হোসাইন সাদাত বলেন, হাতেগোনা কিছু করপোরেট গ্রাহকের কাছে সিম বিক্রির নির্দেশনা পেয়েছি। নেটওয়ার্ক সেবার মানোন্নয়ন করার পরও সাধারণ গ্রাহকের চাহিদাকে বিবেচনাই নেওয়া হয়নি। আমরা আবারও বলতে চাই, এই ধরনের নিষেধাজ্ঞা গ্রাহক স্বাধীনতা, ডিজিটাল বাংলাদেশের পরিপন্থী।