ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

কানেক্ট বাংলাদেশ সামিট

কানেক্ট বাংলাদেশ সামিট

.কানেক্ট বাংলাদেশ সামিটের মঞ্চে বক্তারা

 আইসিটি ডেস্ক

প্রকাশ: ১০ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ | ২৩:১৪ | আপডেট: ১১ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ | ২০:৪৭

কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার (এআই) রূপান্তরমূলক সম্ভাবনা প্রদর্শনে মাইক্রোসফট বাংলাদেশের সহযোগিতায় ‘এআই কানেক্ট বাংলাদেশ সামিট-২০২৪’ শিরোনামে সামিট অনুষ্ঠিত হয়।

এ সম্মেলন মূলত তথ্যপ্রযুক্তি প্রশিক্ষণ প্রতিষ্ঠান দীপ্তির প্রয়াস। যার লক্ষ্য কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার সর্বশেষ প্রবণতা, অগ্রগতি ও সব অ্যাপ্লিকেশন অন্বেষণে চিন্তাশীল নেতা, শিল্প বিশেষজ্ঞ, গবেষক, পেশাদার ও শিক্ষার্থীদের একত্র করা। উল্লিখিত সামিটে প্রশিক্ষণ সেশন, প্যানেল আলোচনা, কর্মশালা, নেটওয়ার্কিং ও প্রদর্শনী হয়। অংশগ্রহণকারীরা বিজনেস ট্রান্সফরমেশনে এআই মাধ্যমে কনটেন্ট ডেভেলপমেন্টের জন্য এআই, শিক্ষায় এআই, সামাজিক প্রভাবে এআই, হিউম্যান রিসোর্স ম্যানেজমেন্টে এআই, ক্যারিয়ার এনহ্যান্সমেন্টে এআই এবং আরও অনেক বিষয়ে আলোচনার সুযোগ তৈরি হয়।

মোস্তাফা জব্বার বলেন, যখন কম্পিউটার ব্যবহার শুরু করি তখন ভেবেছি, কম্পিউটারে কীভাবে বাংলা ভাষা ব্যবহার করা যায়। আজ গর্বের সঙ্গে বলতে পারি, কম্পিউটারে যে কোনো প্ল্যাটফর্ম থেকে বাংলা লেখা যায়। এআই বর্তমানে তথ্যপ্রযুক্তির সর্বশেষ অবস্থা। 

ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির উপাচার্য প্রফেসর ড. এম লুৎফর রহমান বলেন, প্রযুক্তির কারণে যত কর্মসংস্থান কমেছে, তার চেয়ে বেশি সৃষ্টি হয়েছে। প্রযুক্তি হতাশার নয়, আবার কিছুটা ভয়ের কারণ। প্রযুক্তির সঠিক ব্যবহার না হলে তা হতে পারে অভিশাপ।

রাজধানীর ধানমন্ডিতে ড্যাফোডিল প্লাজায় সামিটের উদ্বোধন করেন সাবেক মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার। সামিটে বক্তব্য দেন ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির উপাচার্য প্রফেসর ড. এম লুৎফর রহমান, মাইক্রোসফটের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ইউসুফ ফারুক, ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. সৈয়দ আকতার হোসেন, অগমেডিক্স বাংলাদেশের কান্ট্রি ডিরেক্টর রাশেদ মজিব নোমান, ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল প্রফেশনাল ট্রেনিং ইনস্টিটিউট (দীপ্তি) পরিচালন রথিন্দ্রনাথ দাশ প্রমুখ। 

আরও পড়ুন

×