ফ্রিজ কিনবেন?

প্রকাশ: ২১ অক্টোবর ২০১৯      

কামরুজ্জামান কাজল

ঘরের প্রয়োজনীয় সামগ্রীর অন্যতম ফ্রিজ। নিজ ঘরের ফ্রিজের যত্ন-আত্তির সঙ্গে যারা নতুন ফ্রিজ কিনবেন ভাবছেন, তাদের জন্য ফ্রিজ কেনার সাতসতেরো

ঘরের প্রয়োজনীয় সামগ্রী ফ্রিজ। নতুন ফ্রিজ কেনার আগে মাথায় ঘোরে নানা চিন্তা। ফ্রিজের দামটা ঠিক আছে তো? দাম এবং মানের মধ্যে কোনো তফাত থাকবে না তো? কিংবা কোন ব্র্যান্ডের ফ্রিজ ভালো। কোন সাইজটা কোন সংসারের জন্য প্রয়োজন তা নিয়ে ভাবনার শেষ নেই। ফ্রিজ কেনার আগে যেসব জিনিস মাথায় রাখতে হবে সেগুলো হলো-

উন্নতমানের কম্প্রেসার

ফ্রিজের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ অংশ কম্প্রেসার। এটি যত উন্নতমানের হবে, ততই দ্রুত ঠাণ্ডা হবে ফ্রিজ। অত্যাধুনিক ইনভার্টার কম্প্রেসার রয়েছে, এমন মডেলের ফ্রিজ কেনাই ভালো। এতে বিদ্যুৎ সাশ্রয় হয় এবং ভোল্টেজের ওঠানামাতেও ঠিকঠাক কুলিং হয়।

মডেল ও আকার

ফ্রিজ রাখার স্থান অনুযায়ী, এর আকার ও মডেল পছন্দ করা গুরুত্বপূর্ণ। একই সঙ্গে বাইরে থেকে বড় দেখা গেলেও ফ্রিজের ভেতরে কতটুকু জায়গা রয়েছে, তাও বিবেচনা করতে হবে। এ জন্য আধুনিক প্রযুক্তির নো ফ্রস্ট বা বরফ জমে না এমন রেফ্রিজারেটর কেনাই ভালো। এ ছাড়া ডাবল ডোর ফ্রিজ কিনতে পারেন। এতে স্টোরেজ স্পেস অনেকটা বেশি পাওয়া যায়। ব্যস্ত পরিবারে যেখানে সবাইকে রোজ বাইরে বের হতে হয় তাদের পক্ষে এ ধরনের ফ্রিজই ভালো, কারণ মাছ-মাংস ইত্যাদি অনেকটা একসঙ্গে স্টোর করা যায়।

হতে হবে বিদ্যুৎসাশ্রয়ী

বিদ্যুৎসাশ্রয় মানে খরচ কম। তাই যত বেশি সম্ভব জ্বালানিসাশ্রয়ী রেফ্রিজারেটর কেনা উচিত। ঘরের ফ্রিজটি জ্বালানিসাশ্রয়ী হলে প্রতি মাসে বিদ্যুৎ বিল কমে যাবে। এমনকি ফ্রিজ কেনার প্রাথমিক খরচও এই সাশ্রয়ের মাধ্যমে পাওয়া সম্ভব। কোন ফ্রিজে কতটুকু বিদ্যুৎ খরচ হয় তা অবশ্যই দেখে কিনতে হবে।

ওয়ারেন্টি

ফ্রিজ কেনার আগে অবশ্যই যতটুকু সম্ভব দীর্ঘমেয়াদের ওয়ারেন্টি নেওয়া ভালো। বাজারে বিভিন্ন ধরনের ফ্রিজের কম্প্রেসারের ওপর ৫, ৮ ও ১০ বছর মেয়াদি ওয়ারেন্টি রয়েছে।

বাজার ঘুরে দেখা গেল বিভিন্ন ব্র্যান্ডের ফ্রিজের খোঁজখবর

স্যামসাং

স্যামসাংয়ের ২০৩ লিটার ধারণক্ষমতার ফ্রিজের দাম ৩৯ হাজার ৯০০, ২৫৩ লিটার ৪২ হাজার ৯০০, ৩২১ লিটার ৫৬ হাজার ৯০০, ৩৯৪ লিটার ৭১ হাজার ৯০০, ৪৬৫ লিটার ৭৯ হাজার ৯০০, ৫৫১ লিটার ৯১ হাজার ৯০০ ও ৬২৮ লিটার

ওয়ার্লপুল

ওয়ার্লপুলের ১৮০ লিটার ফ্রিজের দাম ৩৩ হাজার, ২৪৫ লিটার ৪৭ হাজার ৫০০, ২৬৫ লিটার ৫৫ হাজার ও ৩১৫ লিটার ধারণক্ষমতার ফ্রিজের দাম ৬৬ হাজার ৫০০ টাকা। ওয়ার্লপুলের ফ্রিজ ৮ শতাংশ ছাড়ে পাওয়া যাচ্ছে।

হিটাচি

২৫৩ লিটার ফ্রিজের দাম ৫১ হাজার ৯০০ টাকা। ৪১৫ লিটারের দুটি মডেলের মধ্যে একটির দাম ৮১ হাজার ৯০০ ও অপরটি ৬৬ হাজার ৫০০ টাকা। হিটাচিতেও ২৭টি ব্যাংকে শূন্য শতাংশ ইন্টারেস্টে ১২ মাসের কিস্তিতে ফ্রিজ ক্রয় করা যাবে।

এলজি

ফ্রস্ট রেফ্রিজারেটরের দাম ২৯ হাজার ৯০০ থেকে ৪৪ হাজার ৯০০ ও নন-ফ্রস্টগুলোর দাম ৩০ হাজার থেকে আড়াই লাখ টাকা।

ওয়ালটন

ওয়ালটন ফ্রিজের দাম ১০ হাজার ৯০০ থেকে ৩৬ হাজার ৮০০ টাকা। া