পোকামাকড়ের ঘরবসতি?

প্রকাশ: ০৯ ডিসেম্বর ২০১৯      

আরিয়ান তাহমিদ

রান্নাঘরে, বসার ঘরে তেলাপোকা। পা বাড়াতেই বারান্দায় অচেনা কোনো পোকার মুখ। সেই সঙ্গে গাছ তো আছেই। বারান্দা বাগানের গাছেও থাকে নানা রকমের পোকামাকড়। পোকা দেখে ভয় পেয়ে বাড়ি মাথায় করতে না চাইলে নিজ উদ্যোগেই দমন করতে পারেন এই পোকামাকড়। বাড়িঘর পোকামুক্ত রাখতে রইল কিছু পরামর্শ।

ষ তেলাপোকা নির্বংশ

শসা কাটার সময় দু'পাশের অংশ আমরা ফেলে দিই। এগুলো না ফেলে সংরক্ষণ করুন। এগুলোকে রেখে দিন বিভিন্ন কোনায়, কাপবোর্ডের ভেতরে, আলমারির ভেতরে। এগুলোয় থাকা প্রাকৃতিক উপাদান তেলাপোকা পছন্দ করে না; ফলে এরা এসব জায়গায় আসবে না।

ষ গোলমরিচের পেস্ট

তেলাপোকা নামের যন্ত্রণাদায়ক উপদ্রবের হাত থেকে রেহাই করবে একটি পেস্ট। গোলমরিচ গুঁড়া, পেঁয়াজ, রসুন একসঙ্গে পানি দিয়ে পেস্ট তৈরি করে নিন। পেস্ট কিছুটা তরল করে তৈরি করবেন। এবার এটি স্প্রের বোতলে ভরে রাখুন। যেখানে তেলাপোকা দেখবেন সেখানে স্প্রে করুন। দেখবেন তেলাপোকা পালিয়ে গেছে। শুধু তেলাপোকা নয়, অন্যান্য পোকামাকড়ের হাত থেকে আপনার ঘরকে রক্ষা করবে।

ষ ভিনেগার

রান্নাঘরের উপাদান ভিনেগার দিয়ে দূর করতে পারেন পোকামাকড়। এক অংশ ভিনেগার এবং দুই অংশ পানি মিশিয়ে নিন। এই মিশ্রণটি ঘরের আনাচে-কানাচে ব্যবহার করুন। দেখবেন পোকার বংশ ধ্বংস হয়ে গেছে।

ষ ইঁদুর রোধ করতে ব্যবহার করুন স্টিলের স্ট্ক্রাবার

ঘরের বিভিন্ন আসবাবপত্র বা দেয়ালে ফুটো থাকলে ইঁদুর সেখানে আরও বড় গর্ত করে ফেলে এবং আসবাবপত্রের ভেতরে ঢুকে পড়ে। এই যন্ত্রণা রোধ করতে এসব ফুটো হয় মেরামত করে ফেলুন নয়তো এখানে স্টিলের স্ট্ক্রাবার গুঁজে দিন, যাতে ইঁদুর এসব জায়গা দিয়ে যাতায়াত করতে না পারে।

ষ পিপারমেন্ট অয়েল

পোকা পিপারমেন্ট অয়েলের গন্ধ সহ্য করতে পারে না। কিছু পরিমাণ পানির সঙ্গে আট ফোঁটা পিপারমেন্ট অয়েল মিশিয়ে নিন। এই মিশ্রণটি স্প্রের বোতলে ভরে রাখুন। ঘরের প্রতিটি কোনায় এটি স্প্রে করুন। ভিনেগার ও পিপারমেন্ট এসেনশিয়াল অয়েলের একসঙ্গে মিশিয়েও ব্যবহার করতে পারেন।

ষ পিঁপড়ার রাস্তায় বাধা

পিঁপড়া অনেক ছোট হওয়ার কারণে এদের থামিয়ে দেওয়াটা একটু সহজ অন্যান্য প্রাণী বা পোকার তুলনায়। গোলমরিচের গুঁড়া অথবা লবণের একটা লাইন তৈরি করুন এদের চলাচলের রাস্তার ওপর। এ ছাড়া সাধারণ চক দিয়েই দাগ টেনে দিতে পারেন এদের রাস্তার ওপর। এরা এসবের ওপর দিয়ে চলাচল করতে চাইবে না এবং অন্য পথে চলে যাবে। তা ছাড়া পুদিনা রাখতে পারেন এদের রাস্তায় অথবা যেখানে এদের উৎপাত বেশি সেখানে লবঙ্গ বা ইউক্যালিপটাসের তেল মেখে রাখতে পারেন।

ষ বেকিং সোডা

প্রাকৃতিক কিলার হিসেবে পরিচিত বেকিং সোডা। ঘরের যেসব স্থান দিয়ে পোকামাকড় প্রবেশ করতে পারে, সেসব স্থানে বেকিং সোডা ছিটিয়ে রাখুন। কিছুদিন পর ভ্যাকিউম ক্লিনার দিয়ে বেকিং সোডা পরিস্কার করে ফেলুন। তারপর আবার বেকিং সোডা ছিটিয়ে রাখুন ঘরের বিভিন্ন স্থানে। এটি ঘরের পোকামাকড় দূর করবে।

ষ পুদিনা পাতা

পোকা দূর করতে পুদিনা পাতা বেশ কার্যকর। কিছু পরিমাণ পুদিনা পাতা কুচি করে বিছানা বা ম্যাট্রেসের চারপাশে ছিটিয়ে দিন। এ ছাড়া কাপড়ের ভেতরে রাখতে পারেন পুদিনা পাতা। পোকা দূর করার পাশাপাশি কাপড়ে সুন্দর গন্ধ পাবেন।

ষ পাইপের ফুটো মেরামত

ঘরের বিভিন্ন পাইপ এবং কলে লিক বা ফুটো দেখা যেতে পারে। এগুলো দ্রুত সারিয়ে নিন। কারণ এই পানি চুইয়ে যে স্যাঁতসেঁতে অবস্থা তৈরি করে তা তেলাপোকা এবং অন্যান্য পোকার খুব প্রিয় জায়গা। মেরামত না করলে এখানেই এরা বংশ বৃদ্ধি শুরু করবে।

ষ কিচেন রাখুন পরিস্কার ও গোছানো

একটা দিন কিচেন পরিস্কার না করলেই দেখবেন কী পরিমাণে পোকা এসে উপস্থিত হয়েছে। যে কোনো ময়লা পড়লে সেটা উঠিয়ে ফেলুন। উচ্ছিষ্ট খাবার ফ্রিজে অথবা মিটসেফে তুলে রাখুন। ওভেন ও ফ্রিজ পরিস্কার করুন নিয়মিত। এতে সারা বছর কিচেন থাকবে পোকামুক্ত। া