মৌসুমী হামিদ। মডেল ও অভিনেত্রী। এনটিভিতে আজ রাতে প্রচার হবে তার অভিনীত একক নাটক 'রূপালী ময়ূর'। শুভাশীষ সিনহার রচনা ও হাসান রেজাউলের পরিচালনায় এতে তিনি অভিনয় করেছেন অনন্যা চৌধুরীর ভূমিকায়। কথা হলো তার সঙ্গে-

চারদিকে এত আওয়াজ। শুটিংয়ে আপনি?

হ্যাঁ। মানিকগঞ্জে এসেছি 'পুরান প্রেমের গল্প' নামে একটি এক ঘণ্টার নাটকের কাজে। এটি রোজার ঈদের জন্য নির্মাণ করছেন গোলাম সোহরাব দোদুল। রোমান্টিক কমেডি গল্প নিয়ে নির্মিত এই নাটকে আমার সহশিল্পী আজাদ আবুল কালাম।

এখনই শুরু করেছেন ঈদের কাজ?

সত্যি বলতে কি আরও বেশ কয়েক মাস আগে থেকেই ঈদের নাটকের কাজ শুরু করেছি। আসলে আগে থেকে কাজ না করলে শেষ দিকে অনেক ঝামেলা করে কাজ করতে হয়। এই এখন যেমন ধারাবাহিক নাটকগুলোর কাজ আপাতত বন্ধ রেখেছি।

আজ তো এনটিভিতে আপনার অভিনীত 'রূপালী ময়ূর' নাটকটি প্রচার হবে। নাটকটির গল্প কী নিয়ে?

'রূপালী ময়ূর' নাটকে আমি অভিনয় করেছি একজন অভিনেত্রীর ভূমিকায়, যার নাম অনন্যা চৌধুরী। মিডিয়ায় তার অনেক নামডাক হলেও মেয়েটি লোকচক্ষুর অন্তরালে থাকতেই ভালোবাসে। যখন তার জনপ্রিয়তা তুঙ্গে ছিল, তখন তিনি স্বামীর সঙ্গে বিদেশ চলে যান। এরপর দেশে ফিরে আসেন অনেক বছর পর। দেশে ফিরে কারও সঙ্গে দেখা-সাক্ষাৎ করেন না। একদিন এক সাংবাদিক তার একটা এক্সক্লুসিভ ইন্টারভিউ নিতে আসেন। ইন্টারভিউর মাধ্যমে জানা যায়, অনন্যা চৌধুরীর রহস্যময় জীবনগাথা।

আপনার অভিনীত ধারাবাহিক নাটক 'যখনো কখনো' নাটকের দর্শক প্রতিক্রিয়া কেমন?

পারিবারিক গল্পের নাটকটিতে অভিনয় করে বেশ প্রশংসা পাচ্ছি। আর পারিবারিক গল্প নিয়ে নির্মিত নাটকের দর্শক বেশি। 'যখনো কখনো' নাটকে দুটি পরিবারের গল্প দেখানো হয়েছে। নাটকে আমার চরিত্রটি মজার। একেবারে পাশের বাড়ির সহজ-সরল মেয়ের চরিত্র। ছোটবেলা থেকেই আমরা একসঙ্গে খেলাধুলা করে বড় হয়েছি। অনেকের ধারণা, কারও একজনের সঙ্গে আমার প্রেমের সম্পর্ক রয়েছে।

অন্য ধারাবাহিকের কী খবর?

সুমন আনোয়ারের 'ইডিয়ট', এসএ হক অলিকের 'সংসারের গল্প', ইমারাউল রাফাতের 'গল্পগুলো আমাদের', নজরুল ইসলাম রাজুর 'ঘরে বাইরে'সহ কয়েকটি ধারাবাহিকে কাজ করছি।

চলচ্চিত্রের কী খবর?

সুমন আনোয়ারের 'কয়লা' ছবিতে চুক্তিবদ্ধ হয়েছিলাম। এর কাজ এখনও শুরু হয়নি। পরিচালক বলেছেন শিগগিরই এর কাজ শুরু হবে। অনেক ছবিতে অভিনয়ের প্রস্তাব পাচ্ছি। কিন্তু গল্প ও চরিত্র পছন্দ না হওয়ায় সেগুলোতে কাজ করিনি।

মন্তব্য করুন