পুরস্কৃতদের অনুভূতি

প্রকাশ: ০৯ ডিসেম্বর ২০১৯     আপডেট: ০৯ ডিসেম্বর ২০১৯      

 আজীবন সম্মাননা
এটিএম শামসুজ্জামান

দীর্ঘ অভিনয় ক্যারিয়ারে অনেক প্রতিষ্ঠান থেকে অসংখ্য সম্মাননা পেয়েছি। তবে রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতি সবসময়ই আমার কাছে বিশেষ এক সম্মানের। এ প্রাপ্তির অনুভূতি অসাধারণ। মানুষের ভালোবাসার মধ্যেই আমি বেঁচে থাকতে চাই। প্রধানমন্ত্রীর হাত থেকে পুরস্কার নিতে পেরে ভালো লেগেছে।

 
আজীবন সম্মাননা
আলমগীর

নিরলস অভিনয় করে যাচ্ছি। তার বিনিময়ে কী পাব, তার হিসাব-নিকাশ করি না। তার পরও অভিনয় জীবন সার্থক মনে হয় স্বীকৃতি পেলে। দীর্ঘ অভিনয় জীবনে এবার আজীবন সম্মাননা হিসেবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেলাম। এই অনুভূতি বলে বোঝানো কঠিন।


আজীবন সম্মাননা
সুজাতা

যে কাজের প্রতি ভালোবাসা, তার জন্য স্বীকৃতি পাওয়া কত আনন্দের তা বলে বোঝানো যাবে না। আজীবন সম্মাননা হিসেবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পাওয়ার অনুভূতিও বোঝাতে পারব না। যারা আমাকে সম্মাননা দিচ্ছেন, তাদের সবার কাছে আমি কৃতজ্ঞ।

আজীবন সম্মাননা
প্রবীর মিত্র

কাজের স্বীকৃতি চায় প্রতিটি মানুষ। সেটি পেলে মন আনন্দে ভরে ওঠে। জাতীয় পর্যায়ের এই অর্জনের আনন্দ ভাষায় প্রকাশ করতে পারব না। আজীবন সম্মাননা পেয়ে বেশ গৌরববোধ করছি। অনেক চড়াই-উতরাই পেরিয়ে এ অবস্থানে পৌঁছেছি। যে চলচ্চিত্র আমাকে এমন সম্মাননা এনে দিয়েছে, সেখানে আমৃত্যু কাজ করে যেতে চাই। সবশেষে সবার কাছে দোয়া চাইছি।
 
সেরা গায়ক
জেমস

পুরস্কার পেলে সবারই ভালো লাগে। আমারও ভালো লাগছে আরও একবার রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতি পাওয়ায়। এই স্বীকৃতির জন্য 'তোর কারণে অন্ধ হলাম' গানের সুরকার বাপ্পা মজমুদার, গীতিকার সেজুল হোসেন, ছবির নির্মাতা হাসিবুর রেজা কল্লোল এবং চলচ্চিত্র জুরি বোর্ডের সবাইকে ধন্যবাদ জানাই।
 
সেরা গায়িকা
মমতাজ

শিল্পী জীবনে অনেক পুরস্কার পেয়েছি। তার পরও রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতি আমার কাছে বিশেষ এক সম্মাননা বলে মনে হয়। জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার আমার কাজের অনুপ্রেরণা আরও বাড়িয়ে দিয়েছে। 'না জানি কোন অপরাধে' গানের জন্য সুরকার বাপ্পা মজুমদার, গীতিকার সেজুল হোসেনসহ 'সত্তা' ছবির সবার প্রতি আমি কৃতজ্ঞ।

সেরা অভিনেতা
সাইমন সাদিক

পুরস্কার প্রাপ্তি যে কোনো অভিনেতার জন্য আনন্দের। আমার জন্য এটি আরও বেশি আনন্দের। কারণ, প্রথমবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেলাম। আমি মনে করি এর অংশীদার দর্শকও। তারা কষ্ট করে হলে এসে সিনেমা দেখেছেন। সিনেমাকে বাঁচিয়ে রেখেছেন। মন্দার বাজারে তারা আমার ছবিটিকে বেছে নিয়েছেন ভালো লাগার ছবি হিসেবে। এটাই আমার কাছে সবচেয়ে বড় প্রাপ্তি।
 
সেরা গায়িকা
আঁখি আলমগীর

যে কোনো পুরস্কারই কাজকে অনুপ্রাণিত করে। সেভাবেই জাতীয় পুরস্কার আমাকে অনুপ্রেরণা দিয়েছে। জুরি বোর্ড একটি সিনেমার গল্প ছবিটির 'গল্প কথার ঐ'... গানটির জন্য এ পুরস্কার দিয়েছে। গানটির সুর করেছেন বরেণ্য কণ্ঠশিল্পী রুনা লায়লা। এ গানের মাধ্যমেই সুরকার হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেছেন তিনি। তার সুরের গান গেয়ে পুরস্কার পাওয়া আমার জন্য পরম আনন্দের।