হাবিব ওয়াহিদ। তারকা কণ্ঠশিল্পী ও সংগীত পরিচালক। সম্প্রতি নিজস্ব ইউটিউব চ্যানেলে প্রকাশ করেছেন তার নতুন গান 'নূরের আলো'। এই গান ও অন্যান্য প্রসঙ্গ নিয়ে কথা হয় তার সঙ্গে-\হ\হএক মাসের ব্যবধানে নতুন গান 'নূরের আলো' প্রকাশ করলেন। শ্রোতার প্রত্যাশার কথা মাথায় রেখেই কি প্রতি মাসে গান প্রকাশের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন?

ক'দিন পর নতুন গান প্রকাশ করব, তা নিয়ে আলাদা করে কিছু ভাবি না। এটা ঠিক, শ্রোতা তো সবসময় নতুন কিছু চায়। তারপরও কোনো কাজ পরিকল্পনামাফিক না হওয়া পর্যন্ত তা প্রকাশ করতে চাই না। সব কাজেই অনেক সময় লাগবে- এটা ভাবাও ভুল। সৃষ্টির নেশায় যখন ডুবে থাকি, তখন কীভাবে একটি কাজের শুরু ও শেষ হয়, তার হিসাব রাখাও কঠিন। দিনরাত কাজ করে যাচ্ছি, যখন সেটা শেষ হচ্ছে, সেটা শ্রোতার কাছে তুলে ধরছি। এভাবেই 'নূরের আলো' গানটি তৈরি হওয়ার পরপরই তা শ্রোতার জন্য ইউটিউব চ্যানেলে উন্মুক্ত করে দিয়েছি।\হনতুন এই গান নিয়ে কেমন সাড়া পাচ্ছেন?\হগত ছয় দিনে গান শুনে অনেকে তাদের ভালো লাগার কথা জানিয়েছেন। তাদের ভালো লাগাই আমার সৃষ্টির প্রেরণা। এর বেশি কিছু চাওয়ারও নেই।\হএখন কি নিরীক্ষাধর্মী কাজ বেশি করছেন?

সংগীতায়োজন নিয়ে এক্সপেরিমেন্ট কোনো সময়ই থেমে ছিল না। যত কিছুই করুন না কেন, কাজে নিজস্ব একটা ছাপ থেকেই যায়। আবার সেটা ধরে রেখে নিজেকে ভেঙে নতুনভাবে উপস্থাপন করারও সহজ নয়। নিরলস চেষ্টা থেকেই নতুন কিছু সম্ভব। আমি সেটাই করার চেষ্টা করি। তাই বলে শ্রোতার ভালো নিয়ে ভাবি না, তা নয়। সবকিছুর আগে পরে শ্রোতার কথাই ভাবতে হয়।\হএকক গানের পাশাপাশি দ্বৈত গানও ধারাবাহিকভাবে প্রকাশ করতে দেখা যাচ্ছে...

হ্যাঁ, একক গানের পাশাপাশি দ্বৈত গানও ধারাবাহিকভাবে প্রকাশ করে যাচ্ছি। আয়োজনে ভিন্নতা ধরে রাখার জন্যই এটা করছি।\হদ্বৈত গান এবং সংগীত পরিচালনার বিষয়ে নতুনদের এত গুরুত্ব দিচ্ছেন কেন?

সময়ের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে তরুণরা জায়গা করে নেবে- এটা অস্বাভাবিক কোনো ঘটনা নয়। তবে তরুণদের জন্য কিছু একটা করার আমাদের দায়িত্ব বলেই মনে করি। কারণ আমিও একসময় তরুণ শিল্পী ছিলাম, নতুন কিছু করে দেখানোর বাসনা ছিল। সেই বাসনা এখনকার অনেক শিল্পীর মধ্যে আছে। যারা ভালো একটি প্ল্যাটফর্ম খুঁজে যাচ্ছেন। তেমনই কিছু মেধাবী তরুণকে নিয়ে নানা আয়োজন করছি। এরই মধ্যে আমার সুর-সংগীতে টিকে তারেক, মারুশা, সৌরিনের মতো বেশ কয়েকজন তরুণ শিল্পী গান করেছেন। তাদের গায়কি অনেকের মনোযোগ কেড়েছে; যা দেখে মিউজিশিয়ান হিসেবে আমিও এক ধরনের আত্মতৃপ্তি পেয়েছি।\হতরুণদের পাশাপাশি জনপ্রিয় শিল্পীদের নিয়ে কাজের বিষয়ে কিছু ভাবছেন?

পরিচিত বা জনপ্রিয় যাই বলুন, যে কোনো ভালো শিল্পীর সঙ্গে কাজ করতে চাই। সেই ভাবনা থেকে সালমা, লিজা, পড়শী, সিঁথি সাহার মতো শিল্পীদের সঙ্গে কাজ করা।\হবেশ কিছুদিন ধরে মিউজিক ভিডিওর পরিবর্তে অডিও গান প্রাধান্য দিতে দেখা যাচ্ছে, এর কারণ কী?

আমি মনে করি, গান শোন এবং অনুভবের বিষয়। তার জন্য আলাদা করে ভিডিও নির্মাণ করতে হবে- এমন কোনো কথা নেই। সময়ের চাহিদা পূরণ করতে গিয়ে বেশ কিছু মিউজিক ভিডিও নির্মাণ করেছি। কিন্তু একপর্যায়ে এটাই স্পষ্ট হয়েছে যে, গান ভালো হলে তার ভিডিও জরুরি কিছু নয়।

এখন কী নিয়ে ব্যস্ত?

স্টেজ শো থেমে আছে, তাই স্টুডিওতে বসে গান তৈরির মধ্য দিয়ে দিন কাটছে।

মন্তব্য করুন