সালাহউদ্দিন লাভলু। নন্দিত নির্মাতা ও অভিনেতা। চ্যানেল আইয়ে প্রচার হচ্ছে তার অভিনীত ও পরিচালিত নাটক 'দ্য ডিরেক্টর'। এই নাটক ও অন্যান্য প্রসঙ্গ নিয়ে কথা হয় তার সঙ্গে-\হ\হআপনার অন্যান্য নাটকের মতো 'দ্য ডিরেক্টর'-এর গল্পেও কোনো সামাজিক বার্তা আছে কি?

বার্তা এটাই যে, জনপ্রিয়তা চিরস্থায়ী নয়; তাই ভালো কাজের মধ্য দিয়েই মানুষের হৃদয়ে জায়গা করে নিতে হয়। 'অহঙ্কার পতনের মূল'- চিরায়ত এই সত্য আমরা অনেকে জানি। কিন্তু কাজের সময় এলেই কি আমরা অহমকে দমিয়ে রাখতে পারি? এই প্রশ্নই 'দ্য ডিরেক্টর' নাটকের প্রধান বিষয় হয়ে উঠেছে। যেখানে আমরা দেখছি শিল্পীসত্তাকে খুশি করার জন্য নয়, অনেকে তারকা খ্যাতির মোহে কাজ করছেন। পরিচালকের ভাবনা, নির্মাণ পরিকল্পনা তাদের কাছে মুখ্য বিষয় নয়। এই যে গল্প, এর সঙ্গে সমকালীন বাস্তবতার ছায়াও খুঁজে পাবেন দর্শক।\হআপনার কথা থেকে কি এটা ধরে নেওয়া যায় যে, নাটকের গল্পের মতো বাস্তবেও শিল্পীরা কাজের চেয়ে তারকা খ্যাতিকে বড় করে দেখছেন?

অনেকের ক্ষেত্রেই এটা সত্যি। যে কারণে পরিচালকরা নতুন শিল্পী তৈরি করে নিজেদের মতো কাজ করে যাচ্ছেন। একজন প্রকৃত শিল্পী কখনোই তার কাজকে যে কোনোভাবে শেষ করার পক্ষপাতী নন। অভিনয় যাদের রক্তে মিশে গেছে, তারা সবসময় নিজের সেরা অভিনয় তুলে ধরতে চান। তারকা খ্যাতির মোহ তাদের কখনও পেয়ে বসে না।\হপরিচালনার অভিজ্ঞতা তুলে ধরতেই কি 'দ্য ডিরেক্টর' নাটকে নিজেই অভিনয় করেছেন?\হআমি আসলে এই নাটকে অভিনয় করতে চাইনি। কাজ শুরুর আগে আমার অভিনীত চরিত্রের জন্য কয়েকজন শিল্পীর সঙ্গে কথা বলেছিলাম। কিন্তু তাদের কেউ টানা ২৮ দিন সিডিউল দিতে পারবেন না বলে প্রস্তাব ফিরিয়ে দিয়েছেন। শেষমেশ বাধ্য হয়ে নিজে অভিনয় করেছি।\হএকই সঙ্গে পরিচালনা ও অভিনয় করা কি চ্যালেঞ্জিং মনে হয়নি?\হএটা সবসময় চ্যালেঞ্জিং। বিষয়টা দুই মেরুতে দাঁড়িয়ে একই কাজ করে যাওয়ার মতো। পরিচালনা ঠিকভাবে করে গেলেও দেখা যায়, অভিনয়ের কিছু দুর্বলতা ধরা পড়ে যাচ্ছে। দুটি কাজেই শতভাগ উজাড় করে দেওয়া সম্ভবও হয় না। হয়তো এ কারণেই নিজের নাটক হলেও এখনও ক্যামেরার সামনে দাঁড়ালে নার্ভাস লাগে। অনেকেই হয়তো এ কথা বিশ্বাস করতে চাইবেন না, তারপরও এটাই সত্যি। কয়েক দশক ধরে অভিনয় করছি। কিন্তু এখনও ক্যামেরার সামনে দাঁড়ানোর ভয় কাটেনি। তবে অন্যান্য পরিচালকের নির্দেশ মেনে অভিনয় করতে কখনও খুব একটা সমস্যা হয়নি।

'মায়া' নামের নতুন একটি ধারাবাহিক নাটক নির্মাণের কথা বলেছিলেন, কাজ কতটুকু এগোল?

মাত্র তিন-চারটি কাজ করেছি। এরপর লকডাউনের জন্য কাজ থেমে গেছে। কোরবানি ঈদের পর 'মায়া' নাটকের কাজ পুরোদমে শুরু করার ইচ্ছা আছে।\হসিনেমা নির্মাণ নিয়ে কিছু ভাবছেন?\হসিনেমা বানানোর ইচ্ছা আগের মতোই আছে। কিন্তু এখন যেভাবে একের পর এক সিনেমা হল বন্ধ হয়ে যাচ্ছে, তা দেখে অনেক প্রযোজক বড় বাজেটে কাজ করার সাহস পাচ্ছেন না। অনলাইন প্ল্যাটফর্মে এখন অনেক কাজ হচ্ছে। দেখা যাক, সামনের দিনগুলোয় বড় পর্দার জন্য কিছু করা যায় কিনা।\হএর মধ্যে কোনো সিনেমায় অভিনয় করেছেন?

'পাতাল ঘর' নামের একটি ছবিতে সর্বশেষ অভিনয় করেছি। এরপর আর কোনো ছবিতে কাজ করা হয়নি। আপাতত নাটকের কাজ নিয়েই ব্যস্ত আছি।

বিষয় : AvR‡Ki wkíx

মন্তব্য করুন