দিলারা জামান। বরেণ্য অভিনেত্রী। সম্প্রতি তার অভিনীত নাটক 'মায়ের ডাক' দর্শকের মাঝে দারুণ সাড়া ফেলেছে। এ নাটকে অভিনয়, বর্তমান ব্যস্ততা ও অন্যান্য প্রসঙ্গে কথা হলো তার সঙ্গে-

অসংখ্য নাটক ও টেলিছবিতে মায়ের চরিত্রে অভিনয় করছেন। সেদিক থেকে 'মায়ের ডাক' নাটকের চরিত্র আলাদা বলে মনে হয়েছে কি?

গল্পের কারণেই 'মায়ের ডাক' নাটকের চরিত্রটি গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছে। এর আগে অসংখ্য নাটক, টেলিছবিতে মায়ের চরিত্রে অভিনয় করেছি। কিন্তু কেন যেন বেশিরভাগ চরিত্রই ছিল একই রকম। মায়ের আবেগ, অনুভূতি, একাকিত্ব গল্পে সেভাবে স্থান পায়নি। এখন তো পারিবারিক গল্পের নাটকই কমে গেছে। অনেক দিন পর এই ঈদে পারিবারিক গল্পের একটি নাটক করেছি, যেখানে বাঙালি মধ্যবিত্ত পরিবারের সমস্যাগুলো তুলে ধরা হয়েছে। তাই 'মায়ের ডাক' নাটকটিকে আমার এ সময়ের সেরা কাজ বলা যায়।

কাজ একই ধরনের হলে কি আনন্দ খুঁজে পাওয়া যায়?

একই রকম গল্প ও চরিত্রে কাজ করতে কারই-বা ভালো লাগে। আমারও ভালো লাগে না। কিন্তু বেশিরভাগ সময় একই ধরনের চরিত্রে কাজের প্রস্তাব পাই। অনেকে আবার স্ট্ক্রিপ্টও ছাড়াই অভিনয়ের কথা বলে। আমি তাদের বলি, 'আগে স্ট্ক্রিপ্ট তো পাঠাও, পড়ে দেখি। চরিত্রের সঙ্গে নিজেকে মানিয়ে নেওয়ার জন্যও গল্পটা পড়া দারকার।' এরপর স্ট্ক্রিপ্ট হাতে পেলে পড়ে বুঝে নেওয়ার চেষ্টা করি, চরিত্রে কিছুটা ভিন্নতা আনা যায় কিনা।

অভিনয়ের প্রতি ভালো লাগার কারণেই কি ঘরবন্দি সময়েও কাজ করছেন?

নিজের ভালো লাগা আর নির্মাতারা চেয়েছিল বলেই সাহস করে ঈদের কিছু নাটকে অভিনয় করেছি। অবশ্য কাজের শুরুতে সবাইকে বলেছি, দেখ বাবা, আমার বয়স ৭৯ বছর, এই সময় কি ঘর থেকে বেরোনো ঠিক হবে? এই প্রশ্নের উত্তরে সবাই আশ্বাস দিয়েছে, স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চিত করেই তারা কাজ শুরু করবে। নির্মাতারা আশ্বস্ত করেছে বলেই কাজ নিয়ে খুব একটা দুশ্চিন্তা করতে হয়নি।

রাজধানী শহরে একা থাকেন, কাজ না থাকলে কীভাবে সময় কাটে?

একাকিত্বের সময় যে কীভাবে কাটে, কী কষ্ট মনে ভর করে তা বলে বোঝানো যাবে না। কাজ থাকলে সময়টা ভালোই যায়, কিন্তু যখন কাজ থাকে না, তখন আপনজনের জন্য মন কাঁদে। প্রবাসী দুই মেয়ের কথা বারবার মনে পড়ে। তবু দেশ ছেড়ে যেতে ইচ্ছা করে না। রিকশাওয়ালার গায়ের ঘাম, কাদামাটির পথ- এসবই এত আকর্ষণ করে যে, এড়াতে পারি না। মুক্তিযুদ্ধের রক্তক্ষয়ের মধ্য দিয়ে যে দেশ পেয়েছি, তাকে ছেড়ে থাকা আমার পক্ষে অসম্ভব।

এর মধ্যে নতুন কোনো কাজ শুরু করেছেন?

নতুন কোনো কাজ শুরু করিনি। এর মধ্যে বিটিভির জন্য শিশুদের একটি অনুষ্ঠান আর গিয়াস উদ্দিন সেলিমের ছবিতে অভিনয়ের কথা ছিল। কিন্তু করোনার জন্য সেগুলোর কাজ স্থগিত হয়ে গেছে।

মন্তব্য করুন