মাদককাণ্ডে আরিয়ান খান গ্রেপ্তার হওয়ায় অনন্যা যে বিপাকে পড়বেন, তা কারও ভাবনায় ছিল না। কিন্তু এখন আরিয়ানের কারণেই জীবন দুর্বিষহ হয়ে উঠেছে এই বলিউড অভিনেত্রীর। যে কারণে নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরো [এনসিবি] যখন অনন্যাকে তলব করে, তখন অনেকেই অবাক হয়েছিলেন। বৃহস্পতিবার এনসিবি টানা দু'ঘণ্টা জেরা করে অনন্যা পাণ্ডেকে। এদিন এনসিবি অফিসে তার সঙ্গে গিয়েছিলেন বাবা অভিনেতা চাঙ্কি পাণ্ডে। ড্রাগ-অন-ক্রুজ মামলার তদন্তে গোয়েন্দারা তার মুম্বাইয়ের বাড়িতে তল্লাশি চালিয়েছিল। অনন্যার ল্যাপটপ এবং মোবাইল ফোন বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। এর পর ২৪ ঘণ্টা না পেরোতেই আবার অনন্যাকে তলব করেছে এনসিবি।

শুক্রবার দ্বিতীয় দফা জিজ্ঞাসাবাদে এনসিবি পেয়েছে নতুন কিছু তথ্য। যদিও অনন্যা নিষিদ্ধ মাদক সরবরাহ করার কথা অস্ব্বীকার করেছেন, তার পরও জেরা চালিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্তে অটল এনসিবি। কারণ এ অভিনেত্রীর বয়ানে এ কথা উঠে এসেছে- গাঁজা যে মাদকের পর্যায়ে পড়ে, তা তিনি জানতেন না। আবার তিনি দাবি করেছেন, ঠাট্টার ছলে আরিয়ানকে গাঁজা সরবরাহ করার আশ্বাস দিয়েছিলেন। তার এ কথায় সন্তুষ্ট হননি এনসিবির কর্মকর্তারা। যে জন্য বারবার তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। আগামীকাল আরও একবার তাকে জেরা করা হবে বলে জানিয়েছেন গোয়েন্দারা। বারবার জেরার মুখে অনন্যার কাছ থেকে কী তথ্য বেরিয়ে আসে, এখন সেটাই দেখার অপেক্ষায় আছেন বলিউড দুনিয়ার বাসিন্দারা।

মন্তব্য করুন