মহানায়িকা সুচিত্রা সেনের অষ্টম প্রয়াণ দিবস আজ। এ উপলক্ষে পাবনা শহরের গোপালপুর মহল্লার হেমসাগর লেনের স্মৃতিবিজড়িত সুচিত্রার নিজ বাড়িতে এক স্মরণসভার আয়োজন করেছে সুচিত্রা সেন স্মৃতি সংরক্ষণ পরিষদ। এর ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ডা. রামদুলাল ভৌমিক সমকালকে বলেন, করোনার কারণে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সুচিত্রা সেনের বাড়িতে এক স্মরণসভার আয়োজন করা হয়েছে। তাকে নিয়ে আমাদের আবেগের কমতি নেই। সবার সহযোগিতায় আমরা তার বাড়ি উদ্ধার করতে পেরেছি। সংস্কৃতি মন্ত্রণালয় শিল্পকলা একাডেমির সহায়তায় তার স্মৃতি ধরে রাখতে প্রায় ২০ কোটি টাকা ব্যয়ে বিশাল প্রকল্প হাতে নেওয়া হয়েছে। এই প্রকল্প বাস্তবায়ন হলে পাবনার মেয়ে সুচিত্রা সেন আজীবন নতুন প্রজন্ম এবং বিশ্ববাসীর মনের মণিকোঠায় বেঁচে থাকবেন।

১৯৩১ সালের ৬ এপ্রিল পাবনা জেলায় জন্ম নেন এই দীপ্তিময় প্রতিভা। পাবনার একতলা পাকা পৈতৃক বাড়িতে সুচিত্রা সেনের শিশুকাল, শৈশব ও কৈশোর কেটেছে। তার বাবা করুণাময় দাশগুপ্ত পাবনা মিউনিসিপ্যালিটির স্যানিটারি ইন্সপেক্টর পদে চাকরি করতেন। মা ইন্দিরা দাশগুপ্ত ছিলেন গৃহিণী। দুই বোনের মধ্যে সুচিত্রা সেন ছিলেন বড়।

মন্তব্য করুন