বরিশাল-৫ উপনির্বাচন

জেবুন্নেসা আফরোজ বিজয়ী

প্রকাশ: ১৬ জুন ২০১৪      

বরিশাল ব্যুরো

বরিশাল-৫ (সদর) উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী জেবুন্নেসা আফরোজকে বেসরকারিভাবে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়েছে।
জেবুন্নেসা আফরোজ (নৌকা) পেয়েছেন ১ লাখ ৮৩ হাজার ৬২৯ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনএফের সাইফুল ইসলাম লিটন (টেলিভিশন) পেয়েছেন ৬ হাজার ১৩৬ ভোট। গতকাল রোববার রাত সোয়া ৮টায় রিটার্নিং অফিসার ও জেলা প্রশাসক মো. শহীদুল আলম ১৫৯ কেন্দ্রের সব ফল পেয়ে জেবুন্নেসা আফরোজকে বিজয়ী ঘোষণা করেন। এর আগে সকাল থেকে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। ভোট চলাকালে কোথাও অপ্রীতিকর ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি। শান্তিপূর্ণভাবে ভোট হলেও ব্যাপক হারে জালভোট দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, আওয়ামী লীগ কর্মীরা নিজেদের প্রার্থীর পাশাপাশি বিএনএফ প্রার্থীর প্রতীকেও সিল মেরেছে। কেন্দ্রে ভোটার না থাকলেও সকাল ১১টার মধ্যে ভরে যায় ব্যালট বাক্সগুলো।
জাল ভোটের উৎসব
কেন্দ্র দখল কিংবা ব্যালট বই ছিনিয়ে নিয়ে সিল মারার মতো কোনো ঘটনা ঘটেনি কোথাও। ভোটাররাও কেন্দ্রে গিয়ে ভোট দিয়েছেন থেমে থেমে। কোনো কেন্দ্রেই অবশ্য ৫-৬ জনের বেশি ভোটার চোখে পড়েনি। প্রতিটি কেন্দ্রেই নৌকার সমর্থকদের পালাক্রমে অবাধে বুথে ঢুকে জালভোট দিতে দেখা গেছে। প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনএফ প্রার্থীর (টেলিভিশন) কর্মী, সমর্থক কিংবা পোলিং এজেন্ট ছিল না কোনো কেন্দ্রে। গতকাল রোববার 'জাল ভোটের উৎসব' হয়েছে বরিশাল-৫ (সদর) আসনের উপনির্বাচনে।
সাবেক এমপি শওকত হোসেন হিরন ৯ এপ্রিল মৃত্যুবরণ করায় গতকাল এ আসনে উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী ছিলেন আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রয়াত সংসদ সদস্য হিরনের স্ত্রী জেবুন্নেসা আফরোজ (নৌকা) এবং বাংলাদেশ ন্যাশনালিস্ট ফ্রন্ট (বিএনএফ) মনোনীত সাইফুল ইসলাম লিটন (টেলিভিশন)। ২২ এপ্রিল প্রতীক বরাদ্দের পর জেবুন্নেসা আফরোজের পক্ষে ওই দিনই প্রচারাভিযান শুরু হয়। সাইফুল ইসলাম লিটন প্রতীক পেয়েও নির্বাচনী মাঠে ছিলেন না। আওয়ামী লীগ প্রার্থীর বিরুদ্ধে কর্মীশূন্য ও প্রচারবিহীন বিএনএফ প্রার্থীর এ অসম প্রতিদ্বন্দ্বিতার ফলে বরিশাল-৫ আসনের উপনির্বাচন শুরু থেকেই ছিল নিষ্প্রাণ। সিটি কলেজ কেন্দ্রে কথা হয় আওয়ামী লীগ প্রার্থী জেবুন্নেসা আফরোজের সঙ্গে। তিনি সমকালকে বলেন, প্রায় সব কেন্দ্রেই ভোটার উপস্থিতি ছিল সন্তোষজনক। কোথাও কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটায় তিনি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেছেন ভোট-সংশ্লিষ্ট সবার কাছে।
গতকাল সকাল সোয়া ৯টায় নগরীর ২৯ নম্বর ওয়ার্ডের ইছাকাঠি রেজিস্টার্ড প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে গিয়ে দেখা গেছে ৪-৫ ভোটার ভোট দেওয়ার জন্য অপেক্ষা করছেন। অন্যদিকে, নৌকার সমর্থকরা একসঙ্গে ৮-১০টি ভোট দিয়ে বের হচ্ছেন। সোয়া ঘণ্টায় ওই কেন্দ্রে ভোট পড়ে শতাধিক। দিনের প্রথম ভাগে এমনই চিত্র দেখা গেছে নগরীর সরকারি বরিশাল কলেজ, পলিটেকনিক কলেজ, চৈতন্য স্কুল, রূপাতলী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও রূপাতলী জাগুয়া কলেজ কেন্দ্রে। এসব কেন্দ্রে দেখা গেছে দু-একজন ভোটার এসে ভোট দিয়ে কেন্দ্র ত্যাগ করেছেন। কিন্তু নৌকার সমর্থকরা পালাক্রমে দিচ্ছেন জাল ভোট। রূপাতলী জাগুয়া কলেজ কেন্দ্রে দেখা গেছে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষায় দায়িত্বরত পুলিশ ও আনসাররা কেউ ঘুমাচ্ছেন, আবার কেউবা গল্প-গুজব করে সময় পার করছেন। ওই কেন্দ্রের নারী আনসার রিনা বেগম বলেন, বহুবার তিনি নির্বাচনী দায়িত্ব পালন করেছেন। কিন্তু এই প্রথমবার তিনি অলস সময় কাটাচ্ছেন। কেন্দ্রের প্রিসাইডিং অফিসার সিরাজুল ইসলাম জানান, দুপুর ১২টা পর্যন্ত ৩২ শতাংশ ভোট পড়েছে। ৯টা থেকে বেলা ১১টা পর্যন্ত ভোটারের উপস্থিতি ছিল ভালো। প্রথম ঘণ্টায় ভোট পড়েছে শতাধিক। দক্ষিণ জাগুয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে দুপুর ১২টার মধ্যে ৪০ শতাংশের বেশি ভোট পড়েছে বলে জানিয়েছেন ওই কেন্দ্রের প্রিসাইডিং অফিসার মো. ওয়াহেদুজ্জামান। দুপুর সাড়ে ১২টায় হরিণাফুলিয়া আদর্শ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্র ছিল ভোটারশূন্য। সাড়ে ৪ ঘণ্টার মধ্যে ওই কেন্দ্রে ৫০ শতাংশেরও বেশি ভোট পড়ে বলে জানিয়েছেন প্রিসাইডিং অফিসার অধ্যক্ষ খায়রুল আলম। কেন্দ্রে ভোটার নেই, এত ভোট কারা দিল জানতে চাওয়া হলে অধ্যক্ষ খায়রুল আলম বলেন, ভোট গ্রহণের শুরু থেকেই ওই কেন্দ্রে ভোটার উপস্থিতি ছিল উল্লেখযোগ্য সংখ্যক। ১১টার পর থেকে ভোটার উপস্থিতি কমতে থাকে।
ভোট গ্রহণের শুরু থেকেই নির্বাচনী এলাকার ১৫৯ কেন্দ্রের সবই অঘোষিতভাবে নিয়ন্ত্রণে ছিল নৌকার সমর্থকদের। নৌকার সমর্থকরা শুধু নৌকা প্রতীকেই জাল ভোট দেননি, তারা টেলিভিশন প্রতীকেও ভোট দিয়েছেন। শায়েস্তাবাদ ইউনিয়নের চরআইচা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে আওয়ামী লীগের অঙ্গ সংগঠনের এক নেতা বলেন, নিয়মানুযায়ী টেলিভিশন প্রতীকের প্রার্থীকেও ১০ শতাংশ ভোট পেতে হবে। তাই তারা বাধ্য হয়ে টেলিভিশনেও ভোট দিয়েছেন। নগরীর অক্সফোর্ড মিশন মাধ্যমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে গিয়ে দেখা গেছে, বিপুলসংখ্যক তরুণীর উপস্থিতি। খোঁজ নিয়ে জানা গেল, ভোট দেওয়ার জন্য ওই তরুণীদের বিএম কলেজ ছাত্রী নিবাস থেকে আনা হয়েছে। নগরীর নূরিয়া স্কুল কেন্দ্রেও দেখা গেছে, নৌকা প্রতীকের সমর্থকরা ভোটার স্লিপ নিয়ে লাইন দিয়ে দাঁড়িয়েছেন ভোট দেওয়ার জন্য।
এদিকে বিএনএফ মনোনীত টেলিভিশন প্রতীকের প্রার্থী সাইফুল ইসলাম লিটন সমকালকে বলেন, তিনি নির্বাচনী মাঠে ছিলেন না। দলীয় চেয়ারম্যান তার সঙ্গে বেইমানি করেছেন। তিনি যেহেতু নির্বাচনে ছিলেন না, সেহেতু কোনো কেন্দ্রে পোলিং এজেন্টও দেননি। তিনি কেন নির্বাচনী মাঠে ছিলেন না তা ১৮ জুন সংবাদ সম্মেলন করে বিস্তারিত বলবেন।
ভোট গ্রহণ শেষে রিটার্নিং অফিসার ও জেলা প্রশাসক মো. শহীদুল আলম বলেন, সব কেন্দ্রেই শান্তিপূর্ণভাবে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। যার প্রমাণ কোথাও কাউকে আটক করা হয়নি কিংবা কোনো কেন্দ্র থেকে অভিযোগও পাওয়া যায়নি।

ভারতের ছবিতে সব্যসাচীর সঙ্গে তিশা

ভারতের ছবিতে সব্যসাচীর সঙ্গে তিশা

প্রথমবারের মতো ভারতীয় একটি ছবিতে অভিনয় করতে যাচ্ছেন নুসরাত ইমরোজ ...

চীনে আইফোন বিক্রি ও আমদানিতে নিষেধাজ্ঞা

চীনে আইফোন বিক্রি ও আমদানিতে নিষেধাজ্ঞা

চীনে আইফোন বিক্রি ও আমদানিতে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে দেশটির আদালত। ...

প্রার্থী হতে পারছেন না বিএনপির আলী আজগর

প্রার্থী হতে পারছেন না বিএনপির আলী আজগর

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ময়মনসিংহ-১ (হালুয়াঘাট-ধোবাউড়া) আসনের বিএনপির প্রার্থী আলী ...

খালেদা জিয়ার প্রার্থিতা নিয়ে বিভক্ত আদেশ হাইকোর্টের

খালেদা জিয়ার প্রার্থিতা নিয়ে বিভক্ত আদেশ হাইকোর্টের

আসন্ন জাতীয় নির্বাচনে তিনটি আসনে বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার প্রার্থিতা ...

হবিগঞ্জে টেক্সটাইল মিলের গুদামে আগুন

হবিগঞ্জে টেক্সটাইল মিলের গুদামে আগুন

হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলার নয়াপাড়ায় সায়হাম টেক্সটাইল মিলের গুদামে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ...

শেখ হাসিনার নির্বাচনী জনসভাকে কেন্দ্র করে মুখরিত কোটালীপাড়া

শেখ হাসিনার নির্বাচনী জনসভাকে কেন্দ্র করে মুখরিত কোটালীপাড়া

আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নিজ নির্বাচনী এলাকা ...

ঝিনাইদহে আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে আহত ৩

ঝিনাইদহে আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে আহত ৩

ঝিনাইদহের শৈলকুপায় আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের মধ্যে হামলা-পাল্টা হামলা, অফিস ...

ইশতেহার কি আমাদের জন্য

ইশতেহার কি আমাদের জন্য

আমরা ভাসতে ভাসতে ডুবতে ডুবতে সময়ের গ্রন্থিগুলো পার হচ্ছি। অনেকটা ...