আশুলিয়ার নরসিংহপুর এলাকায় সিনহা গ্রুপের মেডলার অ্যাপারেলসের কারখানায় অগি্নকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। গতকাল শনিবার রাত সোয়া ৯টার দিকে ৮তলা ভবনের দ্বিতীয় তলায় এ অগি্নকাণ্ডের সূত্রপাত। এ সময় কারখানায় কর্মরত শত শত শ্রমিক আতঙ্কে কারখানাটির ছাদে অবস্থান নেন। কারখানা থেকে তাড়াহুড়া করে বের হতে গিয়ে আহত হয়েছেন অন্তত ২০ জন। আহতদের স্থানীয় নারী ও শিশু হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। ফায়ার সার্ভিসের ১১টি ইউনিট আড়াই ঘণ্টা চেষ্টার পর আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। এর মধ্য দিয়ে ভবনটিতে কর্মরত প্রায় দেড় হাজার শ্রমিক প্রাণে রক্ষা পান। এদিকে কারখানায় আগুন লাগানোর সন্দেহে রাত সাড়ে ১২টার দিকে পুলিশ একজনকে আটক করেছে। হেলালউদ্দিন নামে বহিরাগত ওই যুবককে কারখানা এলাকা থেকে আটক করা হয়।
অগি্নকাণ্ডের খবরে আশুলিয়া শিল্পাঞ্চলের
আশপাশের পোশাক কারখানায় নাইট শিফটে কর্মরত শ্রমিকরা কাজ বন্ধ করে রাস্তায় নেমে আসেন। পরে সব কারখানা ছুটি ঘোষণা করে কর্তৃপক্ষ। একযোগে শ্রমিকরা রাস্তায় বেরিয়ে এলে টঙ্গী-আশুলিয়া সড়কে দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়। বন্ধ হয়ে যায় মহাসড়কে যান চলাচল।
জানা গেছে, দ্বিতীয় তলা থেকে শ্রমিকরা নিচে নামতে পারলেও তৃতীয় তলা থেকে আটতলা পর্যন্ত কর্মরত শ্রমিকরা আটকা পড়েন। আগুন দ্বিতীয় তলার পুরো ফ্লোরে ছড়িয়ে পড়লে এক পর্যায়ে তারা ভবনটির ছাদে অবস্থান নিয়ে সাহায্যের আবেদন জানাতে থাকেন।
খবর পেয়ে আশুলিয়ার ডিইপিজেড, সাভার, কালিয়াকৈর, ধামরাই, টঙ্গী, গাজীপুর ও ঢাকা থেকে ফায়ার সার্ভিসের ১১টি ইউনিট ঘটনাস্থলে পেঁৗছে আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ শুরু করে। ফায়ার সার্ভিস আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার পাশাপাশি উঁচু মই দিয়ে ছাদে আটকেপড়া শ্রমিকদের নিচে নামিয়ে আনে।
রাত ১২টায় ফায়ার সার্ভিস কর্মকর্তা মামুন মাহমুদ সমকালকে জানান, আগুন পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে আনা হয়েছে। সেখানে বড় ধরনের কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। দ্বিতীয় ফ্লোরের যন্ত্রপাতি আগুনে পুড়ে গেছে।

মন্তব্য করুন