দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় ১৬ জন মারা গেছেন। এ সময়ে নতুন কভিড-১৯ রোগী শনাক্ত হয়েছেন ৫৮৪ জন। এই ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৬০২ জন। গতকাল বৃহস্পতিবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে দেশে করোনাভাইরাস পরিস্থিতির এই তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, গতকাল সকাল ৮টা পর্যন্ত দেশে মোট শনাক্ত হয়েছেন পাঁচ লাখ ৩০ হাজার ২৭১ জন। মারা গেছেন সাত হাজার ৯৬৬ জন। এ সময় পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন চার লাখ ৭৫ হাজার ৭৪ জন।

বাংলাদেশে করোনাভাইরাসের প্রথম সংক্রমণ ধরা পড়ে গত ৮ মার্চ। এর ১০ দিন পর ১৮ মার্চ দেশে প্রথম কভিড রোগীর মৃত্যু হয়। জন্স হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের তালিকায় বিশ্বে শনাক্তের দিক থেকে ৩০তম স্থানে আছে বাংলাদেশ, আর মৃতের সংখ্যায় রয়েছে ৩৮তম অবস্থানে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জানিয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় সারাদেশে ১১৬টি আরটিপিসিআর ল্যাব, ২৮টি জিন-এক্সপার্ট ল্যাব ও ৫৬টি র‌্যাপিড অ্যান্টিজেন ল্যাবে অর্থাৎ, সর্বমোট ২০০টি ল্যাবে ১৪ হাজার ৭৬১টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এ পর্যন্ত পরীক্ষা হয়েছে ৩৫ লাখ ১৫ হাজার ৪২৮টি নমুনা।

২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষার বিবেচনায় শনাক্তের হার ৩ দশমিক ৯৬ শতাংশ। এ পর্যন্ত মোট শনাক্তের হার ১৫ দশমিক ০৮ শতাংশ। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৮৯ দশমিক ৫৯ শতাংশ এবং মৃত্যুহার ১ দশমিক ৫০ শতাংশ।

সরকারি ব্যবস্থাপনায় এ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ২৭ লাখ ৫৭ হাজার ৭৮৪টি। আর বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় হয়েছে সাত লাখ ৫৭ হাজার ৬৪৪টি।

গত ২৪ ঘণ্টায় যারা মারা গেছেন তাদের মধ্যে ১১ জন পুরুষ আর নারী পাঁচজন। তাদের মধ্যে ১৫ জন হাসপাতালে ও একজন বাড়িতে মারা গেছেন। তাদের মধ্যে নয়জনের বয়স ছিল ৬০ বছরের বেশি। তিনজনের বয়স ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে। এ ছাড়া দু'জনের বয়স ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে এবং একজন করে মোট দু'জনের বয়স ৪১ থেকে ৫০ ও ২১ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে। মৃতদের ১৩ জন ঢাকা বিভাগের এবং একজন করে মোট তিনজন চট্টগ্রাম, রাজশাহী ও খুলনা বিভাগের বাসিন্দা ছিলেন।

দেশে এ পর্যন্ত মারা যাওয়া সাত হাজার ৯৬৬ জনের মধ্যে ছয় হাজার ৩৭ জনই পুরুষ এবং এক হাজার ৯২৯ জন নারী। তাদের মধ্যে চার হাজার ৩৯৫ জনের বয়স ছিল ৬০ বছরের বেশি। এ ছাড়া দুই হাজার তিনজনের বয়স ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে। ৯১৬ জনের বয়স ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে। ৩৯৪ জনের বয়স ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে। ১৬২ জনের বয়স ২১ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে। ৬০ জনের বয়স ১১ থেকে ২০ বছরের মধ্যে এবং ৩৬ জনের বয়স ছিল ১০ বছরের কম। এর মধ্যে চার হাজার ৪২৬ জন ঢাকা বিভাগের, এক হাজার ৪৫৯ জন চট্টগ্রাম বিভাগের, ৪৫৫ জন রাজশাহী বিভাগের, ৫৪৫ জন খুলনা বিভাগের, ২৪০ জন বরিশাল বিভাগের, ৩০১ জন সিলেট বিভাগের, ৩৫৪ জন রংপুর বিভাগের এবং ১৮৬ জন ময়মনসিংহ বিভাগের।



মন্তব্য করুন