দেশে করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা কমছে। গত চব্বিশ ঘণ্টায় মারা গেছেন আরও ৩৭ জন। সংখ্যাটি গত ৪০ দিনের মধ্যে সর্বনিম্ন। এর চেয়ে কম ৩৫ জনের মৃত্যুর খবর এসেছিল গত ২৮ মার্চ। বৃহস্পতিবার মৃত্যু হয়েছিল ৪১ জনের। দেশে সরকারি হিসাবে এখন পর্যন্ত করোনায় মারা গেছেন ১১ হাজার ৮৩৩ জন। শনাক্তের সংখ্যাও কিছুটা কমেছে গত দিনের তুলনায়। এ সময়ে এক হাজার ৬৮২ জনের শরীরে নতুন করে করোনা শনাক্ত করা হয়েছে। আগের দিন বৃহস্পতিবার দেশে এক হাজার ৮২২ জন শনাক্ত হয়েছিলেন। সব মিলিয়ে দেশে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন সাত লাখ ৭০ হাজার ৮৪২ জন।

দেশের ৪৪৩টি ল্যাবে গতকাল নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ১৭ হাজার ১৩টি। নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে ১৭ হাজার ৩২৯টি। করোনা সংক্রমণের পুরো সময়ে মোট পরীক্ষা হয়েছে ৫৫ লাখ ৯৯ হাজার ২৭৬টি। শুক্রবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

গত চব্বিশ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষার বিপরীতে রোগী পাওয়া গেছে ৯ দশমিক ৮৯ শতাংশ। সব মিলিয়ে পরীক্ষার বিপরীতে ১৩ দশমিক ৭৭ শতাংশ রোগী শনাক্ত করা হয়েছে। দেশে বর্তমানে শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৯১ দশমিক ৩৭ শতাংশ এবং মৃত্যুর হার এক দশমিক ৫৪ শতাংশ। গত চব্বিশ ঘণ্টায় সুস্থ হয়ে উঠেছেন দুই হাজার ১৭৮ জন। সর্বমোট সাত লাখ চার হাজার ৩৪১ জন সুস্থতার তালিকায় এসেছেন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্য মতে, গতকাল মারা যাওয়া ব্যক্তিদের মধ্যে ২৩ জন পুরুষ ও ১৪ জন নারী। এ পর্যন্ত মৃতদের ৭২ দশমিক ৫৯ শতাংশ পুরুষ এবং ২৭ দশমিক ৪১ শতাংশ নারী। গত চব্বিশ ঘণ্টায় মৃতদের মধ্যে ঢাকা বিভাগে ১৯ জন, চট্টগ্রামে ১১ জন, রাজশাহী ও সিলেটে দু'জন করে এবং খুলনা, বরিশাল ও ময়মনসিংহে একজন করে মারা যান। তাদের মধ্যে সরকারি হাসপাতালে ২৮ জন, বেসরকারি হাসপাতালে আটজন এবং বাসায় মারা গেছেন একজন। মৃতদের বয়স বিশ্নেষণে দেখা যায়, ৬০ বছরে ঊর্ধ্বে রয়েছেন ২০ জন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে ১১ জন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে পাঁচজন এবং ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে আছেন একজন।

গত ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশনে এসেছেন ৩৮৩ জন এবং আইসোলেশন থেকে ছাড়া পেয়েছেন ৫৬০ জন। এ পর্যন্ত আইসোলেশনে এসেছেন এক লাখ ২৫ হাজার ৫০৬ জন এবং ছাড়া পেয়েছেন এক লাখ ছয় হাজার ৬০৩ জন। বর্তমানে আইসোলেশনে আছেন ১৮ হাজার ৯০৩ জন। এ সময়ে নতুন করে কোয়ারেন্টাইনে এসেছেন এক হাজার ৪৮৮ জন এবং ছাড়া পেয়েছেন এক হাজার ৭৭৯ জন। এখন পর্যন্ত মোট সাত লাখ ২১ হাজার ১১২ জন কোয়ারেন্টাইনের আওতায় এসেছেন এবং ছাড়া পেয়েছেন ছয় লাখ ৭২ হাজার ৭৪৫ জন। এখন কোয়ারেন্টাইনে আছেন ৪৮ হাজার ৩৬৭ জন।

ওয়ার্ল্ডওমিটারের তথ্য অনুযায়ী, করোনায় আক্রান্তের সংখ্যায় বিশ্বে বাংলাদেশের অবস্থান এখন ৩৩তম। মৃত্যুর দিক থেকে বর্তমান অবস্থান ৩৭তম।

মন্তব্য করুন