১৮ হাজার কর্মী ছাঁটাই করবে ডয়েচ ব্যাংক

প্রকাশ: ০৯ জুলাই ২০১৯

শিল্প ও বাণিজ্য ডেস্ক

সংকটে থাকা জার্মানির বৃহত্তম আর্থিক প্রতিষ্ঠান ডয়েচ ব্যাংক ১৮ হাজার কর্মী ছাঁটাই করতে যাচ্ছে। বড় সংস্কারের অংশ হিসেবে লন্ডন, নিউইয়র্ক ও টোকিওতে এ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার বিভাগের কর্মীদের কাজ থেকে বিরত থাকতে চিঠি দেওয়া হয়েছে বলে বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

ব্যবসায়িক কার্যক্রম ছোট করার মাধ্যমে ব্যয় কমানোর পরিকল্পনার অংশ হিসেবে কর্মী ছাঁটাইয়ের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। আগামী তিন বছরের মধ্যে বিপুল এ ছাঁটাইয়ের পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করবে প্রতিষ্ঠানটি।

ডয়েচ ব্যাংক জানায়, কর্মী ছাঁটাই ছাড়াও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ইক্যুইটি ব্যবসার কিছু অংশ বিক্রির পরিকল্পনাও করছে। কর্মী ছাঁটাইয়ের জন্য কর্মীদের কাছে দুঃখও প্রকাশ করেছে প্রায় দেড়শ' বছরের পুরনো ব্যাংকটি।

বিবিসির গতকাল সোমবারের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, টোকিওসহ এশিয়ায় প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ট্রেডার দলগুলোকে জানানো হয়েছে, তাদের চাকরি আর থাকছে না। লন্ডনে ডয়েচে ব্যাংক ভবনে কয়েকজন কর্মীর প্রবেশাধিকারও বাতিল করা হয়েছে। সোমবার তারা কাজে যোগ দিতে পারেননি। লন্ডনের সবচেয়ে বড় নিয়োগদাতা প্রতিষ্ঠান ডয়েচ ব্যাংক।

২০০৮-০৯ অর্থবছরের বৈশ্বিক আর্থিক সংকটের পর থেকেই নানা প্রতিকূলতার মধ্য দিয়ে যাচ্ছে ডয়েচ ব্যাংক। গত দুই দশক অন্যান্য বহুজাতিক ব্যাংকগুলোর সঙ্গে সমান তালে পাল্লা দিয়ে ব্যবসা করছিল ব্যাংকটি। তবে মন্দা ছাড়াও আন্তর্জাতিক শেয়ারবাজারে ধস, বিভিন্ন দেশে বাণিজ্যিক টানাপড়েন ডয়েচে ব্যাংককে বিপাকে ফেলে। বিশেষ করে ইউরোপে অর্থনীতির সংস্কারের ধকল বিনিয়োগের ওপর ব্যাংকটির অর্থায়নকে ঝুঁকিতে ফেলে।

জার্মানির ব্যাংকটি বলছে, প্রতিযোগিতায় টিকে থাকতে লোকবল ছাঁটাই ছাড়া অন্য কোনো পথ আপাতত নেই। কারণ ঋণখেলাপি দাঁড়িয়েছে আট হাজার ৩০০ কোটি ডলার।