বঙ্গবন্ধু শিল্পনগর চলতি বছর উৎপাদনে যাচ্ছে চীনা কোম্পানি

প্রকাশ: ১১ জুলাই ২০১৯      

সমকাল প্রতিবেদক

চট্টগ্রামের মিরসরাই, সীতাকু ও ফেনীর বিশাল এলাকা নিয়ে গড়ে উঠছে 'বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব শিল্পনগর'। এই নগরীতে দেশি-বিদেশি বিনিয়োগে শুরু হয়েছে শিল্প স্থাপনের কাজ। চলতি বছরের মধ্যে এখানে স্থাপিত কারখানায় উৎপাদন শুরু করতে আশাবাদী উদ্যোক্তারা।

এ শিল্পনগরে রাসায়নিক উৎপাদনের কারখানা স্থাপন করছে চীনা কোম্পানি ঝুঝাউ জিনইয়ান কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রি। তাদের কারখানা নির্মাণের কাজ অনেক দূর এগিয়েছে। কারখানা স্থাপনের জন্য বেজা (বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষ) ১০ একর জমি ইজারা দিয়েছে। কোম্পানিটি ১০ মিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ করছে। কারখানা ভবনের অবকাঠামো নির্মাণ প্রায় শেষ পর্যায়ে রয়েছে।

ঝুঝাউ জিনইয়ানের বাংলাদেশের প্রতিনিধি শাখাওয়াত হোসেন (মাসুদ) সমকালকে জানান, চলতি বছরের মধ্যে এই কেমিক্যাল কারখানা চালু করা হবে। শুরুতে প্রতিষ্ঠানটি লেড নাইট্রেড তৈরি করবে, যার পুরোটাই রফতানি করা হবে। দ্বিতীয় ধাপে অন্যান্য কেমিক্যাল প্রস্তুত করতে বিনিয়োগে যাবে এই কোম্পানি। তিনি বলেন, এই কারখানা চালু হলে ২০০ লোকের কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হবে।

চীনা এ কোম্পানি ছাড়াও সম্প্রতি শিল্প স্থাপনের উদ্যোগ নিয়ে কাজ শুরু করেছে দেশি প্রতিষ্ঠান মডার্ন সিনটেক্স। টি কে গ্রুপের এই প্রতিষ্ঠান ২০ একর জমিতে পলিস্টারের কাঁচামাল তৈরির কারখানা স্থাপনের জন্য ১৫০ মিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ করবে। মডার্ন সিনটেক্সের সমন্বয়ক জাব্বার জুয়েল সমকালকে বলেন, আধুনিক প্রযুক্তির স্বয়ংক্রিয় কারখানা স্থাপন করা হবে। এ জন্য জার্মানির একটি গ্রুপের মাধ্যমে কারখানার নকশা তৈরি করা হচ্ছে। এখানে পলিস্টার সুতা ও কাপড় তৈরির কাঁচামাল ভার্জিন চিপস উৎপাদন করা হবে। প্রতিদিন প্রায় ৪০০ টন উৎপাদনের পরিকল্পনা রয়েছে। এই পণ্য স্থানীয় বাজারে আমদানি বিকল্প পণ্য হিসেবে সরবরাহ করা হবে। পাশাপাশি রফতানি করা হবে। এ কারখানা চালু হলে ১ হাজার ২০০ লোকের কর্মসংস্থান হবে।

বেজা জানায়, শিগগির কারখানা স্থাপনের কাজ শুরু করবে আরমান হক ডেনিম। নির্মাণ কাজের ভিত্তি স্থাপন করা হয়েছে। কোম্পানিটি প্রথম দফায় ১০ একর প্লট বরাদ্দ পেয়েছে। বছরে ১ কোটি ৮ লাখ মিটার ডেনিম কাপড় তৈরি করা হবে। এখানে ৩০০ কোটি টাকা বিনিয়োগ করা হবে। এ ছাড়া আগামী অক্টোবরে কারখানা স্থাপনের কাজ শুরু করার কথা রয়েছে বসুন্ধরা গ্রুপের। অন্যদিকে, বিদেশি কোম্পানি ম্যাকডোনাল্ড ও নিপ্পন ইন্ডাস্ট্রির বরাদ্দ পাওয়া জমির উন্নয়নের কাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে। এ বছরের মধ্যে কোম্পানিগুলো কারখানা স্থাপনের জন্য কাজ শুরু করবে।