খুলনায় নতুন কর ভবন হচ্ছে

প্রকাশ: ১৫ আগস্ট ২০১৯

সমকাল প্রতিবেদক

খুলনায় জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) ঝুঁকিপূর্ণ কর ভবন ভেঙে নতুন করে নির্মাণ করা হচ্ছে। এতে দৈনন্দিন কার্যক্রম পরিচালনার পাশাপাশি আয়কর মেলাসহ বিভিন্ন অনুষ্ঠান আয়োজনের ব্যবস্থা রাখা হবে। রাজস্ব আহরণের লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে নতুন ভবন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে বলে মনে করছেন কর্মকর্তারা।

ভবনটি নির্মাণে ব্যয় ধরা হয়েছে ৭২ কোটি টাকা। ২০২২ সালের মধ্যে এটির নির্মাণ কাজ শেষ করার লক্ষ্য নির্ধারণ করা হয়েছে। প্রস্তাবিত প্রকল্পটি অনুমোদনের জন্য আগামী মঙ্গলবার জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় উপস্থাপন করা হবে বলে পরিকল্পনা কমিশনের কর্মকর্তারা জানান। ভবনটি খুলনা মহানগরীতে এনবিআরের নিজস্ব ১ দশমিক ৩৫ একর জমিতে ১০ তলা পর্যন্ত নির্মাণের প্রস্তাব করা হয়েছে।

এনবিআরের কর্মকর্তারা জানান, খুলনা বিভাগীয় সদরে পুরনো কর ভবনটি ঝুঁকিপূর্ণ হওয়ায় এখন ভাড়া বাড়িতে কর আদায়ের কার্যক্রম পরিচালনা করা হচ্ছে। এতে বর্ধিত কর আহরণের কার্যক্রম বিঘ্নিত হচ্ছে এবং গুরুত্বপূর্ণ দাপ্তরিক নথিপত্রের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা সম্ভব হচ্ছে না। এ ছাড়া রাজস্ব আহরণের লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের জন্য আয়কর মেলা, আয়কর দিবস, আয়কর সপ্তাহের মতো অনুষ্ঠান করার জন্য খুলনায় তেমন বড় পরিসরে মিলনায়তনও পাওয়া যায় না। প্রস্তাবিত নতুন কর ভবনের ওয়ানস্টপ সেন্টার চালু করা হলে করদাতাও কর দিতে উৎসাহী হবেন। কর্মকর্তারা আরও জানান, খুলনা কর অঞ্চলে ২২ সার্কেলের মধ্যে সাতটি সার্কেল অফিস, দুটি রেঞ্জ অফিস, একটি বিভাগীয় প্রতিনিধির কার্যালয়, ট্যাক্সেস আপিলাত ট্রাইব্যুনাল অফিস, কর কমিশনার (আপিল) অফিস, কর আপিলাত রেঞ্জ ১ এবং রেঞ্জ ২, জরিপ রেঞ্জ, জরিপ সার্কেলসহ মোট ১৯ অফিস স্থানান্তরের পরিকল্পনা করে অভ্যন্তরীণ সম্পদ বিভাগ প্রস্তাবিত খুলনা কর ভবন শীর্ষক প্রকল্পটি বাস্তবায়নের উদ্যোগ নিয়েছে।