সাভার চামড়া শিল্পনগরীতে করা ট্যানারিগুলো অতিরিক্ত পানি ব্যবহার করছে। অতিরিক্ত পানি ব্যবহার রোধে 'ওয়াটার ফ্লো মিটার' স্থাপনের কাজ শুরু করেছে বাংলাদেশ ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প করপোরেশন (বিসিক)। গত শনিবার থেকে এই মিটার স্থাপনের কাজ শুরু হয়েছে বলে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে বিসিক।

জানা যায়, ট্যানারিগুলো থেকে নিয়মিত ১০ থেকে ১৫ হাজার কিউবিক মিটার তরল বর্জ্য নির্গত হওয়ার কথা। কিন্তু ট্যানারিতে চামড়া প্রক্রিয়াজাত করতে অতিরিক্ত পানি ব্যবহার করায় প্রতিদিন ২৫ থেকে ৩০ হাজার কিউবিক মিটার তরল বর্জ্য যাচ্ছে। এতে বর্তমানে কেন্দ্রীয় বর্জ্য শোধনাগারের (সিইটিপি) ধারণ ক্ষমতা ২৫ হাজার কিউবিক মিটারের বেশি তরল বর্জ্য জমা হচ্ছে। এ অবস্থায় পানির যথাযথ ব্যবহার নিশ্চিত করতে মিটার বসানো হচ্ছে।

শিল্পনগরীর প্রকল্প পরিচালক প্রকৌশলী জিতেন্দ্রনাথ পাল বলেন, বর্তমানে চালু থাকা ১২৩টি ট্যানারিতে বিসিকের নিজস্ব পাম্পের সাহায্যে পানি সরবরাহ করা হয়। এর পরেও কিছু ট্যানারির কারখানায় বিসিকের সরবরাহ করা পানি ছাড়াও তাদের নিজস্ব পাম্পের সাহায্যে প্রয়োজনের অতিরিক্ত পানি ব্যবহার করছে। এসব ট্যানারিতে অতিরিক্ত পানির ব্যবহার রোধ করার জন্য ওয়াটার ফ্লো মিটার স্থাপন করা হচ্ছে।

তিনি বলেন, দু-একদিনের মধ্যে যেসব শিল্প ইউনিট নিজস্ব পাম্পের সাহায্যে প্রয়োজনের অতিরিক্ত পানি ব্যবহার করে, সেগুলোতে মিটার স্থাপনের কাজ শেষ হবে।

মন্তব্য করুন