বেনাপোলে হচ্ছে নতুন টার্মিনাল

একনেকে উঠছে ২৯০ কোটি টাকার প্রকল্প

প্রকাশ: ২৬ আগস্ট ২০১৯      

সমকাল প্রতিবেদক

ভারতের সঙ্গে বাণিজ্য সম্প্রসারণে বেনাপোল স্থলবন্দরে নতুন কার্গো টার্মিনাল নির্মাণের উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। এ টার্মিনালে এক হাজার ২৫০ ট্রাক পার্কিং সুবিধার আওতায় আসবে। এতে আমদানি-রফতানি কার্যক্রমে গতি আসবে বলে আশা করছে স্থলবন্দর কর্তৃপক্ষ।

বন্দর কর্তৃপক্ষের কর্মকর্তারা জানান, প্রতিদিন ভারত থেকে ৪০০ থেকে ৫০০ ট্রাক বেনাপোলে আসে। এ ছাড়া বাংলাদেশি ট্রাক আসে ৫০০ থেকে ৬০০। ভারতের পণ্যবাহী ট্রাক বাংলাদেশে প্রবেশের পর টার্মিনালে অবস্থান করার কথা থাকলেও বর্তমানে ব্যবহারযোগ্য কোনো টার্মিনাল না থাকায় অধিকাংশ পণ্যবাহী ট্রাক রাস্তায় রাখা হয়। স্থান সংকুলান ও অবকাঠামোস্বল্পতার কারণে বন্দরের অপারেশনাল কাজ বিঘ্নিত হয়। এতে আমদানি-রফতানি কার্যক্রম ব্যাপকভাবে ব্যাহত হচ্ছে এবং সরকারের রাজস্ব আদায়ের পরিমাণ কমার আশঙ্কা রয়েছে। কর্মকর্তারা বলেন, এসব বিবেচনায় জমি অধিগ্রহণ করে সংযোগ সড়কসহ একটি কার্গো ভেহিকেল টার্মিনাল নির্মাণ করা হচ্ছে। এ জন্য সংযোগ সড়কসহ টার্মিনাল নির্মাণে ২৯ দশমিক ১০ একর জায়গা অধিগ্রহণের প্রস্তাব করা হয়েছে।

এ অবস্থায় ২৯০ কোটি টাকার একটি প্রকল্প প্রস্তাব ইতিমধ্যে পরিকল্পনা কমিশনে পাঠানো হয়েছে। প্রস্তাবিত টার্মিনালের কাজ আগামী দুই বছরের মধ্যে শেষ করার লক্ষ্য নির্ধারণ করা হয়েছে। এরই মধ্যে প্রকল্প যাচাই-বাছাই কাজ শেষ করেছে কমিশন। চূড়ান্তভাবে অনুমোদনের জন্য আগামীকাল মঙ্গলবার জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় উপস্থাপন করা হতে পারে বলে জানা গেছে।

সংশ্নিষ্টরা জানান, ভারতীয় সীমান্তপথে আমদানি-রফতানি বা বাণিজ্যিক কার্যক্রমে বেনাপোল স্থলবন্দর সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। এটি দেশের সবচেয়ে বড় স্থলবন্দর। এ বন্দর দিয়ে প্রায় ৮০ শতাংশ আমদানি-রফতানি হয়ে থাকে। প্রতি বছর আসে প্রায় ২০ হাজার কোটি টাকার মালপত্র। এতে সরকার প্রতি বছর প্রত্যক্ষভাবে প্রায় চার হাজার কোটি টাকার রাজস্ব আয় করে। এ জন্য স্থলবন্দরের অবকাঠামোর আরও উন্নয়ন করা দরকার।