বেসরকারি খাতে ঋণ প্রবৃদ্ধি আরও কমেছে

প্রকাশ: ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯

সমকাল প্রতিবেদক

বেসরকারি খাতে ঋণ প্রবৃদ্ধি আরও কমেছে। আগের বছরের একই মাসের তুলনায় গত জুলাইয়ে ঋণ বিতরণ বেড়েছে ১১ দশমিক ২৬ শতাংশ। আগের মাস জুনে যা ছিল ১১ দশমিক ২৯ শতাংশ। ২০১৩ সালের জুনের পর কোনো মাসে বেসরকারি খাতে ঋণ প্রবৃদ্ধি এত কমতে দেখা যায়নি। ওই মাসে বেসরকারি খাতে ঋণ প্রবৃদ্ধি ছিল ১১ দশমিক শূন্য ৪ শতাংশ।

চলতি অর্থবছরের জন্য ঘোষিত মুদ্রানীতিতে বেসরকারি খাতে ঋণ প্রবৃদ্ধির প্রাক্কলন করা হয়েছে ১৪ দশমিক ৮০ শতাংশ। এর আগ পর্যন্ত ৬ মাসের জন্য মুদ্রানীতি ঘোষণা করত বাংলাদেশ ব্যাংক। ২০১৮-১৯ অর্থবছরের শেষ ৬ মাসের মুদ্রানীতিতে গত জুন পর্যন্ত বেসরকারি খাতে ঋণ বাড়ানোর লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয় ১৬ দশমিক ৫০ শতাংশ। তবে জুন নাগাদ ঋণ প্রবৃদ্ধি হয় ১১ দশমিক ২৯ শতাংশ।

সংশ্নিষ্টরা জানান, দেশের কর্মসংস্থান ও জিডিপি প্রবৃদ্ধির উল্লেখযোগ্য অংশ হয় বেসরকারি খাতের মাধ্যমে। বেসরকারি খাতের কর্মযজ্ঞ বাড়লে তখন ঋণ প্রবৃদ্ধিও বাড়ে। তবে গত কয়েক বছর ধরে জিডিপি অনুপাতে বেসরকারি বিনিয়োগ একই জায়গায় রয়েছে। এর মধ্যে আবার অনেক ব্যাংকে তারল্য সংকটের কারণে আশানুরূপভাবে ঋণ বাড়তে পারছে না।

এ ছাড়া সেপ্টেম্বরের মধ্যে ব্যাংকগুলোর ঋণ আমানত অনুপাত (এডিআর) নতুন সীমায় নামিয়ে আনার নির্দেশনা রয়েছে। এসব কারণে ব্যাংকগুলো ঋণ বিতরণের ক্ষেত্রে সতর্কতা দেখানোয় প্রবৃদ্ধি আশানুরূপ হারে বাড়ছে না।