সায়েদাবাদ পানি শোধনাগার

বিনা সুদে ১৮২০ কোটি টাকা দেবে ডেনমার্ক

প্রকাশ: ০৪ অক্টোবর ২০১৯      

বিশেষ প্রতিনিধি

সায়েদাবাদ পানি শোধনাগার-তৃতীয় পর্যায় প্রকল্পে বিনা সুদে ঋণ দেবে ডেনমার্ক। এ প্রকল্পে ২১ কোটি ৭০ লাখ ডলার বা এক হাজার ৮২০ কোটি টাকা অর্থায়ন করবে দেশটি। গতকাল বৃহস্পতিবার রাজধানীর শেরেবাংলা নগরের এনইসি সম্মেলন কক্ষে এ বিষয়ে একটি চুক্তি স্বাক্ষর হয়। এতে স্বাক্ষর করেন অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের অতিরিক্ত সচিব ড. নাহিদ রশীদ এবং ডেনমার্কের রাষ্ট্রদূত উইনিনি এসট্রাপ পিটারসন। এ সময় ঢাকা ওয়াসার এমডি তাকসিম এ খান উপস্থিত ছিলেন।

চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে জানানো হয়, আলোচ্য প্রকল্পে ডানিডা বিজনেস ফাইন্যান্সের অর্থায়নের পরিমাণ ১৮৮ মিলিয়ন ইউরো বা প্রায় এক হাজার ৮২০ কোটি টাকা। এ ঋণের গ্রান্ট ইলিমেন্ট (নমনীয় ঋণের অংশ) ৫০ শতাংশ। প্রকল্পের নির্মাণ সম্পন্ন ও হস্তান্তরের ছয় মাস পর থেকে ১০ বছরে ঋণ পরিশোধ করতে হবে। ইআরডির কর্মকর্তারা বলেছেন, এ ঋণের বিপরীতে সুদ দিতে হবে না বাংলাদেশ সরকারকে। শুধু আসল অর্থ পরিশোধ করতে হবে। এ অর্থ ব্যয়ের মাধ্যমে প্রতিদিন সাড়ে চার লাখ ঘনমিটার পানি পরিশোধনের জন্য সারফেস ওয়াটার ট্রিটমেন্ট প্লান্ট এবং প্রতিদিন নয় লাখ ঘনমিটার পানির উচ্চক্ষমতাসম্পন্ন প্লান্ট নির্মাণ করা হবে।

চুক্তিশেষে ড. নাহিদ রশীদ সাংবাদিকেদের বলেন, জলবায়ুর ক্ষতিকর প্রভাব মোকাবেলায় প্রকল্পটি বিশেষ ভূমিকা রাখবে। কেননা, এ প্রকল্পের মাধ্যমে ভূ-উপরিস্থ পানি শোধন করে ঢাকায় সরবরাহ করা হবে। তিনি বলেন, ডেনমার্ক বাংলাদেশের ঘনিষ্ঠ সহযোগী। কৃষি, পানি ও জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবেলায় সহায়তা দিয়ে আসছে দেশটি। আগামীতে এ সহায়তা অব্যাহত থাকবে।

উইনিনি এসট্রাপ পিটারসন বলেন, বিশুদ্ধ পানির চাহিদা মোকাবেলার ক্ষেত্রে প্রকল্পটি বিশেষ ভূমিকা রাখবে। টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা (এসডিজি) বাস্তবায়নে নিরাপদ পানি সরবরাহ জরুরি। অভ্যন্তরীণ উৎসের পানির স্তর নিচে নেমে যাচ্ছে। তাই পরিবেশ রক্ষায় ভূ-উপরিস্থ পানির ব্যবহার বাড়াতে হবে।