করোনাকালে বাড়ি, অফিস ও মার্কেট জীবাণুমুক্ত করার সেবা নিয়ে এসেছে বহুজাতিক রং কোম্পানি বার্জার পেইন্টস। 'বার্জার এক্সপার্ট স্যানিটাইজেশন সার্ভিস' নামে এ সেবা রোববার আনুষ্ঠানিকভাবে চালু করা হয়।

অনলাইনে এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে গতকাল রোববার এ সেবা উদ্বোধন করা হয়। শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত কোম্পানিটির নতুন এ সেবার আওতায় ভাইরাস ও ব্যাকটেরিয়া প্রতিরোধে চার সপ্তাহ পর্যন্ত সুরক্ষা দেবে। এ সেবা পেতে ৫ হাজার বর্গফুট পর্যন্ত প্রতি বর্গফুটে সাড়ে ৩ টাকা, ১০ হাজার বর্গফুট পর্যন্ত প্রতি বর্গফুুটে ৩ টাকা ও ১০ হাজারের ওপরে প্রতি বর্গফুট আড়াই টাকা ব্যয় হবে।

এটি পরিবেশবান্ধব সেবা বলে অনুষ্ঠানে জানানো হয়। এতে বিষাক্ত রাসায়নিক না থাকায় মানুষ ও প্রাণীর জন্য ক্ষতিকর নয়। জীবাণুমুক্তকরণ স্প্রেটি সব পৃষ্ঠতল এবং পদার্থ বা বস্তুর ওপর ব্যবহার করা যাবে। সেবা পেতে বার্জার পেইন্টসের সেবা কেন্দ্রগুলো ও কল সেন্টারে যোগাযোগ করতে হবে।

অনুষ্ঠানে বার্জার পেইন্টস বাংলাদেশের বিক্রয় ও বিপণন বিভাগের জ্যেষ্ঠ মহাব্যবস্থাপক মহসিন হাবিব চৌধুরী বলেন, করোনা প্রাদুর্ভাব সবার মধ্যে উৎকণ্ঠার সৃষ্টি করেছে। এর প্রভাব পড়েছে বিভিন্ন ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান ও সাধারণ মানুষের স্বাভাবিক কার্যক্রমে। এ পরিস্থিতিতে ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান ও সাধারণ মানুষ যেন নির্দি্বধায় তাদের প্রতিদিনের কার্যক্রম চালিয়ে যেতে পারে এ জন্য জীবাণুমুক্তকরণের এ সেবা দেওয়া হবে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) এবং রোগ নিয়ন্ত্রণ ও প্রতিরোধ কেন্দ্রের (সিডিসি) বৈশ্বিক মানদণ্ড অনুসরণ করে জীবাণুমুক্ত কার্যক্রম চালানো হবে বলে জানান বার্জারের বিপণন বিভাগের মহাব্যবস্থাপক একেএম সাদেক নাওয়াজ। তিনি বলেন, বেশ কিছুদিন বন্ধ থাকার পর বিভিন্ন ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান সীমিত পরিসরে কার্যক্রম চালু করেছে। এ পরিস্থিতিতে কর্মী ও ক্রেতাদের সুরক্ষা নিশ্চিত করা প্রয়োজন। নতুন এ সেবার মাধ্যমে পেশাদার ও প্রশিক্ষিত সদস্যরা জীবাণুমুক্তকরণ সেবাদান করে ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান ও সাধারণ মানুষের উৎকণ্ঠা দূর করে তাদের সুরক্ষিত রাখতে সহায়তা করবে।

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন বার্জার পেইন্টসের প্রজেক্ট, প্রোলিংকস ও এক্সপেরিয়েন্স জোনের প্রধান সাব্বির আহমেদ, ডেকোরেটিভ ব্র্যান্ডের প্রধান নোমান আশরাফী রহমান, চ্যানেল এনগেজমেন্ট বিভাগের প্রধান এএমএম ফজলুর রশিদ এবং গবেষণা ও উন্নয়ন বিভাগের ব্যবস্থাপক সাইফুল আশরাফসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

মন্তব্য করুন