এনার্জিপ্যাক ও ই-জেনারেশনের আইপিও অনুমোদন

প্রকাশ: ২২ অক্টোবর ২০২০

সমকাল প্রতিবেদক

এনার্জিপ্যাক পাওয়ার জেনারেশনের আইপিও অনুমোদন করেছে শেয়ারবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিএসইসি। কোম্পানিটি প্রাতিষ্ঠানিক ও সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে শেয়ার বিক্রি করে ১৫০ কোটি টাকা মূলধন সংগ্রহ করবে। ইতোমধ্যে বুক বিল্ডিং পদ্ধতিতে কোম্পানিটির শেয়ারের নির্দেশক মূল্য ৩৫ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে।

গতকাল বুধবার কমিশন সভায় এনার্জিপ্যাক ছাড়াও তথ্যপ্রযুক্তি খাতের কোম্পানি ই-জেনারেশনকে আইপিওর মাধ্যমে মূলধন উত্তোলনের অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। সভা শেষে সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বিএসইসি জানায়, এনার্জিপ্যাক ১৫০ কোটি টাকা মূলধন সংগ্রহ করতে চার কোটি দুই লাখ ৯৩ হাজার ৫৬৬টি শেয়ার বিক্রি করবে। এর মধ্যে আইপিও বুক বিল্ডিং প্রক্রিয়ায় অংশগ্রহণকারী প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীরা ৩৫ টাকা থেকে সর্বোচ্চ ৮৫ টাকায় শেয়ার কিনবে। নিয়মানুযায়ী, সাধারণ বিনিয়োগকারীরা নির্দেশক মূল্য ৩৫ টাকার ওপর ১০ শতাংশ ছাড়ে ৩১ টাকা মূল্যে আইপিও শেয়ার কেনার সুযোগ পাবেন।

এদিকে গতকালের সভায় এনার্জিপ্যাকের বুক বিল্ডিং প্রক্রিয়ায় ৬০ টাকার ওপর দরপ্রস্তাবকারী চার প্রতিষ্ঠানকে তাদের প্রস্তাবের ব্যাখ্যা দিতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এর আগে ওয়ালটন হাইটেক ইন্ডাস্ট্রিজসহ সাম্প্রতিক বুক বিল্ডিং প্রক্রিয়ায় উচ্চ দরপ্রস্তাবকারী প্রতিষ্ঠানগুলোর কাছেও ব্যাখ্যা চাওয়া হবে। এ বিষয়ে যৌক্তিক ব্যাখ্যা দিতে ব্যর্থ হলে সংশ্নিষ্ট প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়ার সিদ্ধান্তও নিয়েছে কমিশন।

এদিকে গতকালের সভায় ই-জেনারেশনকে আইপিওর নির্দিষ্ট মূল্য পদ্ধতিতে অভিহিত মূল্য ১০ টাকা দরে দেড় কোটি শেয়ার বিক্রি করে মোট ১৫ কোটি টাকা সংগ্রহের অনুমোদন দেওয়া হয়। এখন আইপিও অনুমোদন দিলেও সাবস্ট্ক্রিপশনের সময় আগামী বছর জানুয়ারিতে নির্ধারণ করা হবে।

এ ছাড়া গতকালের সভায় পূর্ব ঘোষণা ছাড়া শেয়ার বিক্রি করায় অ্যাপোলো ইস্পাতের দুই করপোরেট পরিচালক আর্ট ইন্টারন্যাশনাল ও জুপিটার বিজনেসকে ১০ লাখ টাকা করে জরিমানা করার সিদ্ধান্ত হয়েছে। ঘোষণা ছাড়াই আর্ট ইন্টারন্যাশনাল আট লাখ ৮৮ হাজার এবং জুপিটার বিজনেস আট লাখ ৯১ হাজার শেয়ার বিক্রি করেছিল।