উৎপাদনে ১০ কোটির মাইলফলকে হিরো

প্রকাশ: ২২ জানুয়ারি ২০২১

সমকাল প্রতিবেদক

বিশ্বের সবচেয়ে বড় মোটরসাইকেল উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান হিরো মোটোকর্প ১০ কোটি ইউনিট মোটরসাইকেল উৎপাদনের মাইলফলক অর্জন করেছে। আর ১০ কোটিতম বাইকটি এক্সট্রিম ১৬০আর মডেলের, যা উৎপাদন করা হয়েছে ভারতের উত্তরখণ্ড প্রদেশের কারখানায়।

গতকাল বৃহস্পতিবার ১০ কোটির মাইলফলক উদযাপনে দিল্লির গুরুগ্রামে কোম্পানির নিজস্ব কারখানায় ছয়টি বিশেষ সংস্করণের মডেল উন্মোচন করেন হিরো মোটোকর্পের চেয়ারম্যান ও সিইও ড. পবন মুঞ্জাল। এই ছয়টি বিশেষ সংস্করণের মধ্যে রয়েছে স্পেল্গন্ডার প্লাস, এক্সট্রিম ১৬০আর, প্যাশন প্রো ও গ্লামার মোটরসাইকেল এবং ডেসটিনি ১২৫ এবং মায়েস্ত্রো এজ ১১০ স্টু্কটার। আগামী মাসে এসব মডেল বাজারে আসবে। উদযাপন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বলিউড তারকা শাহরুখ খান। জনপ্রিয় এই চিত্রতারকা অনুষ্ঠান সঞ্চালনাও করেন। হিরোর ওয়েবসাইট, ফেসবুক, ইউটিউবসহ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে অনুষ্ঠানটি প্রচারিত হয়।

ভারতের হিরো ব্র্যান্ডের মোটরসাইকেল বাংলাদেশেও জনপ্রিয়। দেশে এর বাজারজাত করছে নিলয় মোটরস। বিদেশি ব্র্যান্ডের মধ্যে হিরো ২০১৭ সালে বাংলাদেশে প্রথম উৎপাদন শুরু করেছে। নিটল-নিলয় গ্রুপের সঙ্গে যৌথ উদ্যোগে যশোরে বার্ষিক দেড় লাখ মোটরসাইকেল উৎপাদন সক্ষমতার কারখানা করেছে হিরো মোটোকর্প। এ কোম্পানির নাম এইচএমসিএল নিলয় বাংলাদেশ লিমিটেড।

নিলয়-নিটল গ্রুপের চেয়ারম্যান আবদুল মাতলুব আহমাদ সমকালকে বলেন, বাংলাদেশও ১০ কোটি ইউনিট মোটরসাইকেল উৎপাদনের মাইলফলক অর্জনের অংশীদার। এ দেশের কারখানায় এ পর্যন্ত প্রায় পৌনে তিন লাখ মোটরসাইকেল উৎপাদন হয়েছে। তিনি জানান, হিরো 'এক্সট্রিম ১৬০আর' মডেল এখানে শিগগিরই উৎপাদন শুরু হবে।

হিরো মোটোকর্পের পরবর্তী পাঁচ বছরের পরিকল্পনা এবং লক্ষ্যমাত্রা তুলে ধরেন ড. মুঞ্জাল। তিনি বলেন, আগামী পাঁচ বছরের মধ্যে কোম্পানির অবস্থান আরও সুদৃঢ় করা হবে। এ ক্ষেত্রে নতুন পণ্য ও উদ্ভাবন বাজারে আনার মাধ্যমে বিশ্বব্যাপী নিজস্ব ব্যবসার পরিধি বাড়ানোর লক্ষ্যে প্রচেষ্টা চালিয়ে যাবেন।

হিরো মোটোকর্প মোটরবাইক তৈরিতে বিশ্বের বৃহত্তম উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান হিসেবে টানা ২০ বছর সম্মানজনক অর্জন ধরে রেখেছে। বিশ্বের ইতিহাসে দ্রুততম সময়ের মধ্যে ১০ কোটি ইউনিট উৎপাদন করেছে। হিরো মোটোকর্প ১৯৮৪ সালে জাপানের হোন্ডা মোটর করপোরেশনের

সঙ্গে যৌথ উদ্যোগে মোটরসাইকেল উৎপাদনের কারখানা করে। তখন ব্র্যান্ড ছিল হিরো-হোন্ডা। ২০১০ সালে হোন্ডার অংশীদারিত্ব কিনে নেয় হিরো। ২০১১ সালে হিরো ব্র্যান্ডের মোটরসাইকেল বাজারজাত শুরু করে। যাত্রা শুরুর ১০ বছরে ১৯৯৪ সালে উৎপাদন করে

১০ লাখ ইউনিট। ২০০৪ সালে

এক কোটি ও ২০১৩ সালে পাঁচ কোটিতে পৌঁছায়।