সানোফি বাংলাদেশ কিনছে বেক্সিমকো ফার্মা

প্রকাশ: ২২ জানুয়ারি ২০২১

সমকাল প্রতিবেদক

সানোফি বাংলাদেশ কিনছে বেক্সিমকো ফার্মা

চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে উভয় প্রতিষ্ঠানের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা সংগৃহীত

সানোফি বাংলাদেশের অধিকাংশ (৫৪ দশমিক ৬০ শতাংশ) শেয়ার কিনতে চুক্তি করেছে দেশের শীর্ষস্থানীয় ওষুধ প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠান বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালস। এ জন্য তিন কোটি ৫৫ লাখ পাউন্ড বা বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ৪১২ কোটি টাকা দিতে হবে বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালকে। তবে অন্যান্য খরচসহ তা ৪ কোটি পাউন্ড বা ৪৬৪ কোটি টাকায় উন্নীত হতে পারে। আগামী তিন থেকে ৯ মাসের মধ্যে চুক্তি কার্যকর করতে সম্মত হয়েছে উভয় কোম্পানি।

বেক্সিমকো ফার্মা ও সানোফি বাংলাদেশ গতকাল বৃহস্পতিবার পৃথক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে মালিকানা হস্তান্তরে চুক্তি করার কথা জানিয়েছে। একই সঙ্গে লন্ডন স্টক এক্সচেঞ্জে তালিকাভুক্ত বেক্সিমকো ফার্মা সেখানে এ বিষয়ে ঘোষণা দিয়েছে। এ নিয়ে দ্বিতীয় কোনো বিদেশি কোম্পানির শেয়ার কিনছে বেক্সিমকো ফার্মা। এর আগে ২০১৮ সালে নেদারল্যান্ডসভিত্তিক অরগানন হোল্ডিংসের মালিকানাধীন নুভিস্তা ফার্মার (আগের নাম অরগানন বাংলাদেশ) ৮৫ দশমিক ২২ শতাংশ শেয়ার কিনেছিল তারা।

ফ্রান্সভিত্তিক বহুজাতিক ওষুধ প্রস্তুতকারক সানোফি ১৯৫৮ সালে মে অ্যান্ড বেকার নামে ব্যবসা শুরু করে। ২০১৩ সাল থেকে সানোফি বাংলাদেশ নামে কোম্পানিটি চলছে। এ কোম্পানির ১৯ লাখ ৬৩ হাজার ২৪১ শেয়ারের মালিক সানোফি, যা মোটের ৫৪ দশমিক ৬০ শতাংশ। বাকি ৪৫ দশমিক ৪০ শতাংশের মধ্যে ২৫ দশমিক ৪০ শতাংশের মালিকানায় রয়েছে বাংলাদেশের শিল্প মন্ত্রণালয় এবং প্রায় ২০ শতাংশ শেয়ারের মালিকানায় বাংলাদেশ কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজ করপোরেশন (বিসিআইসি)। বেক্সিমকো ফার্মা শুধু সানোফির মালিকানায় থাকা শেয়ারগুলো কিনতে চুক্তি করেছে।

মালিকানা বদল-সংক্রান্ত এ চুক্তি কার্যকর হবে ফরেন এক্সচেঞ্জ ইনভেস্টমেন্ট বিভাগ ও বাংলাদেশ ব্যাংকের অনুমোদন সাপেক্ষে। লন্ডন স্টক এক্সচেঞ্জে প্রকাশিত তথ্য অনুযায়ী, সানোফির প্রতিটি শেয়ারের দাম পড়বে বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় দুই হাজার ১০০ টাকা।

বাংলাদেশ থেকে ব্যবসা গুটিয়ে নেওয়ার বিষয়ে ২০১৯ সালের ১৬ অক্টোবর আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেয় সানোফি। এ কারণে উদ্বিগ্ন ছিলেন কোম্পানির বাংলাদেশে কর্মরত হাজারের বেশি কর্মকর্তা-কর্মচারী। সম্প্রতি শেয়ার বিক্রির জন্য বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে দরপ্রস্তাবও নেয় তারা। এতে সর্বোচ্চ দরপ্রস্তাব করে বেক্সিমকো ফার্মা। এর পর শেয়ার হস্তান্তরে গতকাল চুক্তি সই করেন উভয় কোম্পানির কর্মকর্তারা। তবে কয়েকদিন আগেই জানাজানি হয়, সানোফির শেয়ার কিনতে বেক্সিমকো ফার্মাই সর্বোচ্চ দরপ্রস্তাব করেছে। তবে আনুষ্ঠানিক চুক্তি ও ঘোষণার অপেক্ষায় ছিলেন দেশের শেয়ারবাজারের বিনিয়োগকারীরা। বেক্সিমকো ফার্মা দেশের দুই শেয়ারবাজার এবং লন্ডন স্টক এক্সচেঞ্জে তালিকাভুক্ত। তবে সানোফি বাংলাদেশের শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত নয়।

মালিকানা বদল-সংক্রান্ত ঘোষণা আসার দিনে গতকাল ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে বেক্সিমকো ফার্মার শেয়ারপ্রতি দর ২ টাকা ৯০ পয়সা বেড়ে সর্বশেষ ১৯৮ টাকা ২০ পয়সায় কেনাবেচা হয়েছে। অন্যদিকে এ প্রতিবেদন লেখার সময় লন্ডন স্টক এক্সচেঞ্জে ৪ পাউন্ড হারিয়ে ৯০ পাউন্ডে কেনাবেচা হতে দেখা গেছে।

সানোফি বাংলাদেশের কারখানা গাজীপুরের টঙ্গীতে অবস্থিত। বেক্সিমকো ফার্মা জানিয়েছে, সানোফি নিজস্ব ওষুধ প্রস্তুত ছাড়াও আন্তর্জাতিক বিভিন্ন ব্র্যান্ডের টিকা, ইনসুলিন ও কেমোথেরাপির ওষুধ আমদানি করে। বাংলাদেশে হৃদরোগ, ডায়াবেটিস, টিউমার, চর্মরোগ, সিএনএসে তাদের ওষুধ বেশ জনপ্রিয়। বহুল প্রচলিত ওষুধের মধ্যে রয়েছে লান্টাস, এপিড্রা, ফিমোক্সিল, ফ্লাজিল, এভিল, এন্টারোজারমিন।

চুক্তির ঘোষণা দিয়ে বেক্সিমকো ফার্মার ব্যবস্থাপনা পরিচালক নাজমুল হাসান বলেন, সানোফির অনন্য ও বৈচিত্র্যময় ওষুধের সমারোহ বেক্সিমকো ফার্মার পণ্যসম্ভারকে আরও বিস্তৃত ও পরিপূর্ণ করবে। এতে আয়ও বাড়বে। সানোফি বাংলাদেশের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মূইন উদ্দিন মজুমদার বলেন, সবদিক বিবেচনায় শেয়ার বিক্রির জন্য বেক্সিমকো ফার্মাকে নির্বাচিত করা হয়।