আগাম কর ব্যবস্থার বিলুপ্তি চেয়েছে বাংলাদেশ চেম্বার অব ইন্ডাস্ট্রিজ (বিসিআই)। সংগঠনটি বলেছে, অগ্রিম আয়কর (এআইটি), আগাম করের (এটি) মতো ব্যবস্থা ব্যবসায়িক খরচ বাড়িয়ে দিচ্ছে। আবার সমন্বয় বা রিফান্ড পাওয়ার ক্ষেত্রেও জটিলতা তৈরি করে। ব্যবসায়ীদের হাতে নগদ অর্থ রাখা ও পদ্ধতিগত জটিলতা দূর করতে আগাম কর ব্যবস্থা বাতিল করা জরুরি।\হগতকাল বৃহস্পতিবার ২০২১-২২ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটের ওপর মতামত জানাতে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ দাবি জানান বিসিআই সভাপতি আনোয়ার-উল আলম চৌধূরী (পারভেজ)। তিনি প্রস্তাবিত বাজেটের মূল্যায়ন ও কিছু সুপারিশ তুলে ধরেন। রাজধানীর মতিঝিলে বিসিআইসি ভবনে বিসিআইয়ের কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে সংগঠনের অন্য নেতৃবৃন্দও উপস্থিত ছিলেন।\হপ্রস্তাবিত বাজেটে বেশিরভাগ ক্ষেত্রে এআইটি চলতি অর্থবছরের মতো ৫ শতাংশই রাখা হয়েছে। তবে কিছু বিশেষ ক্ষেত্রে এ হার ২০ শতাংশ পর্যন্ত। আমদানি পর্যায়ে ভ্যাটের আগাম কর (এটি) ৪ শতাংশ থেকে কমিয়ে ৩ শতাংশ করা হয়েছে। এটি কমানোর উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে বিসিআই সভাপতি এই কর সম্পূর্ণভাবে বিলুপ্ত করার প্রস্তাব করেন। একই সঙ্গে কাঁচামাল আমদানিতে উৎসে কর শূন্য করার প্রস্তাব করেন।\হআনোয়ার-উল আলম চৌধূরী বলেন, প্রস্তাবিত বাজেট সময়োপোযোগী। বিনিয়োগ ও কর্মসংস্থানের জন্য অনেক ইতিবাচক উদ্যোগ রয়েছে। কিন্তু করোনাকালীন পরিস্থিতি মোকাবিলা ও দেশের অর্থনীতির স্বার্থে ব্যবসায় আরও কিছু বিষয় বিবেচনা করা জরুরি। কুটির, ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পের প্রসারের জন্য নীতি সহায়তার বিকল্প নেই। বাজেট পাস হওয়ার সময় সরকার উদ্যোক্তাদের কথা মাথায় রেখে কিছু সংশোধন আনবে বলে আশা করেন তিনি।\হপ্রস্তাবিত বাজেটে হালকা প্রকৌশল খাতের শিল্পকারখানায় ব্যবহূত হবে- এমন যন্ত্রাংশ উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানকে ১০ বছরের কর অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। বিসিআই এ খাতের সব প্রতিষ্ঠানকে কর অব্যাহতি দেওয়ার সুপারিশ করেছে। হালকা প্রকৌশল প্রতিষ্ঠান মেশিনারিজ তৈরি করে বিক্রি করলে তাতে ভ্যাট দিতে হয়। বিসিআই এই ভ্যাট এবং আমদানি করা কাঁচামালের ভ্যাট অব্যাহতি চেয়েছে। এ ছাড়া রপ্তানিতে টিটির মাধ্যমে মূল্য পরিশোধ হলে তাতে নগদ প্রণোদনা দেওয়ার সুপারিশ জানিয়েছে।\হনতুন উদ্যোক্তা ও ছোট ছোট শিল্পে বিনিয়োগ উৎসাহিত করতে দুই কোটি টাকা পর্যন্ত বিনিয়োগের মূলধনের উৎস না খোঁজার প্রস্তাব করেছে বিসিআই। আনোয়ারুল আলম চৌধূরী বলেন, অনেকে আছেন, যারা আত্মীয় ও বন্ধুদের থেকে টাকা নিয়ে একটা উদ্যোগ শুরু করছেন। কিন্তু যিনি ধার দিচ্ছেন তার আয়কর ফাইলে ওই টাকা দেখানো নেই অথবা উদ্যোক্তার আয়কর ফাইলেও নেই। এ ধরনের উদ্যোক্তাদের সুযোগ দেওয়ার জন্য এ সুবিধা প্রয়োজন।

মন্তব্য করুন