শরিয়াহভিত্তিক বন্ড বা সুকুক ইস্যুর মাধ্যমে সৌর বিদ্যুৎকেন্দ্র এবং বস্ত্র খাতের কোম্পানিতে বিনিয়োগের জন্য তিন হাজার কোটি টাকার পুঁজি সংগ্রহ করতে প্রসপেক্টাস প্রকাশ করেছে বেক্সিমকো লিমিটেড। বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) গ্রিন সুকুক অনুমোদন দেওয়ার পর অনলাইনে প্রসপেক্টাসটি করেছে কোম্পানিটি।

বেক্সিমকোর এ সুকুক পাঁচ বছর মেয়াদি। প্রতি বছর অন্তত ৯ শতাংশ হারে মুনাফা দেওয়ার নিশ্চয়তা দিয়েছে বেক্সিমকো। তবে বেক্সিমকো শেয়ারহোল্ডারদের বেশি লভ্যাংশ দিলে সেক্ষেত্রে সুকুকহোল্ডারদের বেশি মুনাফা পাওয়ার সম্ভাবনা থাকবে।\হতিন হাজার কোটি টাকার বন্ডের দেড় হাজার কোটি টাকা বা ৫০ শতাংশ প্রাইভেট প্লেসমেন্ট প্রক্রিয়ায় বিক্রি করে অর্থ সংগ্রহ করবে বেক্সিমকো লিমিটেড। এর বাইরে ২৫ শতাংশ বা ৭৫০ কোটি টাকা কোম্পানিটির বিদ্যমান শেয়ারহোল্ডারদের থেকে এবং অবশিষ্ট ২৫ শতাংশ বা ৭৫০ কোটি টাকা আইপিও প্রক্রিয়ায় সংগ্রহ করার লক্ষ্য নির্ধারণ করেছে বেক্সিমকো।

প্রসপেক্টাস অনুযায়ী, প্রাইভেট প্লেসমেন্ট প্রক্রিয়ায় বেক্সিমকোর গ্রিন সুকুক বন্ড বিক্রি হবে 'আগে আসলে আগে পাবেন' ভিত্তিতে। আগামী ২৫ জুলাই থেকে ২৬ আগস্ট পর্যন্ত প্রাইভেট প্লেসমেন্টে সুকুক বন্ডটি কেনার সুযোগ থাকবে। বেক্সিমকোর শেয়ারহোল্ডার এবং আইপিও প্রক্রিয়ায় সুকুক কেনা যাবে আগামী ১৬ আগস্ট থেকে, যা শেষ হবে\হ২৩ আগস্ট।

সুকুক বন্ড বিক্রি থেকে প্রাপ্ত অর্থ থেকে দুই হাজার ২০০ কোটি টাকা গাইবান্ধা ও পঞ্চগড়ে যথাক্রমে ২০০ মেগাওয়াট ও ৩০ মেগাওয়াটের দুটি সৌরবিদ্যুৎ কেন্দ্রে অর্থায়ন করবে বেসরকারি খাতের এ কোম্পানি।\হবেক্সিমকো লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ওসমান কায়সার চৌধুরী জানান, সুকুক বন্ড নিয়ে ইতোমধ্যে ব্যাপক সাড়া পেয়েছেন তারা। অনেক আর্থিক প্রতিষ্ঠান, সম্পদশালী ব্যক্তি, বিদেশি বিনিয়োগকারী ও প্রবাসী বাংলাদেশি প্রাইভেট প্লেসমেন্ট প্রক্রিয়ায় সুকুক বন্ড কিনতে যোগাযোগ করছেন।

মন্তব্য করুন