প্রবাসীরা বিকাশের মাধ্যমে দেশে টাকা পাঠালে অতিরিক্ত ১ শতাংশ প্রণোদনা দেবে প্রতিষ্ঠানটি। ফলে বিকাশে প্রবাসীরা টাকা পাঠালে সরকারের ঘোষিত আড়াই শতাংশ প্রণোদনার সঙ্গে বাড়তি ১ শতাংশ মিলে মোট সাড়ে ৩ শতাংশ প্রণোদনা পাবেন। গতকাল রোববার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ ঘোষণা দিয়েছে এই মোবাইল ফিন্যান্সিয়াল কোম্পানি (এমএফএস)। আগামী ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত বিকাশের এ সুযোগ পাবেন প্রবাসীরা।

২০১৯ সালের ১ জুলাই থেকে সরকার বৈধ পথে প্রবাসী আয় পাঠানোকে উৎসাহিত করতে প্রণোদনা ঘোষণা করে। ওই সময় ২ শতাংশ হারে প্রণোদনা দেওয়া হয়। অর্থাৎ কোনো প্রবাসী বাংলাদেশি দেশে ব্যাংক ব্যবস্থার মাধ্যমে ১০০ টাকা পাঠালে সরকার তাকে ২ টাকা প্রণোদনা দিয়েছে। গত ১ জানুয়ারি থেকে এই প্রণোদনার হার ২ দশমিক ৫ শতাংশ করেছে অর্থ মন্ত্রণালয়। এখন সরকারি প্রণোদনার সঙ্গে বিকাশ আরও ১ শতাংশ বাড়তি প্রণোদনা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে তার গ্রাহকদের।

বিজ্ঞপ্তিতে বিকাশ জানিয়েছে, প্রবাসীরা ১৫ হাজার টাকা বা এর চেয়ে বেশি যে কোনো পরিমাণ অর্থ পাঠালে এ প্রণোদনা পাবেন। প্রচারণা চলাকালীন প্রত্যেক গ্রাহক প্রতি মাসে দু'বার করে সর্বোচ্চ আটবার সুযোগটি নিতে পারবেন। এতে একজন গ্রাহক মাসে সর্বনিম্ন ৬০০ থেকে সর্বোচ্চ দুই হাজার ৪০০ টাকা প্রণোদনা পাবেন। বিকাশ আরও জানিয়েছে, বিকাশের অনুমোদিত ও তালিকাভুক্ত এমটিও এবং মানি এক্সচেঞ্জ প্রতিষ্ঠানগুলোর মাধ্যমে প্রবাসীরা দেশে থাকা তাদের স্বজনদের কাছে বিকাশের মাধ্যমে অর্থ পাঠিয়ে এ বাড়তি প্রণোদনা পাবেন। টাকা পাঠানোর পদ্ধতি এবং কোন কোন দেশ ও মানি ট্রান্সফার প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে টাকা পাঠানো যাচ্ছে, সেসব তথ্য বিকাশের ওয়েবসাইট থেকে জানতে পারবেন প্রবাসীরা।

২০১৯ সালে সরকার প্রণোদনা দেওয়ার পর ব্যাংকিং চ্যানেলে রেমিট্যান্স পাঠানোর পরিমাণ আগের অর্থবছরের তুলনায় প্রায় ১৩ শতাংশ বাড়ে। ২০২০-২১ অর্থবছরে রেমিট্যান্স আহরণের পরিমাণ ছিল দুই হাজার ৪৮০ কোটি ডলার। চলতি অর্থবছরে রেমিট্যান্স কমে গেছে।

মন্তব্য করুন