প্রশ্নোত্তর

প্রকাশ: ২৫ আগস্ট ২০১৭

- ইয়াসিন আহমেদ, রমনা, ঢাকা
প্রশ্ন :নেসাব পরিমাণ সম্পদের মালিক যদি কোরবানির সময় সাময়িক ঋণগ্রস্ত হয়, তাহলে তার ওপর কোরবানি ওয়াজিব হবে কি?
উত্তর :নেসাব পরিমাণ সম্পদের মালিক যদি কোরবানির দিনগুলোতে সাময়িক ঋণগ্রস্ত থাকে, যা পরিশোধ করে দিলে তার কাছে প্রয়োজনের অতিরিক্ত নেসাব পরিমাণ সম্পদ বাকি থাকে না, তাহলে তার ওপর কোরবানি ওয়াজিব হবে না। আর যদি ঋণ আদায় করে দিলেও নেসাব পরিমাণ সম্পদ বাকি থাকে, তাহলে তার ওপর কোরবানি ওয়াজিব হবে। -বাদায়েউস সানায়ে, ৪/১৯৬; ফাতাওয়া হিন্দিয়া, ৫/২৯২

- রবিউল ইসলাম, দাউদকান্দি, কুমিল্লা
প্রশ্ন : এক ব্যক্তি কোরবানির পশু ক্রয়ের পর ১২ জিলহজের মধ্যে তা কোরবানি করতে পারেনি। এখন তার কী করণীয়? আর কেউ যদি পশু ক্রয়ই না করে এবং কোরবানির সময় শেষ হয়ে যায়, তখন তার কী করণীয়?
উত্তর : প্রশ্নোক্ত ক্ষেত্রে ওই ব্যক্তি ক্রয়কৃত পশুটি জীবিত সদকা করে দেবে। আর কোনো ব্যক্তির ওপর কোরবানি ওয়াজিব হওয়া সত্ত্বেও যদি তিনি কোরবানির পশু ক্রয় না করেন এবং কোরবানিও না করে থাকেন, তাহলে তার ওপর কোরবানির যোগ্য একটি ছাগলের মূল্য সদকা করে দেওয়া ওয়াজিব। আর উভয় ক্ষেত্রেই যথাসময়ে কোরবানি না করার কারণে তওবা-ইস্তিগফার করবে। -ফাতাওয়া তাতারখানিয়া, ১৭/৪২৩; রদ্দুল মুহতার, ৬/৩২১; বাদায়েউস সানায়ে, ৪/২০২

- আবু সালেহ আইয়ুব, কালিয়া, নড়াইল
প্রশ্ন :আমাদের গ্রামের এক ব্যক্তি কোরবানি করার জন্য ঈদের দু'দিন আগে হাট থেকে একটি গাভী ক্রয় করে আনেন। ঘটনাক্রমে বাড়ির আরেকটা গাভীর সঙ্গে ওই গাভীর লড়াই লেগে ক্রয়কৃত গাভীর একটি শিং ভেঙে যায়। প্রশ্ন হচ্ছে, এমন শিং ভাঙা গাভী দ্বারা কোরবানি করলে কোরবানি হবে কি-না?
উত্তর :গাভীটির শিং যদি একেবারে গোড়া থেকে ভেঙে গিয়ে থাকে, যার দরুন মস্তিষ্ক ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে যায়, তাহলে এ পশু দ্বারা কোরবানি সহিহ হবে না। পক্ষান্তরে শিং ভাঙার কারণে মস্তিষ্কে যদি আঘাত না পেঁৗছে থাকে, তাহলে এ পশু দ্বারা কোরবানি সহিহ হবে। -মুসনাদে আহমদ, ১/৯৫, ইলাউস সুনান, ১৭/২৩৭; রদ্দুল মুহতার, ৬/৩২৩; ফাতাওয়া হিন্দিয়া, ৫/২৯৭

- শাহ শামীম, কালিয়াকৈর, গাজীপুর
প্রশ্ন :গরুকোরবানির ক্ষেত্রে ২/৪/৬ ভাগে কোরবানি হবে কি-না? একজন বলেছেন, ১ থেকে ৭ পর্যন্ত এবং বিজোড় সংখ্যায় (অর্থাৎ ১/৩/৫/৭ ভাগে) দেওয়া যাবে।
উত্তর : যে পশুতে শরিকানা জায়েজ, তাতে বিজোড়-জোড় উভয় শরিকানাই বৈধ। কোনো সমস্যা নেই। -রদ্দুল মুখতার, ৯/৪৬৩-৪৬৫

- আসাদুজ্জামান, পবা, রাজশাহী
প্রশ্ন : যার ওপর কোরবানি ওয়াজিব হয়েছে তিনি নিজে পশু ক্রয় না করে হাদিয়া পাওয়া পশু দিয়ে কোরবানি করতে পারবেন কি-না? যেমন_ পুত্রের শ্বশুরবাড়ি থেকে একটি গরু পাঠানো হলো। এখন এটা দিয়ে কোরবানি করলে কোরবানি আদায় হবে কি-না?
উত্তর :হাদিয়া হিসেবে প্রাপ্ত পশু দিয়ে কোরবানি করলে কোরবানি আদায় হয়ে যাবে। কারণ, হাদিয়াস্বরূপ প্রাপ্ত বস্তুর মালিক হাদিয়াপ্রাপ্ত ব্যক্তি। তাই পশু ক্রয় করে কোরবানি দেওয়া, যেমন হাদিয়ার পশু দিয়ে কোরবানি দেওয়ারও একই হুকুম। -বাদায়েউস সানায়ে, ৪/২১৮
উত্তর দিয়েছেন :শাহীন হাসনাত, ধর্মীয় গবেষক ও কলাম লেখক

প্রিয় পাঠক, ইসলাম ও সমাজ পাতায় ইসলামের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে
প্রশ্নের উত্তর দেওয়া হয়। নাম-ঠিকানাসহ আপনার প্রশ্ন
পাঠাতে পারেন এই ঠিকানায়-ইসলাম ও সমাজ, দৈনিক সমকাল, ১৩৬, তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা-১২০৮