নারায়ণগঞ্জ বিএনপি অফিসে তালাদেওয়ার অভিযোগ র‌্যাবের বিরুদ্ধে

প্রকাশ: ১১ জানুয়ারি ২০১৪      

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি

নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপি অফিসে হানা দিয়ে র‌্যাব তালা লাগিয়ে দিয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন জেলা বিএনপির নেতৃবৃন্দ। অভিযোগে জানা যায়, শুক্রবার সকালে সারাদেশে নিহতদের স্মরণে কোরআন খতম, মিলাদ ও দোয়া চলাকালে র‌্যাব সেখানে হানা দেয়। পরে বিএনপি অফিসে থাকা মাওলানা এবং কোরআন পড়তে আসা মাদ্রাসার ছাত্রদের তারা বের করে দিয়ে অফিসটি তালাবদ্ধ করে দেয়। এ সময় বিএনপি নেতারা অফিসের পেছনের দেয়াল টপকে সটকে পড়েন। বিকেলেও বিএনপি অফিসের নিচে র‌্যাবের ২টি গাড়ি অবস্থান করতে দেখা গেছে।
বৃহস্পতিবার সকালে দুই মাস বন্ধ থাকার পর অফিস খুলে বসেন সদ্য কারামুক্ত শহর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এটিএম কামাল। কামালসহ বিএনপির বেশিরভাগ নেতা গ্রেফতার হয়ে কারাবন্দি থাকায় অফিস তালাবদ্ধ অবস্থায় ছিল।
শহর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এটিএম কামাল বলেন, শুক্রবার সকালে বিএনপি অফিসে কোরআন খতম এবং মিলাদ ও দোয়া চলাকালে প্রথমে র‌্যাবের একটি গাড়ি অফিসের সামনে আসে। কিছুক্ষণ পর আরও দুটি র‌্যাবের গাড়ি আসে। পরে একসঙ্গে র‌্যাবের সদস্যরা গাড়ি থেকে নেমে বিএনপি অফিসের দিকে আসতে থাকলে অবস্থা বেগতিক দেখে তিনি, শহর বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক নুরুল হক চৌধুরী দীপুু, দফতর সম্পাদক আক্তার হোসেন খোকন শাহ অফিসের পেছন দিয়ে দেয়াল টপকে পালিয়ে যান।
পরে র‌্যাব সদস্যরা মাওলানা ও মাদ্রাসা ছাত্রদের বের করে দিয়ে অফিস তালাবদ্ধ করে দেন। তারা পিয়ন রাসেলকে বলেন, অফিস যেন খোলা না হয়। খুলে যারাই বসবে তাদেরই গ্রেফতার করা হবে।
এদিকে বিএনপি অফিসে তালা দিয়ে গণতন্ত্রকে তালা দেওয়া হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির সভাপতি ও কেন্দ্রীয় বিএনপির সহ-আইন বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকার।
এ ব্যাপারে বারবার চেষ্টা করেও র‌্যাব-১১ নারায়ণগঞ্জ ক্যাম্পের কারও বক্তব্য পাওয়া যায়নি। তবে অভিযানের সময় ঘটনাস্থলে যাওয়া এক সদস্য জানিয়েছেন, তারা বিএনপি অফিসের সামনে গেলেও ভেতরে প্রবেশ করেননি।