হিন্দুবাড়িতে ককটেলবিস্ফোরণ, আগুন

প্রকাশ: ১১ জানুয়ারি ২০১৪      

ম সমকাল ডেস্ক
নোয়াখালীর কোম্পানিগঞ্জে হিন্দুবাড়িতে ককটেল বিস্ফোরণ ঘটিয়েছে দুর্বৃত্তরা। গাজীপুরের কালীগঞ্জে হিন্দু বাড়িতে আগুন দেওয়ার খবর পাওয়া গেছে। রাজনগরে এক হিন্দু বাড়ির ঠাকুরঘরে চুরির ঘটনা ঘটেছে। এ ছাড়া টাঙ্গাইলের সখীপুরে পল্লী চিকিৎসককে মারধর ও তার দোকান ভাংচুর করেছে দুর্বৃত্তরা। প্রতিনিধি ও সংবাদদাতাদের পাঠানো খবর :
কোম্পানীগঞ্জ (নোয়াখালী) :উপজেলার এক হিন্দুবাড়িতে হামলা করেছে একদল দুর্বৃত্ত। এ সময় বেশ কয়েকটি ককটেলের বিস্ফোরণ ঘটানো হয়।
জানা যায়, বৃহস্পতিবার রাত ১০টায় উপজেলার সিরাজপুর ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডের মাখন বেপারিবাড়ির বিমল দাসের ঘরে ২০-২৫ জনের মুখোশধারী একদল দুর্বৃত্ত ঘরের দরজা জানালা ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে ভাংচুর করে। এ সময় বাড়ির লোকজন দুর্বৃত্তদের ধাওয়া করলে তারা বেশ কয়েকটি ককটেলের বিস্ফোরণ ঘটায়। এ ব্যাপারে বিমল দাস জানান, দুর্বৃত্তরা ঘরের দরজা-জানালা ভাংচুর করে যাওয়ার সময় ককটেল বিস্ফোরণ ঘটিয়ে পালিয়ে যায়। যৌথ বাহিনী ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। ওসি সাজেদুর রহমান জানান, তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
কালীগঞ্জ (গাজীপুর) :গাজীপুরের কালীগঞ্জ উপজেলার পৌর এলাকার মূলগাঁও গ্রামের একটি হিন্দু বাড়িতে আগুন দেওয়ার খবর পাওয়া গেছে।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার রাতে কালীগঞ্জ পৌরসভার মূলগাঁও গ্রামের পরিতোষ চন্দ্র দাসের বাড়ির লাকড়িভর্তি রান্নাঘরে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। পরে পাশের পলাশ উপজেলা থেকে ফায়ার সার্ভিসের লোকজন এসে এক ঘণ্টা চেষ্টা করে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনলেও পুড়ে যায় রান্নাঘরটি। পরিতোষ স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা আমজাদ হোসন স্বপনের ইটের ভাটায় কাজ করেন। ঘটনার পর কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. কামরুল আহসান তালুকদার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এ ব্যাপারে কালীগঞ্জ থানার ওসি মো. নাজমুল হক ভঁূইয়া জানান, তিনি ধারণা করছেন শর্টসার্কিট থেকে অগি্নকাণ্ডের সূত্রপাত হতে পারে।
মৌলভীবাজার :রাজনগরে হিন্দু পরিবারের দুই শতাধিক বছরের পুরনো ঠাকুরঘরের টিনের বেড়া কেটে চুরির ঘটনা ঘটেছে। এ সময় রাধা মাধবের মূর্তি ও মূর্তির ব্যবহৃত সোনা-রূপার চুড়ি, মাথার তাজ, থালা-বাসন নিয়ে গেছে দুর্বৃত্তরা। ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার ভোররাতে উপজেলার দক্ষিণ মহলাল গ্রামের হরিপদ অধিকারীর বাড়িতে। চুরির আগে দুর্বৃত্তরা বাড়ির কুকুরকে বিষ প্রয়োগ করে অচেতন করে। কুকুরটিকে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।
স্থানীয় একটি সূত্র জানায়, দক্ষিণ মহলাল গ্রামের মুজিবুর রহমান পাটোয়ারী ও ইসলাম আলীর সঙ্গে জমি-সংক্রান্ত বিষয়ে দীর্ঘ দিন ধরে অধিকারী বাড়ির লোকজনের বিরোধ ও আদালতে মামলা চলে আসছিল। দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের ওপর হামলা ও রাজনৈতিক অস্থিতিশীলতার সুযোগে প্রতিপক্ষ এ ঘটনা ঘটাতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।
স্থানীয় মনসুরনগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মিলন বখত জানান, জমি-সংক্রান্ত বিরোধ নাকি জামায়াত-শিবির এ ঘটনা ঘটিয়েছে তা বোঝা যাচ্ছে না।
সখীপুর (টাঙ্গাইল) :সখীপুরে এক হিন্দু ধর্মাবলম্বী পল্লী চিকিৎসক ও ওষুধ ব্যবসায়ীর ওপর হামলা চালিয়েছে স্থানীয় চিহ্নিত সন্ত্রাসীরা। তার নাম কিশোর কুমার। গতকাল শুক্রবার জুমার নামাজের পর উপজেলার বেড়বাড়ি বাজারে ওই চিকিৎসকের ওষুধের দোকানে গিয়ে অতর্কিত হামলা চালিয়ে ভাংচুর ও তাকে মারধর করে তারা। পরে আহত কিশোর কুমারকে ওই বাজারের ব্যবসায়ীরা উদ্ধার করে সখীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। এ ঘটনায় গতকাল আহতের ছোট ভাই কৃষ্ণ সরকার বাদী হয়ে জুয়েল, বিপ্লব হোসেন রুবেল ও আবদুর রাজ্জাককে আসামি করে সখীপুর থানায় মামলা করেছেন।
নেত্রকোনা :জেলার কলমাকান্দার বটতলা গ্রামে কালী মন্দিরে হামলা, প্রতিমা ভাংচুর ও অগি্নসংযোগের ঘটনায় গ্রেফতার হওয়া মহিম উদ্দিনকে কলমাকান্দা থানা পুলিশ গতকাল শুক্রবার পাঁচদিনের রিমান্ডে নিয়েছে।
জানা গেছে, বটতলা গ্রামে বুধবার রাতে কালী মন্দিরে দুর্বৃত্তরা হামলা চালিয়ে ভাংচুর ও অগি্নসংযোগ করে। এ ঘটনায় মন্দির কমিটির সভাপতি অনিল বিশ্বাস ওইদিন রাতেই কলমাকান্দা থানায় অজ্ঞাত পরিচয়কে আসামি করে মামলা করেন। পুলিশ বৃহস্পতিবার রাতে বটতলা গ্রামের মহিম উদ্দিনকে উপজেলার গুতুরা বাজার থেকে বাড়ি ফেরার পথে গ্রেফতার করে।
গির্জায় অগি্নসংযোগের অভিযোগে গ্রেফতার ১ :সীমান্ত অঞ্চল (শেরপুর) প্রতিনিধি জানান, শেরপুরের ঝিনাইগাতী উপজেলায় বাকাকুড়া গির্জায় অগি্নসংযোগের অভিযোগে পুলিশ একজনকে গ্রেফতার করেছে। গতকাল শুক্রবার দুপুর ১২টার দিকে উপজেলার পূর্ববাকাকুড়া গ্রাম থেকে পুলিশ মাহফুজুর রহমানকে গ্রেফতার করে। তিনি কাংশা ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি শের আলী মেম্বারের ছেলে।