নালার ওপর চসিকের মার্কেট!

প্রকাশ: ২২ জানুয়ারি ২০১৪      

তৌফিকুল ইসলাম বাবর, চট্টগ্রাম ব্যুরে

ারাস্তা, ফুটপাত ও নালার ওপর থেকে অবৈধ স্থাপনা সরিয়ে নিতে ২০১৩ সালের ১০ জুন বিভিন্ন পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দেয় চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন (চসিক)। নগরীকে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখতে ও জলাবদ্ধতা নিরসনে এমন বিজ্ঞপ্তি দিয়ে থাকে চসিক। চালায় উচ্ছেদ অভিযানও। কিন্তু সেই সিটি করপোরেশনই এবার নগরীতে নালার ওপর মার্কেট নির্মাণ করছে! বহদ্দারহাট মোড়ে 'বক্স ড্রেন' করে তার ওপর নির্মাণ করা হচ্ছে সারি সারি দোকান। চসিকের এমন কর্মকাণ্ড নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। সমালোচনার মুখে পড়েছেন মেয়র এম মনজুর আলম।
এর আগে নগরীর প্রবর্তক মোড়ে নালার ওপর বিশ্ববিদ্যালয় করায় ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়েছিলেন তৎকালীন মেয়র এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরী। এদিকে যেখানে নালার ওপর মার্কেট নির্মাণ করা হচ্ছে, সেই জায়গার মালিকানা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছে চট্টগ্রাম জেলা পরিষদ। চসিকের এমন কাজে ক্ষুব্ধ স্থানীয় সংসদ সদস্যও। অসন্তুষ্ট চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষও (চউক)।
সরেজমিনে দেখা গেছে, শুলকবহর থেকে বহদ্দারহাটের ডোমখালি খাল পর্যন্ত বক্স ড্রেন করছে সিটি করপোরেশন। এই নালা নির্মাণে রাস্তার পাশের অনেক দোকানপাট উচ্ছেদ করে গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়। ভেঙে দেওয়া হয় বহদ্দারহাট বাজার ঘেঁষে থাকা সিটি করপোরেশনের টিনশেডের পুরনো কিছু দোকানপাটও। কিন্তু নালা করতে অনেক দোকানপাট ভেঙে দেওয়া
হলেও শুধু বহদ্দারহাটে নালার ছাদে লোহার জালি থেকে পিলারের পর ফের তৈরি করা হচ্ছে বেশ কিছু দোকানপাট। উচ্ছেদ করা দোকানগুলো এভাবে পাকা করে দেওয়ায় ক্ষুব্ধ হন স্থানীয় স্বজন সুপার মার্কেট, বখতেয়ার মার্কেট, তাহের মার্কেট ও খাজা মার্কেটের ব্যবসায়ীসহ কয়েকশ' দোকানি।
চসিকের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, জলাবদ্ধতা নিরসনে সরকারি অর্থায়নে একটি প্রকল্পের আওতায় প্রায় আট কোটি টাকা ব্যয়ে বক্স ড্রেনটি নির্মাণ করা হচ্ছে। আর ভেঙে দেওয়া দোকান মালিকদের ক্ষতি বিবেচনা করে বহদ্দারহাটে নির্মাণ করে দেওয়া হচ্ছে ৩৫টি দোকান।
স্বজন মার্কেট ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক গিয়াসউদ্দিন ভূঁইয়া বলেন, যেসব দোকান ভেঙে দেওয়া হয়েছে, সেগুলো পুনর্নির্মাণে কোনো যুক্তি নেই। সিটি করপোরেশন জোর করে এটা করছে। তাই আমরা বাধ্য হয়ে উচ্চ আদালতে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।
জানতে চাইলে চট্টগ্রাম-৮ আসনের সাংসদ মইনউদ্দীন খান বাদল বলেন, 'চট্টগ্রাম নগরীর প্রধান সমস্যা জলাবদ্ধতা। এ সমস্যা নিরসনে নগরীর গুরুত্বপূর্ণ বহদ্দারহাট এলাকায় বক্স ড্রেন করছে সিটি করপোরেশন। আবার সেই নালার ওপর মার্কেট নির্মাণ হতে দেখে আমি অবাক হয়েছি।'
চট্টগ্রাম জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এম এ ছালাম সমকালকে বলেন, যে জায়গায় নালা করা হচ্ছে, সেটি প্রকৃতপক্ষে জেলা পরিষদের।
চউক চেয়ারম্যান আবদুচ ছালাম বলেন, বহদ্দারহাটের মতো গুরুত্বপূর্ণ জংশনে নালার ওপর দোকান নির্মাণ করা হলে ফুটপাত থাকবে না। এটা কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়।
এসব বিষয়ে জানতে মেয়র মনজুর আলমের মোবাইল ফোনে কয়েক দফায় চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি।