বরিশালে টেন্ডারবাজি ছাত্রলীগের হামলায়যুবলীগ কর্মী হাসপাতালে

প্রকাশ: ২২ জানুয়ারি ২০১৪      

বরিশাল বু্যুরো
বরিশাল শিক্ষা প্রকৌশল বিভাগের অধীনে বিদ্যালয় ভবন নির্মাণে প্রায় ৭ কোটি টাকার দরপত্রের ভাগবাটোয়ারা নিয়ে গতকাল মঙ্গলবার ছাত্রলীগ কর্মীদের বেদম মারধরের শিকার হয়েছেন যুবলীগ কর্মী সেজান।
প্রত্যক্ষদর্শী সূত্র জানায়, দুপুর ২টার দিকে নগরীর জর্ডান রোডে শিক্ষা প্রকৌশল বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলীর বাসার সামনে এ ঘটনা ঘটে। আহত সেজানকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
বরিশাল অফিস সূত্রে জানা গেছে, বরিশাল ও ঝালকাঠিতে বিদ্যালয় ভবন নির্মাণের জন্য ১১ গ্রুপের ৬ কোটি ৭১ লাখ টাকার দরপত্র আহ্বান করে শিক্ষা প্রকৌশল অধিদফতর। এ কাজ বাগিয়ে নিতে ছাত্রলীগ-যুবলীগের কতিপয় নেতাকর্মী সোমবার সাধারণ ঠিকাদারদের দরপত্র জমা দিতে বাধা দেন। মঙ্গলবার ওই কাজ ভাগাভাগি করতে গিয়ে বিএম কলেজ ছাত্রলীগের একটি গ্রুপের সঙ্গে যুবলীগের সেজান গুপের বিরোধের সৃষ্টি হয়। প্রথমে ছাত্রলীগ ও যুবলীগের নেতাকর্মীরা শিক্ষা প্রকৌশলীর অফিসে যান। সেখানে তারা নির্বাহী প্রকৌশলী আবুল বাশারকে না পেয়ে তার বাসার সামনে গিয়ে নিজেদের মধ্যে হাঙ্গামায় লিপ্ত হয়। এক পর্যায়ে যুবলীগ কর্মী সেজানকে বেদম পিটিয়ে আহত করে বিএম কলেজের ছাত্রলীগ কর্মীরা।
যুবলীগ নেতা সাহেব আলম সেজান জানান, ছাত্রলীগের হামলাকারীরা তার পে অর্ডারের ১ লাখ ৩০ হাজার টাকা ছিনিয়ে নিয়েছে। ছাত্রলীগ নেতা ফয়সাল আহম্মেদ মুন্না জানান, দুপুর ১২টার দিকে বিএম কলেজ ছাত্রলীগের কর্মী সোহেল, রাজু ও রিমন সিএসের জন্য ৯৮ হাজার টাকা জমা দিতে শিক্ষা প্রকৌশল অধিদফতরের কার্যালয়ে যাওয়ার পথে সেজান তাদের বাধা দেয় এবং টাকা ছিনিয়ে নেয়। এ সময় তাদের চিৎকারে স্থানীয়রা সেজানকে আটক করে গণপিটুনি দিয়েছে।