ছাত্রলীগ নেতাকে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী পরিচয়ে তুলে নিয়ে পায়ে গুলি

প্রকাশ: ২২ জানুয়ারি ২০১৪

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি
নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লা থেকে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী পরিচয়ে ছাত্রলীগের এক নেতাকে তুলে নিয়ে দু'পায়ে গুলি করা হয়েছে। মঙ্গলবার ভোরে মুন্সীগঞ্জের মুক্তারপুর ব্রিজের নিচ থেকে গুরুতর আহত ওই ছাত্রলীগ নেতাকে উদ্ধার করে প্রথমে নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল এবং পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। ঘটনার শিকার ওই ছাত্রলীগ নেতার নাম মো. মুন্না (৩২)। তিনি ফতুল্লা থানা ছাত্রলীগের ক্রীড়াবিষয়ক সম্পাদক। ফতুল্লার পোস্ট অফিস এলাকার মিরাজ মিয়ার ছেলে তিনি।
ফতুল্লার পোস্ট অফিস রোডের বাড়িতে মুন্না সাংবাদিকদের বলেন, সোমবার বিকেল ৫টায় তিনি বাসা থেকে বের হয়ে পোস্ট অফিস এলাকায় যাওয়ার পর সাদা পোশাকধারী ১০-১২ জন নিজেদের র‌্যাব সদস্য পরিচয় দিয়ে অস্ত্রের মুখে তাকে একটি সাদা মাইক্রোবাসে তুলে নিয়ে যায়। চোখ বাঁধা থাকায় তাকে কোথায় নিয়ে যাওয়া হয়েছিল, তা তিনি বলতে পারেননি। পরে গভীর রাতে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে তার ডান পায়ে দুটি এবং বাঁ পায়ে একটি গুলি করা হলে তিনি মাটিতে লুটিয়ে পড়েন।
মঙ্গলবার ভোর ৫টায় মুন্সীগঞ্জের মুক্তারপুর ব্রিজের নিচে পড়ে থাকতে দেখে স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে প্রথমে নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যান। জ্ঞান ফিরলে মুন্না টেলিফোনে ঘটনা তার বাবা মিরাজ মিয়াকে জানান। পরে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। ফতুল্লা মডেল থানার ওসি আকতার হোসেন এ ব্যাপারে কিছুই জানেন না বলে জানান।