আ'লীগকেই খেসারত দিতে হবে :বিএনপি

প্রকাশ: ২২ জানুয়ারি ২০১৪      

সমকাল প্রতিবেদক
ভোটারবিহীন নির্বাচনের জন্য আওয়ামী লীগকেই খেসারত দিতে হবে বলে মন্তব্য করেছে বিএনপি। ৫ জানুয়ারির নির্বাচনে না এসে বিএনপি যে ভুল করেছে, আগামী পাঁচ বছর তার খেসারত দিতে হবে বলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যে মন্তব্য করেছেন তার প্রতিক্রিয়ায় বিএনপি এ কথা বলেছে। গতকাল বিএনপির দফতরের দায়িত্বপ্রাপ্ত আন্তজার্তিকবিষয়ক সম্পাদক ড. আসাদুজ্জামান রিপন দলের নয়াপল্টন কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এ প্রতিক্রিয়া জানান। তিনি বলেন, সংসদের বর্তমান বিরোধী দল অনৈতিক ও অবৈধ। তারা আইনসম্মতভাবে নির্বাচিত নয়। এই বিরোধী দলের নেতারা জাতীয় স্মৃতিসৌধে গিয়ে স্বাধীনতা যুদ্ধের শহীদদের আত্মার প্রতি অসম্মান করেছেন।
আসাদুজ্জামান রিপন বলেন, ভোটবিহীন নির্বাচনে গঠিত সরকার আর যাই হোক তা কোনোক্রমেই জনগণের সরকার হতে পারে না। প্রধানমন্ত্রী প্রকাশ্যে না বললেও এ সত্য নিশ্চয়ই উপলব্ধি করেন। এ কারণে শাসক দলকেই এজন্য ভবিষ্যতে রাজনৈতিকভাবে খেসারত দিতে হবে বলে মন্তব্য করেন তিনি।
আসাদুজ্জামান রিপন বলেন, জাতীয় পার্টি নির্বাচনে অংশ নেয়নি বলে দলটির চেয়ারম্যান এইচএম এরশাদ প্রকাশ্যে ঘোষণা দিয়েছেন। তিনি নির্বাচন কমিশনে চিঠি দিয়ে কাউকে লাঙ্গল প্রতীক বরাদ্দ না দেওয়ারও আহ্বান জানিয়েছেন। এ অবস্থায় জাপা নির্বাচনে অংশ নেয়নি, এটাই হচ্ছে বাস্তবতা। কিন্তু প্রহসনের নির্বাচনে দলটির কয়েকজনকে এমপি হিসেবে জয়ী দেখানো হয়েছে। আরপিও অনুযায়ী এ বিরোধী দল অনৈতিক ও বেআইনি।
সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ছিলেন বিএনপির প্রশিক্ষণবিষয়ক সম্পাদক কাজী আসাদুজ্জামান, সহ-দফতর সম্পাদক আবদুল লতিফ জনি, আসাদুল করিম শাহীন, যুবদল নেতা মোরতাজুল করিম বাদরু, কৃষক দল নেতা গোলাম মোস্তফা, এসকে সাদি প্রমুখ।
এক প্রশ্নের জবাবে আসাদুজ্জামান বলেন, বর্তমান তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু একসময় গণবাহিনী, গণসৈনিক সংস্থার মাধ্যমে সেনাবাহিনীতে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টিতে লিপ্ত ছিলেন। তিনি এখন সেনাবাহিনীর জন্য মায়াকান্না দেখাচ্ছেন।