চট্টগ্রামে প্রতারক চক্রের৯ সদস্য অস্ত্রসহ গ্রেফতার

প্রকাশ: ১০ জুন ২০১৪      

চট্টগ্রাম ব্যুরো

মোবাইল ফোনে পরিচয়ের সূত্র ধরে প্রেম করে শাহনাজ। সম্পর্কের গভীরতা বাড়লে প্রেমিকের সঙ্গে সাক্ষাৎও করে। আর সেই সাক্ষাতের ব্যবস্থা করে জামশেদ। তবে শাহনাজের সঙ্গে একান্তে দেখা করতে এলেই অস্ত্রের মুখে সেই প্রেমিকের সর্বস্ব লুটে নেয় জামশেদ। এই প্রতারক চক্রের প্রধান মো. জামশেদসহ চার প্রতারককে অস্ত্রসহ গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তবে শাহনাজকে আটক করা যায়নি। সোমবার গভীর রাতে হালিশহর এ ব্লক এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়। এদিকে প্রায় একই ধরনের প্রতারক চক্রের আরও পাঁচ সদস্যকে পাঁচলাইশ থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে।
নগর গোয়েন্দা পুলিশের অতিরিক্ত উপকমিশনার বাবুল আক্তার বলেন, 'নগরীর পৃথক দুটি স্থান থেকে প্রতারক চক্রের ৯ সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তারা মেয়েদের ব্যবহার করে মানুষের সর্বস্ব লুটে নিত।'
হালিশহর এলাকা থেকে গ্রেফতার এ চক্রের অন্য সদস্যরা হলো_ খোরশেদ আলম, আল আমিন এবং খোকন। উদ্ধার অস্ত্রের মধ্যে রয়েছে একটি একনলা বন্দুক, দুটি কার্তুজ ও তিনটি ছুরি। এ ছাড়াও তিনটি মোবাইল সেট উদ্ধার করা হয়।
এদিকে পাঁচলাইশ থানার কসমোপলিটন আবাসিক এলাকা থেকে গ্রেফতারকৃতরা হলো_ জোবাইদা আক্তার জয়া, সুমনা আক্তার শীলা, উৎপল চৌধুরী, সাইদুল মুসলিম সাইমুন এবং আতিকুর রহমান সোহেল।
ছিনতাই চক্রের দলনেতা গ্রেফতার : চট্টগ্রামের ছিনতাই চক্র 'হামকা' গ্রুপের দলনেতা মো. আলমগীর ওরফে ঢাকাইয়্যা আলমগীরকে কুমিল্লা থেকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। হালিশহর থানার পুলিশ রোববার রাতে কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম থেকে আলমগীরকে গ্রেফতার করে বলে জানান থানার ওসি শাহজাহান কবীর।
তিনি বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আলমগীরকে গ্রেফতার করা হয়। পরে তার কাছ থেকে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে চক্রের আরেক সদস্য নূরুল ইসলামকে হালিশহরের সরাইপাড়া থেকে গ্রেফতার করা হয়।