আপা বললে চলে যাব

_বেসিক ব্যাংকের চেয়ারম্যান

প্রকাশ: ১০ জুন ২০১৪      

সমকাল প্রতিবেদক

'সমস্যা নেই, আমি আছি। যত দিন আছি সবাই মিলেমিশে কাজ করব। আপা (প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা) বললে চলে যাব, না হলে থাকব।' এই বক্তব্য বেসিক ব্যাংকের বিতর্কিত চেয়ারম্যান আবদুল হাই বাচ্চুর। বেসিক ব্যাংকের কয়েকটি শাখায় ঋণের নামে সাড়ে চার হাজার কোটি টাকার বেশি অর্থ আত্মসাতের তথ্য উদ্ঘাটনের পরিপ্রেক্ষিতে তার পদত্যাগের দাবি ওঠার প্রেক্ষাপটেই এসব কথা বললেন তিনি। গতকাল সোমবার ব্যাংকের প্রধান কার্যালয়ে সব ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাকে নিয়ে হঠাৎ বৈঠক করেন আবদুল হাই বাচ্চু।
বেসিক ব্যাংক সূত্রে জানা গেছে, গত ২৯ মে পর্ষদ ভেঙে দিতে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সুপারিশের পর গতকাল তিনি প্রথম ব্যাংকে আসেন। বৈঠকে ব্যাংকের ভারপ্রাপ্ত এমডি ফজলুস সোবহান, প্রধান কার্যালয়ের তিন ডিএমডি ও বিভাগীয় প্রধানসহ উচ্চপদস্থ ৩৫ কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন। বৈঠকে উপস্থিত কয়েকজন কর্মকর্তার সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, বৈঠকের একপর্যায়ে বাচ্চু বলেন, 'আমি একটা অন্যায় করলে অন্যরা করেছে তিনটা। আমি একটা ঋণের জন্য বলেছি, অন্যরা তিনটা ছাড় করেছে। তাই এর দায় আমি একা কেন নেব।' তিনি আরও বলেন, 'সমস্যা নেই, আমি আছি। যত দিন আছি সবাই মিলেমিশে কাজ করব। আপা বললে চলে যাব, না হলে থাকব।' বাংলাদেশ ব্যাংকের বিভিন্ন পরিদর্শনে বেসিক ব্যাংকের গুলশান, দিলকুশা ও শান্তিনগর শাখায় সাড়ে চার হাজার কোটি টাকার বেশি ঋণে অনিয়মের তথ্য উঠে আসে।

ঋণ ও পদোন্নতিতে অনিয়ম ঠেকাতে ব্যর্থতার দায়ে গত ২৫ মে ব্যাংকের এমডি কাজী ফখরুল ইসলামকে অপসারণ করেছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। ব্যাংক কোম্পানি আইনে সরকারি ব্যাংকের পর্ষদ ভেঙে দেওয়ার ক্ষমতা কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নেই। এ কারণে পর্ষদ ভেঙে দেওয়ার সুপারিশ করে ২৯ মে অর্থ মন্ত্রণালয়ে সুপারিশসহ প্রতিবেদন পেশ করা হয়েছে। এর পর অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত জানান, বেসিক ব্যাংকের পর্ষদ পুনর্গঠন করা হবে। তবে রোববার মন্ত্রী বলেন, চেয়ারম্যানকে সরিয়ে দিতে প্রধানমন্ত্রীর অনুমতির প্রয়োজন হতে পারে।