যুবদলের কমিটি নিয়ে ইমেজ সংকটে মিনু

প্রকাশ: ২৬ আগস্ট ২০১৪      

রাজশাহী ব্যুরো

রাজশাহী মহানগর যুবদলের কমিটি নিয়ে ইমেজ সংকটে পড়েছেন বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব ও সাবেক মেয়র মিজানুর রহমান মিনু। যুবদলের ভেতরে রাসিক মেয়র মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুলপন্থি হিসেবে পরিচিত নেতাদের বাদ দেওয়ায় তারা ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। মিনুর ওপর ক্ষোভ থেকে বিএনপি ও যুবদল থেকে একযোগে পদত্যাগের সিদ্ধান্তও নিয়েছেন শতাধিক নেতাকর্মী। গতকাল সোমবার রাত ৯টা পর্যন্ত নগরীর সাফাওয়াং কমিউনিটি সেন্টারে এ নিয়ে বৈঠকও করেছেন ক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা। বিএনপি সূত্র জানায়, ২০০৩ সালে মহানগর যুবদলের কাউন্সিল হয়। ওই কাউন্সিলে দলের সভাপতি হন মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল ও সাধারণ সম্পাদক হন
আসলাম সরকার। দীর্ঘ ৯ বছর পর সেই কমিটি ভেঙে দেওয়া হয়। এ নিয়ে ক্ষুব্ধ হন বুলবুলের সমর্থকরা। সে সময় রাতে মিনুর বাড়ি ঘেরাও করেছিলেন তারা। অবশেষে কেন্দ্রের হস্তক্ষেপে ২০১২ সালে আহ্বায়ক কমিটি গঠন করা হয়। সে কমিটিতে মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুলকে আহ্বায়ক করা হয়। একই সঙ্গে তিন মাসের মধ্যে ওয়ার্ড কমিটি করে মহানগরের কাউন্সিল করার নির্দেশ দেয় দলের হাইকমান্ড। কিন্তু আর কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হয়নি। শনিবার যে কমিটি কেন্দ্র থেকে ঘোষণা করা হয়েছে, তাতে বুলবুলপন্থিদের বাদ দেওয়া হয়েছে।
মেয়র বুলবুল সমর্থকদের দাবি, মিজানুর রহমান মিনু নগরীর রাজনীতিতে বুলবুলকে কোণঠাসা করতে এ কমিটি গঠন করেছেন। এতে তবলিগে যোগ দেওয়া ওয়ালিউল হক রানাকে সভাপতি ও ছাত্রমৈত্রী থেকে দলে যোগ দেওয়া হিকোলকে সাধারণ সম্পাদক করেছেন।
যুবদল নেতা বেলাল আহমেদ জানান, মিজানুর রহমান মিনু ইচ্ছা করে এমন কমিটি গঠন করেছেন। সেখানে মেয়র মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুলকে গুরুত্ব দেওয়া হয়নি। তিনি বলেন, 'ত্যাগী নেতাদের বাদ দিয়ে কমিটি গঠন করা হয়েছে। মিনু ভাই আমাদের সঙ্গে নাটক করেছেন।'
রাজপাড়া যুবদলের সভাপতি শাহিনুর হোসেন মিঠু জানান, মিজানুর রহমান মিনুকে নগর যুবদলের কমিটি গঠনের সর্বময় ক্ষমতা দেওয়া হয়েছিল। তিনি সেই সুযোগ নিয়ে ত্যাগী নেতাদের বাদ দিয়ে কিছুদিন আগে দলে আসা ব্যক্তিদের পদ দিয়েছেন। এতে তারা ক্ষুব্ধ।
আগের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য ও রাসিক কাউন্সিলর রবিউল আলম মিলু জানান, যুবদলকে ধ্বংস করতে এমন কমিটি করা হয়েছে। তাদের অবস্থান এই কমিটির বিপক্ষে। তারা বৈঠক করছেন। তাদের দাবি অনুযায়ী ত্যাগী নেতাদের মূল্যায়ন করা না হলে তারা গণপদত্যাগ করতে বাধ্য হবেন। গতকাল শতাধিক যুবদল নেতাকর্মী বৈঠক করে এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলে তিনি জানান।
তবে বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব মিজানুর রহমান মিনু জানান, যুবদলকে শক্তিশালী করতে নতুন এ কমিটি কেন্দ্র গঠন করেছে। যুবদলের ত্যাগী নেতাদের বিএনপিতে পদ দেওয়া হয়েছে। বুলবুলকে ছোট ভাই উল্লেখ করে তিনি বলেন, 'আমি কাউকে কোণঠাসা করতে কমিটি করিনি।'