বিচারপতি অভিশংসন

আগামী অধিবেশনেই ফিরিয়ে আনা হবে ক্ষমতা :সুরঞ্জিত

প্রকাশ: ২৬ আগস্ট ২০১৪      

সমকাল প্রতিবেদক

আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত বলেছেন, বিএনপি আজ সরকারের উদ্যোগের সমালোচনা করছে। কিন্তু তাদের সরকারের আইনমন্ত্রী ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদই বলেছিলেন বিচারপতিদের অভিশংসনের ক্ষমতা সংসদের হাতে আনা হলে তিনি তাতে ভোট দেবেন। তাই এর বিরুদ্ধে বিরোধিতা করে কোনো লাভ নেই। সংসদের আগামী অধিবেশনেই সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনীর মাধ্যমে বিচারপতি অভিশংসনের ক্ষমতা ফিরিয়ে আনা হবে। গতকাল সোমবার রাজধানীতে পাবলিক লাইব্রেরির সেমিনার হলে এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাজি মোহাম্মদ সেলিম এমপির সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় সুরঞ্জিত আরও বলেন, ১৯৭২ সালের সংবিধানে বিচারপতি অভিশংসন ক্ষমতা ছিল।
পরে সামরিক সরকার তা বাতিল করে। পঞ্চদশ সংশোধনীতেই এ ক্ষমতা ফিরিয়ে আনা উচিত ছিল; কিন্তু, কিছু স্বার্থান্বেষী মহলের কারণে তা ফিরিয়ে আনা সম্ভব হয়নি। আগামী সংসদ অধিবেশনে সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনীর মাধ্যমে বিচারপতি অভিশংসন ক্ষমতা সংসদের হাতে ফিরিয়ে আনা হবে। বিএনপিকে উদ্দেশ করে তিনি বলেন, বিএনপির এত হইচই করার কিছু নেই। যে কোনো বিষয়ে হইচই করাই তাদের রাজনৈতিক শিষ্টাচার। বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ বলেছিলেন, বিচারপতি অভিশংসন ক্ষমতা সংসদের হাতে ফিরিয়ে আনা হলে তিনি ভোট দেবেন।
গণমাধ্যমে তার এমন মতামত থাকার পরও কেন বিরোধিতা। মওদুদ আহমদের এ বক্তব্যের পরে বিএনপির এ নিয়ে কথা বলার কিছুই নেই বলে মন্তব্য করেন আওয়ামী লীগের এ প্রবীণ সাংসদ।